ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত

এমএনএ ক্যাম্পাস রিপোর্ট : করোনা ভাইরাস আতঙ্কে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পর প্রশাসন আগামী ১১ দিনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত করেছে।

আজ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এক জরুরি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। যদিও ১৮ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের প্রশাসনিক কার্যক্রম চালু থাকবে একই সঙ্গে আবাসিক হলগুলোও খোলা থাকবে। এ দিকে ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে হল ছাড়তে শুরু করেছে শিক্ষার্থীরা।

গতকাল রবিবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করা শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ বিভাগের শিক্ষার্থীরা ফলে শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য আজ সোমবার সকাল ১০টায় উপাচার্য কার্যালয় সংলগ্ন আবদুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে এক জরুরি সভার আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

উপাচার্য আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ইন্সটিটিউটের পরিচালক, বিভাগের চেয়ারপার্সন, হল প্রাধ্যক্ষ, প্রক্টর, প্রধান মেডিকেল অফিসারসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয় সংলগ্ন ভিসি লাউঞ্জে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ১৮ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত থাকবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

ব্রিফিংয়ে উপাচার্য বলেন, সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৮ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ- ক্লাস ও পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত থাকবে। তবে পরবর্তীকালে এই সময় আরও বাড়ানোর দরকার হলে এ বিষয়ে বিবেচনা করা হবে।

তিনি বলেন, এই সময়টাতে যে সব পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল, এই তারিখগুলো পুনর্বিন্যাসের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে অনুরোধ জানাব। একই সঙ্গে পরীক্ষার নতুন তারিখ যেন শিক্ষার্থীরা দ্রুত জানতে পারে সেই আহ্বানও জানাব।

তিনি বলেন, যে সময়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে, সেটি সামনের গ্রীষ্মকালীন ছুটির সঙ্গে সমন্বয় করে পুষিয়ে নেয়া হবে। যাতে সামগ্রিকভাবে শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম হুমকির মধ্যে না পড়ে। এই সুরক্ষা দেয়াটাও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দায়িত্ব। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যালেন্ডার পুনর্বিন্যাস করা হবে।

দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হলেও ঢাবি কেন ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অন্যদের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে আমরা জানি না। এটা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত।

ব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূঁইয়া প্রমুখ।

এ দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষ সাময়িক স্থগিত ঘোষণা করার পর করোনাভাইরাস আতংকে আবাসিক হল ছাড়তে শুরু করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আবাসিক হল বন্ধ করা হবে কিনা- জানতে চাইলে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো মন্তব্যও করেননি উপাচার্য আখতারুজ্জামান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্য বলেন, যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ দুটি কার্যক্রম ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত থাকবে, সেহেতু হলের ওপর একটা প্রভাব পড়বে। তবে আবাসিক হলগুলো বন্ধ থাকবে কি না- এই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত করা হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের সব প্রশাসনিক কার্যক্রম চালু থাকবে।

এর আগে গতকাল রবিবার করোনা ভাইরাস আতঙ্কে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষ বর্জনের ঘোষণা দেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আর এতে সাড়া দিয়ে ঢাবির ৮৪টি বিভাগের প্রায় ৭০টি বিভাগের শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে। এ ছাড়াও ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ করার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ও ডাকসুর পক্ষ থেকে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে।

x

Check Also

মৃতের সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়াল, আক্রান্ত পৌঁনে ৫ লাখ 

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এই ...

Scroll Up