জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী আজ

এমএনএ রিপোর্ট : আজ ১৯ জানুয়ারি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী। বহুদলীয় গণতন্ত্র, বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের উদ্যোক্তা জিয়াউর রহমান

১৯৩৬ সালে বগুড়ার গাবতলীর বাগবাড়ীর এক বনেদি মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৩ সালে তিনি যোগ দেন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে। ১৯৭১ সালের ২৭ মার্চ বাঙালি জাতির সংকট মুহূর্তে চট্টগ্রাম কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে তার কণ্ঠে ভেসে আসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার হিসেবে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন জিয়াউর রহমান। তার নামে গড়ে ওঠা জেড ফোর্স রণাঙ্গনে যুদ্ধ করে দুঃসাহসিকতায়। ১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর ‘সিপাহী জনতার বিপ্লবের’ মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে অধিষ্ঠিত হন জিয়াউর রহমান। তিনি ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) প্রতিষ্ঠা করেন। বিএনপি তিনবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সেনাবাহিনীর একটি অংশের অভ্যুত্থানে নিহত হন তিনি।

জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুদিনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। আজ সকালে শেরেবাংলা নগরস্থ জিয়ার মাজারে দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও নেতা-কর্মীরা ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবেন। সকালে দলের ঢাকাসহ দেশের প্রতিটি বিএনপি কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন। দিবসটি উপলক্ষে ইতোমধ্যেই পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হবে, সারা দেশে জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা, পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিটে যথাযোগ্য মর্যাদায় তার জন্মবার্ষিকী পালন করা হবে। গতকাল সুপ্রিম কোর্ট বার অডিটরিয়ামে বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল এক বাণীতে বলেন, জিয়া ছিলেন আধিপত্যবাদ ও সম্প্রসারণবাদের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে এক আপসহীন দেশপ্রেমিক যোদ্ধা। তার প্রদর্শিত পথেই আমরা আধিপত্যবাদের থাবা থেকে মুক্ত হবো ও গণতন্ত্র ফিরে পাবো। আর এর জন্য সর্বশক্তি দিয়ে ‘গণতন্ত্রের মা’ বেগম খালেদা জিয়াকে স্বৈরাচারের কারাগার থেকে মুক্ত করতে হবে।

x

Check Also

প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার ৭ বছরের জেল-জরিমানা

এমএনএ বিনোদন ডেস্ক : “ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৯৩ ধারা অনুযায়ী সাত বছরের জেল ও জরিমানা হতে ...

Scroll Up