একুশে বইমেলায় সবার নজর কেড়েছে ‘কিশোর বাংলা’

এমএনএ রিপোর্ট : একুশে বইমেলায় বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে রঙিন সাজে সেজেছে শিশু-কিশোরদের প্রিয় পত্রিকা ‘কিশোর বাংলা’-র স্টল। পত্রিকাটি সংগ্রহ করতে স্টলে প্রতিদিনই ভিড় করছে অগুনতি শিশু-কিশোর এবং তাদের অভিভাবকেরা।

পাঠকপ্রিয় ‘কিশোর বাংলা’ পত্রিকাটি প্রতি সংখ্যায় নতুনত্ব এবং নানা চমকপ্রদ আয়োজন নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে। মাসিক নিয়মিত সংখ্যার পাশাপাশি বিশেষ সংখ্যাও করে চলেছে ‘কিশোর বাংলা’, যার মধ্যে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন সংখ্যা, ভূত সংখ্যা, অ্যাডভেঞ্চার সংখ্যা, সায়েন্স ফিকশন সংখ্যা, সুপার হিরো সংখ্যা ইত্যাদি পেয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা।

বইমেলায় কিশোর বংলার স্টলে পত্রিকাটির চলতি সংখ্যাসহ পুরনো সংখ্যাগুলো বিক্রির জন্য প্রদর্শন করা হচ্ছে। প্রতিটি সংখ্যাই চমৎকার প্রচ্ছদ আর দারুণ অলঙ্করণ এবং সূচিসমৃদ্ধ। পত্রিকাটির সম্পাদনা সহকারী শিখা আক্তার জানালেন, ১২টি সংখ্যা এক সঙ্গে কিনলে রয়েছে বিশেষ অফার। এই অফারে ৬৫০ টাকার বই পাওয়া যাবে ৫০০ টাকায়। এছাড়াও দেয়া হবে একটি পরিবেশবান্ধব চমৎকার ব্যাগ।

এছাড়াও বইমেলায় বার্ষিক গ্রাহক হলে রয়েছে ১০০ টাকা ছাড়। গ্রাহক হতে মেলা উপলক্ষে ৬০০ টাকার পরিবর্তে দিতে হবে ৫০০ টাকা। তবে এই অফারগুলো শুধুমাত্র ‘কিশোর বাংলা’-র গ্রন্থমেলার স্টলেই পাওয়া যাবে।

তিন ছেলেমেয়েকে নিয়ে গ্রন্থমেলায় সুদূর খুলনা থেকে এসেছিলেন আ স ম আব্দুল হক। নিজের কৈশোরের প্রিয় ‘কিশোর বাংলা’-কে মেলায় পেয়ে আবেগাপ্লুত তিনি। কিনে নিলেন ‘কিশোর বাংলা’-র সবকটি সংখ্যা। জানালেন তার অনুভূতি, “আমাদের সময়ে পত্রিকাগুলো নানা রঙে রঙ্গিন ছিল না। এখন ‘কিশোর বাংলা’ আরও সমৃদ্ধ ও সাহিত্য-তথ্যবহুল। আমি ‘কিশোর বাংলা’ পরিবারকে সাধুবাদ জানাই বাংলাদেশের শিশু কিশোরদের জন্য একটি মননশীল ও সৃজনশীল প্রকাশনা নিয়ে আশার জন্য।

কলকাতা থেকে ঢাকায় ঘুরতে এসে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০২০’-এ স্বামী-সন্তানদের নিয়ে ঘুরতে এসেছেন মৌটুসি মিত্র। ‘কিশোর বাংলা’-র স্টলে থমকে গেছেন সপরিবারে। বললেন, “এই স্টলটি দেখলেই যেন শৈশবে ফিরে যেতে মন চাচ্ছে। বাংলাদেশে শিশুকিশোরদের নিয়ে কত কাজ হচ্ছে তাই যেন বুঝিয়ে দিচ্ছে ‘কিশোর বাংলা’। আমি এখনি এর সবগুলো সংখ্যা আমার সন্তানদের জন্য কিনবো। ইশ! ‘কিশোর বাংলা’ যদি কলকাতায়ও পাওয়া যেত।”

সরকারি কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহরিয়ার কিশোর বাংলা স্টলে এসেছেন ভাগ্নি লাবিবাকে নিয়ে। তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী লাবিবার পছন্দের ম্যাগাজিন এটি। কেন এই পত্রিকা পছন্দ জানতে চাইলে লাবিবা চার রঙা অলঙ্করণের প্রশংসা করে বলে, আমি বাসায় এই ছবিগুলো দেখি। খুব ভালো লাগে।

‘শিশু-কিশোরদের সুস্থ সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চার বিকাশে ভূমিকা রাখছে কিশোর বাংলা। ইতোমধ্যে সারাদেশের শিশু-কিশোর কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়ে পত্রিকাটির সার্কুলেশন পনের হাজার কপি ছাড়িয়েছে। ‘কিশোর বাংলা’ নামে একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে, আছে ফেসবুক পেজ, সেখানে শিশু-কিশোরদের নিয়ে দেশ-বিদেশের সংবাদ প্রকাশ করা হয় নিয়মিত।’

মেলায় ‘কিশোর বাংলা’ তাদের নিয়মিত প্রকাশনাগুলোর সাথে নিয়ে এসেছে ‘মুজিব শতবর্ষ’-এর প্রথম স্মারকগ্রন্থ ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান – শততম জন্ম স্মারকগ্রন্থ’। এই স্মারকগ্রন্থটি ও ‘কিশোর বাংলা’-র সম্পাদক মীর মোশাররেফ হোসেন বলেন, “এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলা জাতির পিতা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-কে উৎসর্গ করা হয়েছে। আর অল্প কিছুদিনের মধ্যেই জাতি তাদের সবচেয়ে প্রিয় নেতার জন্মশতবার্ষিকী পালন করবে। আমরা এই মহান নেতার স্মরণে শিশুকিশোর ও সকলের জন্যই উপযোগী ‘মুজিব বর্ষ’-এর প্রথম স্মারকগ্রন্থ নিয়ে এসেছি। এই বইটিতে একজন পাঠক বঙ্গবন্ধুর সবদিকেরই একটি ধারনা পাবে এবং আমাদের নতুন প্রজন্ম এই বইটি পড়ে বঙ্গবন্ধুর কালজয়ী চেতনায় ও দর্শনে জীবন গড়তে উৎসাহী হবে বলে আমার বিশ্বাস।

দীর্ঘদিন ধরে ‘বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা’-র প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা এই শিশু সংগঠক বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের প্রতি দায়বদ্ধতা এবং তাদের সুস্থ মানসিক বিকাশের একটি ভিত্তি দেবার নিমিত্তেই ‘কিশোর বাংলা’ নতুন আঙ্গিকে প্রকাশ করছেন বলে জানান।

শিশু-কিশোরদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে আছে দুটি ছেলেমেয়ের দুটি অসাধারণ সুন্দর কাটআউট প্ল্যাকার্ড, যার সাথে সারাদিনই দর্শনার্থী শিশুকিশোরেরা ছবি তুলছে। বাদ পরছেনা বড়রাও। আরও আছে স্টলের পেছন থেকে উঁকি দিয়ে থাকা একটি ভূতের কাটআউট প্ল্যাকার্ড এবং পেছন দিকেই একটি মনোরম জানালা-বাগান।

এছাড়াও ‘কিশোর বাংলা’ তাদের স্টলের বিপরীত দিকেই ‘মুজিব বর্ষ’-এর স্মরণে তাদের প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর জন্মস্মারকগ্রন্থ ও বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ‘কিশোর বাংলা’-র দুটি প্রচ্ছদ নিয়ে একটি বিশাল ব্যানার স্থাপন করেছে যা ইতোমধ্যেই এবারের গ্রন্থমেলার অন্যতম আকর্ষণে পরিণত হয়েছে। প্রতিদিনই হাজারও দর্শনার্থী এর সামনে ছবি তুলতে ভীড় করছেন।

মেলার শুরুর দিন থেকেই শুধু দর্শনার্থীরাই নয়, ‘কিশোর বাংলা’-র স্টল দেশসেরা কথাসাহিত্যিক, শিশুসাহিত্যিক, কবি, লেখক, শিশুসংগঠক, বিখ্যাত ব্যক্তিদের পদচারনায়ও মুখরিত হয়ে উঠেছে।

x

Check Also

মৃতের সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়াল, আক্রান্ত পৌঁনে ৫ লাখ 

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এই ...

Scroll Up