কোটা পদ্ধতি বাতিলের পরিপত্র জারি

এমএনএ রিপোর্ট : মন্ত্রিসভায় কোটা পদ্ধতি সংশোধনের সিদ্ধান্তের একদিন পর আজ বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় একটি পরিপত্র জারি করে। পরিপত্রে বেতন কাঠামোর নবম থেকে ১৩তম গ্রেড (আগের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরি) পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে সব ধরনের কোটা বাতিল করে করা হয়েছে।

জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদ স্বাক্ষরিত পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকারি দফতর, স্বায়ত্তশাসিত/আধা-স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন করপোরেশনের চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকার কোটা পদ্ধতি সংশোধন করেছে- ৯ম গ্রেড (আগের প্রথম শ্রেণি) এবং দশম থেকে ১৩তম গ্রেডের (আগের দ্বিতীয় শ্রেণি) পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রদান করা হবে। একই সঙ্গে এসব পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে ১৯৯৭ সালের ১৭ মার্চ জারি করা বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি বাতিল করা হলো।

সরকারি চাকরিতে কোটার পরিমাণ ১০ শতাংশে নামিয়ে এনে তা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের তীব্র আন্দোলনের মুখে গত ২ জুলাই কোটাপ্রথা বাতিল, সংরক্ষণ বা সংস্কারের জন্য ৭ সদস্যের সচিব কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি বেতন কাঠামোর নবম থেকে ১৩তম গ্রেড পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে সব ধরনের কোটা বাতিলের সুপারিশ করে, যে সুপারিশে বুধবার অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। এরপর আজ বৃহস্পতিবারই কোটা বাতিলের পরিপত্র জারি করলো জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

সরকারি চাকরিতে নিয়োগে এতদিন ৫৬ শতাংশ পদ বিভিন্ন কোটার জন্য সংরক্ষিত ছিল। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য ৩০ শতাংশ, নারী ১০ শতাংশ, জেলা ১০ শতাংশ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ৫ শতাংশ, প্রতিবন্ধী ১ শতাংশ।

এদিকে কোটা বাতিলের সচিব কমিটির সুপারিশ গতকাল বুধবার মন্ত্রিসভা অনুমোদন করার পর রাতেই মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে আন্দোলনে নামে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড। আজ বৃহস্পতিবারও তারা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে আগামী শনিবার মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ আতিকুর রহমান বলেন, আগামী শনিবার বিকেল তিনটায় শাহবাগে মহাসমাবেশ করবেন তারা। দাবি না মানা পর্যন্ত রাজপথ ছাড়বেন না তারা।

এ দিকে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে আজ বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড ও মুক্তিযোদ্ধার পরিবার সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শাহবাগের চার রাস্তার মোড়ে ব্যারিকেড দিয়ে আন্দোলনকারীরা বসে আছেন। শাহবাগ থেকে কাঁটাবন ও মৎস্য ভবনগামী রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। শাহবাগ দিয়ে কোনো গাড়ি যেতে পারছে না, গাড়িগুলো হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে দিয়ে যাচ্ছে।

গতকাল বুধবার রাত থেকে চলছে এই অবস্থান কর্মসূচি। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে মানুষ একটু কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

প্রসঙ্গত, বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে সব ধরনের কোটা বাতিলের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাতে রাস্তায় নামেন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা।

x

Check Also

সগিরা মোর্শেদ হত্যার ছক করেন ভাশুড় ডা. হাসান

এমএনএ রিপোর্ট : সিদ্ধেশ্বরীতে সগিরা মোর্শেদ হত্যার ছক হয়েছিল ডা. হাসান চৌধুরীর চেম্বারে। ৩০ বছর ...

Scroll Up