জাতিসংঘ দিবস আজ, নানা আয়োজনে পালন

এমএনএ রিপোর্ট : আজ ২৪ অক্টোবর, জাতিসংঘ দিবস। নানা আয়োজন ও আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে দিয়ে পালিত হচ্ছে দিবসটি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে ১৯৪৫ সালের এই দিনে জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠিত হয়। আর ১৯৪৭ সালে জাতিসংঘ সনদ অনুমোদনের পর থেকে ২৪ অক্টোবরকে সদস্য রাষ্ট্রগুলোতে জাতিসংঘ দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

১৯৭১ সালের জাতিসংঘ দিবসে সদস্য রাষ্ট্রগুলোতে ছুটির দিন ঘোষণায় সাধারণ পরিষদে প্রস্তাবটি অনুমোদিত হয়।

এই দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, ‘আজকের এই দিনটি ৭৪ বছর আগে কার্যকর হওয়া জাতিসংঘ সনদের স্থায়ী আদর্শ তুলে ধরে। ঝড়ো বৈশ্বিক সাগরের মাঝে সনদটি নৈতিক নোঙর হিসেবে রয়ে গেছে। দ্রুতগতির পরিবর্তনের এই যুগে জাতিসংঘ মানুষের প্রকৃত সমস্যাগুলোর ওপর দৃষ্টি নিবদ্ধ রেখেছে। সংস্থাটি সুষ্ঠু বিশ্বায়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করছে। মানবাধিকার ও লিঙ্গ সমতায় জোর দিচ্ছে এবং কোনো প্রকার ঘৃণাকে ‘না’ বলছে।’

বৈষম্য ও বাধা সত্ত্বেও জাতিসংঘ হাল ছাড়ে না, কারণ সংস্থাটি বৈষম্য হ্রাস করতে জানে। বিশ্বজুড়ে মানুষের সুযোগ এবং শান্তি বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

জাতিসংঘ মহাসচিব জলবায়ু কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য সংগঠনের দৃঢতা, মানবাধিকারের জন্য সংগ্রাম এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় পদক্ষেপের ক্ষেত্রে দৃঢ সংকল্পের কথা ব্যক্ত করেন তিনি। আন্তরাষ্ট্রীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভাঙা বিশ্বাস পুনর্নিমাণ করা এবং বিশ্বকে নিরাপদে রাখাই জাতিসংঘের অঙ্গীকার বলে জানান গুতেরেস।

দিবসটি উপলক্ষে নিউইয়র্কে সংস্থাটির সদর দপ্তরে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালিত হবে। সকালে জাতিসংঘ সংগীতের মধ্য দিয়ে নিজস্ব পতাকা উত্তোলন করা হবে। এ দিনে বিভিন্ন খাতে অবদানের জন্য মনোনীতদের জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। এ বছর উদ্ভাবন ও সৃষ্টিশীলতা, লিঙ্গ সমতা প্রতিষ্ঠা এবং জাতিসংঘের কর্মসূচি বাস্তবায়নে দক্ষতার জন্য অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে। এ ছাড়া ‘এসডিজি চ্যাম্পিয়ন’ বিশেষ পুরস্কার ঘোষণা করা হবে। জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত হবে জাতিসংঘ দিবসের ঐতিহ্যবাহী ‘ইউ এন ডে কনসার্ট।’

x

Check Also

গণতন্ত্র সূচকে ৮ ধাপ অগ্রগতি বাংলাদেশের

এমএনএ রিপোর্ট : যুক্তরাজ্যের লন্ডনভিত্তিক সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্টের ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) তৈরি বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে ...

Scroll Up