আলু দিয়ে মজাদার গরুর মাংস

এমএনএ ডেস্ক রিপোর্ট : নানী বা দাদীর কাছ থেকে রান্না শেখার সৌভাগ্য সবার হয় না। আগের দিনে নানী-দাদীরা খুব সহজে মজাদার সব রান্না করতেন। সেরকমই একটি রান্নার রেসিপি দিয়েছেন রন্ধন শিল্পি নুপুর জাভেদ। যা তার নানীর কাছ থেকে পাওয়া। প্রিয় পাঠক-পাঠিকা একবার রেঁধে দেখতে পারেন নানী-দাদীর আমলের রেসিপিটি কতটা মজাদার!

উপকরণ :

বড় টুকরা করা গরুর মাংস ১ কেজি। পেঁয়াজ মোটাকুচি ১ কাপ। টমেটো ২টি। তেজপাতা ১টি। দারুচিনি ২টি। এলাচ ৬/৭টি। কালোএলাচ ১টি। আদাবাটা ২ চা-চামচ। রসুনবাটা ৩ চা-চামচ।  ধনেগুঁড়া ২ চা-চামচ। জিরাগুঁড়া ২ চা-চামচ। গরমমসলার-গুঁড়া ৩ চা-চামচ। মরিচগুঁড়া ২ চা-চামচ। হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ। লবণ পরিমাণ মতো। বড় আলু দুই টুকরা করা ৫টি। আস্ত রসুন ১টি। গরম পানি ৪/৫ কাপ। জলপাইতেল আধা কাপ।

রন্ধন পদ্ধতি :

বড় পাতিলে তেল দিয়ে দারুচিনি, এলাচ, কালোএলাচ দিয়ে দুই মিনিট ভাজুন। পেঁয়াজকুচি দিন। আরও তিন থেকে চার মিনিট ভাজুন।

এবার মাংসের টুকরাগুলো দিয়ে ভালোভাবে নাড়তে থাকুন। একে একে সব মসলা আর টমেটো দিয়ে দিন। সবকিছু তিন থেকে চার মিনিটের মতো ভাজুন। এবার গরম পানি দিন যাতে মাংস ডুবে থাকে।

আস্ত রসুন দিয়ে অল্প আঁচে এক ঘণ্টা রান্না করুন।

তারপর আলু দিয়ে মাঝারি আঁচে আরও ১৫ মিনিট রান্না করুন। পুরোটা সময় ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখবেন। লবণ চেখে দেখুন। রান্না হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলুন।

  • খিচুরি বা গরম ভাতের সঙ্গে জমবে বেশ। তাছাড়া আস্ত রসুনটি ভাতের সঙ্গে মাখিয়ে খেতে দারুণ লাগে।

x

Check Also

ঢাকার ক্যাসিনোতে প্রতি রাতেই ১২০ কোটি টাকার জুয়া

এমএনএ রিপোর্ট : বিদেশে নয় এবার খোদ রাজধানী ঢাকায় ৬০টি অবৈধ ক্যাসিনো রমরমাভাবে চলছে। ক্যাসিনো ...

Scroll Up