আইসিসি চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহরের পদত্যাগ

61

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা আইসিসির চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন শশাঙ্ক মনোহর।

ঠিক কী কারণে মনোহর পদত্যাগ করলেন সেটি জানা যায়নি। তবে আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসনকে তিনি লিখেছেন, ‘ব্যক্তিগত কারণে এই মহান দায়িত্ব পালন করতে পারছি না।’

২০১৬ সালের মে মাসে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আইসিসির প্রথম স্বাধীন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। দুই বছরের মেয়াদে নির্বাচিত হলেও এক বছর না পেরোতেই সরে যাচ্ছেন মনোহর। অথচ বিশ্ব ক্রিকেটের ভারসাম্যহীন ক্ষমতার কুফলটা বুঝতে পেরে ধীরে ধীরে সব গুছিয়ে আনছিলেন তিনি। তাঁর নেতৃত্বেই তিন মোড়লের কর্তৃত্ব খর্ব করতে পেরেছিল আইসিসি।

ঠিক কী কারণে মনোহর পদত্যাগ করলেন সেটি জানা যায়নি। তবে আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসনকে তিনি লিখেছেন, ‘আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আইসিসির নির্বাহী বোর্ড ও সদস্য বোর্ডগুলোর সম্পর্কিত সব বিষয়ে নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করেছি। এ বিষয়ে পরিচালকদের (বোর্ড) সমর্থনও পেয়েছি। ব্যক্তিগত কারণে এই গুরুদায়িত্ব পালন আমার পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।’

রিচার্ডসনকে লেখা চিঠিতে মনোহর ধন্যবাদ জানিয়েছেন আইসিসির সকল পরিচালক, ব্যবস্থাপক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। স্বল্প মেয়াদে এই দায়িত্ব পালনের মধ্যেই তাৎপর্যপূর্ণ এক পরিবর্তন আসে তাঁর হাত ধরে। একজন ভারতীয় হয়েও আইসিসিতে ভারতের আধিপত্য কমাতে মনোহরের ভূমিকা ছিল বলার মতোই।

তিন মোড়লের একচ্ছত্র আধিপত্য ও লাভের ভাট-বাঁটোয়ারার সিংহ ভাগ ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের নিয়ে যাওয়ার বিরুদ্ধে প্রথম থেকে দৃঢ় অবস্থান নিয়েছিলেন। প্রথম দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে মনোহর বলেছিলেন, ক্রিকেটকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে সবাইকে নিয়েই বাঁচতে হবে।

আইসিসির আয় ভাগাভাগির প্রক্রিয়ায় পরিবর্তনের প্রস্তাব এনেছিলেন মনোহর, যাতে নীতিগতভাবে বোর্ড সম্মতি দেয়। এপ্রিলের সভায় অনুমোদনের জন্য প্রস্তাবটি ওঠার কথা। তবে সেখানে মনোহর আর থাকছেন না।

তিন মোড়ল নীতি বাতিল করে সংবিধানে সংশোধন আনলেও সব বিষয়ের মীমাংসা এখনো হয়নি। এর আগেই চলে গেলেন মনোহর। এখন নতুন চেয়ারম্যান কে হন, তা-ই দেখার।

মনোহর এর আগে বিসিসিআইয়ের মনোনীত ব্যক্তি হিসেবেও আইসিসির চেয়ারম্যান ছিলেন।