জাফর ইকবালকে ঢাকা সিএমএইচে ভর্তি, এখন তিনি শঙ্কামুক্ত

এমএনএ রিপোর্ট :  ছুরিকাঘাতে আহত বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা সিএমএইচে ভর্তি করা হয়েছে। এখন তিনি শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসকেরা।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে, তিনি আশঙ্কামুক্ত। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকা এনে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে।
এখানে তার চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। হাসপাতালে তাকে দেখতে আসেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।
ঢাকায় সিএমএইচে ভর্তির আগে অতর্কিত হামলায় আহত লেখক-শিক্ষাবিদ এবং অধ্যাপক জাফর ইকবালের মাথা ও হাতে চারটি আঘাত করা হয়েছে এবং তার শরীরে ২৬টি সেলাই পড়েছে বলে জানান সিলেট ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মোরশেদ আহমেদ।
গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা. মোরশেদ আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘জাফর ইকবাল এখন শঙ্কামুক্ত। ওনার জ্ঞান রয়েছে। শুধু রিপিয়ারের জন্য ওনাকে অ্যানেসথেসিয়া দেওয়া হয়েছে।’
এরআগে গতকাল শনিবার বিকেলে শাবি ক্যাম্পাসে হামলার শিকার হন অধ্যপক জাফর ইকবাল। আহতাবস্থায় জাফর ইকবালকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসকরা তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যান। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাহবুবুল হক বলেন, ‘তার মাথার পেছনে ধারাল কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। আঘাত কতটা গুরুতর তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বলা যাবে। তবে তার জ্ঞান রয়েছে।’
অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন-২ এ আটকে রাখা হয়েছে। এখনও তার পরিচয় পাওয়া যায়নি।
জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম জানান, গতকাল শনিবার বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) ফেস্টিভ্যালের সমাপনী অনুষ্ঠান চলাকালে এ হামলা চালানো হয়। অনুষ্ঠানে জাফর ইকবাল বক্তব্য দিচ্ছেলেন। এ সময় পেছন থেকে তার মাথায় ছুরিকাঘাত করা হয়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত একজনকে আটকে পিটুনি দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি কক্ষে আটক করে রেখেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তবে তিনি পড়ে আছেন। কোনো কথারই জবাব দিচ্ছেন না।
অধ্যাপক জাফর ইকবালের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিন বলেন, মঞ্চের পেছন থেকে এসে এক ছেলে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশসহ অন্যরা তাকে আটক করে। হামলাকারীর বয়স ২৪ থেকে ২৭ বছর হবে।
কী কারণে জাফর ইকবালের উপর এই হামলা হয়েছে, সে বিষয়ে কিছু তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।
এদিকে শিক্ষকের ওপর হামলার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা।
x

Check Also

যবিপ্রবির ৬টি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

এমএনএ রিপোর্ট : যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি ...

Scroll Up