ইউএস-বাংলার বহরে ব্র্যান্ড নিউ এয়ারক্রাফট

এমএনএ রিপোর্ট : বাংলাদেশের এভিয়েশনের ইতিহাসে বেসরকারি এয়ারলাইনসের মধ্যে ইউএস-বাংলাই প্রথম ব্র্যান্ড নিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

সম্প্রতি ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হয়েছে নেক্সট জেনারেশন এয়ারক্রাফট এটিআর-৭২-৬০০। এটিআর সিরিজের এই মডেলের এয়ারক্রাফটিই সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ। বর্তমানে এ মডেলের অত্যাধুনিক এয়ারক্রাফট এয়ার ইন্ডিয়া, ইন্ডিগো, মালয়েশিয়ান এয়ারলাইনস, মালিন্দো এয়ার, লায়ন এয়ার ব্যবহার করে থাকে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ব্র্যান্ড নিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, যশোর, কক্সবাজার, সৈয়দপুর, রাজশাহী ও বরিশাল রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। ইউএস-বাংলার বহরে থাকা বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফটের পাশাপাশি এটিআর ৭২-৬০০ ব্র্যান্ড নিউ মডেলের এয়ারক্রাফট যুক্ত হওয়ায় বর্তমানে ইউএস-বাংলাই দেশের বেসরকারি এয়ারলাইনসের মধ্যে সর্ববৃহৎ এয়ারলাইনস।

২০১৪ সালের ১৭ জুলাই দ্রুতগতিসম্পন্ন দুটি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ঢাকা থেকে যশোরে উদ্বোধনী ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা করে। ঢাকা থেকে দেশের সাতটি অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে ইউএস-বাংলাই সর্বপ্রথম অধিকসংখ্যক ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করেছে।

বর্তমানে ইউএস-বাংলার বিমানবহরে চারটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ ও দুটি এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের এয়ারক্রাফট চালু রয়েছে। আগামী জুনে বহরে আরো দুটি এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট যুক্ত হবে।

ইউএস-বাংলা বর্তমানে অভ্যন্তরীণ রুট ছাড়াও ঢাকা থেকে কলকাতা, চেন্নাই, সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়ানজু, মাস্কাট ও দোহায় নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করছে। সম্প্রতি এয়ারলাইনস সেফটি রেটিংস সাইটে স্থান করে নিয়েছে ইউএস-বাংলা। আন্তর্জাতিক এয়ারলাইনসগুলোর সেফটির বিষয় নিয়ে এই সাইট নিয়মিত তালিকা প্রকাশ করে থাকে।

x

Check Also

বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে ৯ চুক্তি স্বাক্ষর

এমএনএ রিপোর্ট : রোহিঙ্গাদের খাদ্য সহায়তার জন্য এলওসিসহ অর্থনৈতিক, কারিগরি, বিদ্যুৎ, সংস্কৃতি ও বিনিয়োগ সহযোগিতা ...

Scroll Up