ঋণ মওকুফের দাবিতে মুম্বাইয়ে ৩৫ হাজার কৃষক

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ঋণ মওকুফসহ বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনরত ভারতের মহারাষ্ট্রের ৩৫ হাজার কৃষক লংমার্চ করে পাঁচ দিন হেঁটে মুম্বাইয়ে পৌঁছেছে।
এনডিটিভি জানিয়েছে, ৩৫ হাজার কৃষক ১৮০ কিলোমিটার পথ হেঁটে মুম্বাইয়ে পৌঁছায় গতকাল রবিবার বিকালে।
আজ ১২ মার্চ মুম্বাইয়ে বিধানসভা ঘেরাও করে বিক্ষোভ করার কথা রয়েছে ওই কৃষকদের। আন্দোলনরত কৃষকরা জানিয়েছেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সেখানে অবস্থান ধরে রাখতে চায় তারা।
মহারাষ্ট্রের নাশিক জেলার এ কৃষকরা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যাত্রা শুরু করে। পাঁচ দিন হাঁটার পর মহারাষ্ট্রের রাজধানীতে পৌঁছে।
বামপন্থী অখিল ভারত কিষান সভার নেতৃত্বে উপজাতি চাষীসহ মুম্বাই আসা কৃষকরা রাজ্যসভা ঘেরাও করে যাবতীয় ঋণ থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পাশাপাশি আদিবাসী ভূমি কৃষকদের হাতে ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানাবে।
কিষান সভার প্রেসিডেন্ট অশোক ঢালি দাবি করেছেন, ২৫ হাজার কৃষক নিয়ে শুরু হওয়া লংমার্চ এখন ৫০ হাজার কৃষকের সমাবেশে রূপান্তরিত হয়েছে।
সমাবেশ শান্তিপূর্ণ হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। অনেক আদিবাসী কৃষক অংশ নিয়েছেন ওই লংমার্চে।
তারা বলছেন, বিষয়টি তাদের কাছে এখন জীবন-মরণ প্রশ্ন। ঋণ মওকুফের স্কিম চললেও মহারাষ্ট্রের কৃষকদের অনেকে তা পায়নি বলে অভিযোগ রয়েছে।
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায়, ঋণজর্জরিত কৃষকরা গত ৫ মার্চ নাসিক নামের এলাকা থেকে মুম্বাই অভিমুখে এই দীর্ঘ পদযাত্রা শুরু করেন।
এই পদযাত্রার আয়োজন করেছে সর্বভারতীয় কৃষকদের সংগঠন অখিল ভারত কিষাণ সভা (এআইকেএস)।
এআইকেএস দাবি করেছে, সব মিলিয়ে মোট এক লাখ কৃষক এই ঘেরাওয়ে অংশ নেবেন। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহারাষ্ট্র সরকারের একজন সরকারি কর্মকর্তার দাবি, শেষমেষ কৃষকদের এই ঘেরাও কর্মসূচিতে অংশ নেয়াদের সংখ্যা ৬০ হাজারের বেশি হবে না।
অখিল ভারত কিষান সভা দলের সেক্রেটারি অজিত নাওয়ালে জানান, রাজ্য সরকার কৃষকদের জন্য যে ঋণ সুবিধা দিয়েছে তা কোনো কাজে আসেনি। ফলে এক হাজার ৭৫৩ জন কৃষক ঋণ শোধ করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে।