টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

16
এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের প্রতিই আস্থা রাখলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজের পর দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজেও মাহমুদউল্লাহই অধিনায়ক থাকছেন।
সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের নিয়মিত টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। আঙুলের চোট থেকে সেরে না ওঠায় টি-টোয়েন্টি সিরিজে সাকিব আল হাসান যে থাকছেন না, সেটি অনেকটাই নিশ্চিত। সাকিবের জায়গায় কে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন, সেটি নিয়ে ছিল ধোঁয়াশা।
আজ বিকেলে বাংলাদেশ দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন তামিম ইকবাল। অধিনায়ক সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন সাধারণত ম্যাচের আগের দিন। আজ তামিম চলে আসায় অনেকে দুই-দুইয়ে চার মিলিয়েছেন, বাঁহাতি ওপেনারের অন্তত অধিনায়কত্ব করা হচ্ছে না। সেটিই হলো। সন্ধ্যায় বিসিবি জানিয়েছে, সাকিবের অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন মাহমুদউল্লাহ।
এর আগে গতকাল টিম ম্যানেজমেন্ট ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি বসে সম্ভাব্য অধিনায়ক কাকে করা যায়, তা নিয়ে আলোচনা করে বোর্ড সভাপতির কাছে একটি সুপারিশ প্রেরণ করেন। দুবাইতে আইসিসির নির্বাহী সভায় যোগদান শেষে গতকাল পড়ন্ত বিকেলে রাজধানীতে ফেরার পর আজ সন্ধ্যায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন টি-টোয়েন্টি সিরিজের অধিনায়ক মনোনীত করেন।  তাঁর অনুমোদনের পরই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে মাহমুদউল্লাহর নাম।
এদিকে দুই ম্যাচের জন্য অধিনায়ক মনোনয়নের পাশাপাশি দলে শেষ মুহূর্তে একটি পরিবর্তনও এসেছে। সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে বাঁ-হাতি স্পিনারশূন্য হয়ে পড়া স্কোয়াডে বাঁ-হাতি স্পিনার হিসেবে শেষ মুহূর্তে দলে নেয়া হয়েছে নাজমুল ইসলাম অপুকে। ২৬ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনার আজ দুপুর পর্যন্তও তিনি শেখ জামালের হয়ে অনুশীলন করেছেন, জানতেন না জাতীয় দলে ডাক পাচ্ছেন।
বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল : মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাইফউদ্দিন, আবু হায়দার, আবু জায়েদ, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান, জাকির হাসান, আফিফ হোসেন ও নাজমুল হোসেন।