জাতীয় যুব দিবস আজ

এমএনএ রিপোর্ট : আজ ১ নভেম্বর জাতীয় যুব দিবস। এবছর জাতীয় যুব দিবসের প্রতিপাদ্য হলো ‘‘যুবদের জাগরণ, বাংলাদেশের উন্নয়ন।’’
জাতীয় যুব দিবস ২০১৭ উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার জাতীয় যুব দিবসের কর্মসূচি তুলে ধরেন।
আজ ১ নভেম্বর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় যুব দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। প্রশিক্ষিত সকল যুবক ও যুবমহিলাদের মধ্য হতে আত্মকর্মসংস্থান প্রকল্প স্থাপনে দৃষ্টান্তমূলক অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে ২২ জন সফল আত্মকর্মী যুব ও ৫ জন সফল যুব সংগঠক মোট ২৭ জনকে এ বছর জাতীয় যুব পুরস্কার প্রদান করা হবে।
রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।
সংবাদ সম্মেলনে বীরেন শিকদার বলেন, বর্তমান সরকারের সময়ে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে ২১ লক্ষ ০৮ হাজার ৩ শত ৯৪ জনকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে এবং তার মধ্য থেকে ৫ লক্ষ ৫৮ হাজার ৩ শত ৫৬ জন আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যেমে স্বাবলম্বী হয়েছে।
তিনি বলেন, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি সরকারের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এ কর্মসূচির আওতায় এ পর্যন্ত ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৩৪ জনকে প্রশিক্ষণ এবং ১ লাখ ১১ হাজার ৬৯৯ জনের অস্থায়ী কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য একটি যুগোপযোগী জাতীয় যুবনীতি প্রণয়নের লক্ষ্যে ২০০৩ সালের যুবনীতি পরিবর্তন করে বর্তমান সময়ের চাহিদার সাথে সামঞ্জস্য রেখে সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে একটি জাতীয় যুবনীতি, ২০১৭ সালে গ্রহণ করা হয়েছে। বর্তমানে এর কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়নের কাজ চলছে।
এছাড়া ঢাকা হোটেল ওয়েস্টিনে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, কমনওয়েলথ ও সেন্টার ফর রিচার্স এন্ড ইনফরমেশন এর সমন্বিত উদ্যোগে দেশী ও বিদেশী যুব প্রতিনিধি, যুববিষয়ক বিশেষজ্ঞ, শিক্ষাবিদ, নীতিনির্ধারক এবং স্টেক হোল্ডারদের অংশগ্রহণে যুব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়, যুব ও ক্রীড়া সচিব মো. আসাদুল ইসলাম ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আনোয়ারুল করিম উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে জাতীয় যুব দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে যুবদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আজ ঢাকায় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এক যুব র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।
এতে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার প্রধান অতিথি হিসেবে র‌্যালীতে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও আত্মকর্মী যুব ও সংগঠকসহ বিভিন্ন ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়াসংগঠক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠক এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী এতে অংশগ্রহণ করেন। বিভিন্ন শ্লোগান, ব্যানার ও ফেষ্টুন সহকারে র‌্যালীটি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে শুরু হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে শেষ হয়।
x

Check Also

রক্তাক্ত ভয়াল-বিভীষিকাময় ২১শে আগস্ট আজ

এমএনএ রিপোর্ট : রক্তাক্ত ভয়াল-বিভীষিকাময় ২১শে আগস্ট আজ। রাজনৈতিক ইতিহাসে ২১ আগস্ট একটি কলঙ্কময় দিন। মৃত্যু-ধ্বংস-রক্তস্রোতের ...

Scroll Up