ঢাকার গণপরিবহনে নিয়ম-শৃঙ্খলা নেই : মেয়র আতিক

এমএনএ রিপোর্ট : মেয়র আতিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঢাকার গণপরিবহনে নিয়ম-শৃঙ্খলা নেই। নিয়ম-শৃঙ্খলা বলতে ব্যবসায়িক নিয়ম থাকতে হবে, আর্থিক নিয়ম থাকতে হবে। এমনকি প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো থাকতে হবে। সবাই যে যার মতো ব্যবসা করছে। সেখান থেকে সবাইকে এই মডিউলের বেতন নিয়ে আসতে হবে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে সুশৃঙ্খল গণপরিবহন ব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে আয়োজিত এক আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা বিনিময় বিষয়ক কর্মশালার সমাপনী পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এসময় কুড়িল-বিশ্বরোডে রিকশা চলাচল বন্ধের প্রসঙ্গ টেনে মেয়র বলেন, ঢাকা শহরে যত সড়ক আছে সেগুলো একত্রিত করলে ২০ হাজার কিলোমিটার হয়। কিন্তু আমরা রিকশা বন্ধ করতে পেরেছি মাত্র ১০ কিলোমিটার সড়কে। আমাদের পরিকল্পনা আছে দুই বছরের মধ্যে ঢাকাকে রিকশাশূন্য করার।

এ ধরনের আন্তর্জাতিক কর্মশালার মাধ্যমে বাংলাদেশ উপকৃত হবে আশা প্রকাশ করে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, নব্বইয়ের দশকে কোরিয়ার সিউল শহরের ট্রাফিকের কী অবস্থা ছিল আর সেখান থেকে কী উন্নতি হয়েছে শহরটিতে আজ আমরা সেটি দেখতে পারি। আমাদের দেশের বাস খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। আমরা এখন আমাদের এই অবস্থা দেখছি। কিন্তু ‘নলেজ শেয়ারিং’ এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে আমরা তাদের অভিজ্ঞতার বিষয়ে জানতে পারছি। আমরা বিআরটি, মেট্রোরেলের মতো প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি।

ঢাকার গণপরিবহনে নিয়ম-শৃঙ্খলা নেই উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, আমাদের গণপরিবহন ব্যবস্থায় নিয়ম-শৃঙ্খলা নেই। নিয়ম-শৃঙ্খলা বলতে ব্যবসায়িক নিয়ম থাকতে হবে, আর্থিক নিয়ম থাকতে হবে। এমনকি প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো থাকতে হবে। আমাদের এখানে সেটা নেই। পরিবহন ব্যবস্থাকে একটি বিজনেস মডিউল দিতে হবে। সবাই যে যার মতো ব্যবসা করছে। সেখান থেকে সবাইকে এই মডিউলের বেতন নিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠান শেষে রিকশা মালিক ও চালকদের আন্দোলন সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা আগামীকাল (১০ জুলাই) দুপুর ১২টায় রিকশাচালক ও মালিকদের নগর ভবনে ডেকেছি। আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলতে চাই, তাদের সমস্যার কথা শুনতে চাই। আমরা তাদের বোঝাতে চাই যে নগরীর বৃহত্তর স্বার্থে এ ধরনের পদক্ষেপ নিতে হবে। ইতোমধ্যে রিকশা বন্ধের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নাগরিক সমাজ। ঢাকাকে রিকশামুক্ত করার প্রক্রিয়া আজ বা কাল তো শুরু করতেই হবে। তাই আমরা তাদের বোঝাবো। রিকশারর পরিবর্তে কুড়িল-বিশ্বরোডে বিআরটিসির চক্রাকার গাড়ি নামানোর চিন্তা করছি আমরা।

কর্মশালার সমাপনী পর্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব ব্যাংকের অপারেশন্স ম্যানেজার ডান ডান চেন। সূচনা বক্তব্য রাখেন বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট নুপুর গুপ্তা। সবশেষে ভোট অব থ্যাংকস উপস্থাপন করেন ঢাকা ট্রান্সপোর্ট কো-অর্ডিনেসন অথরিটি (ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ) ডিটিসিএ এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান।

x

Check Also

বদলে যাচ্ছে ঢাকা সার্কুলার রুটের গতিপথ

এমএনএ রিপোর্ট : ঢাকা সার্কুলার রুটের একাংশের নকশায় কিছুটা পরিবর্তন আনায় বদলে যাচ্ছে এর গতিপথ। ...

Scroll Up