দিনাজপুরের ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস আজ

Fulbari-26-August 2

এমএনএ রিপোর্ট : জাতীয় সম্পদ রক্ষা আর নিজের অধিকার বুঝে নেওয়ার লড়াইয়ে অবিস্মরণীয় দিন  আজ ২৬ আগস্ট। এ দিনটিতে ঘটেছিল ফুলবাড়ী ট্রাজেডি ঘটনা। ২০০৬ সালের এ দিনটিতে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীর প্রতিবাদী মানুষ বুকের রক্ত দিয়ে প্রতিহত করেছিল উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি স্থাপনের ষড়যন্ত্র।

তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ বিদ্যুৎ-বন্দর জাতীয় রক্ষা কমিটির ডাকে সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়ার পথে সেদিন পুলিশ ও Fulbari-26-August 1তৎকালীন বিডিআর (বর্তমানে বিজিবি) বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারান তিনজন। আর আহত হয় আড়াই শতাধিক মানুষ।
প্রতি বছর দিবসটি উপলক্ষ্যে ফুলবাড়ীবাসী এবং তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ বিদ্যুৎ-বন্দর জাতীয় রক্ষা কমিটি কর্মসূচি পালন করছে। উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের প্রতিবাদে গণবিদ্রোহে ফুলবাড়ীতে বিপ্লব সাধিত হলেও আজও রয়েছে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা আর স্বজন হারানোর কান্না। এখনও বইছে শোকের মাতম।

এশিয়া এনার্জির পরিকল্পনা ছিল ফুলবাড়ী কয়লা খনি প্রকল্প থেকে ৩০ বছরে ৫শ’ ৭২ মিলিয়ন টন কয়লা উত্তোলনের। কিন্তু উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের বিষয়টি ছিল বিপত্তির। পরিবেশ বিপর্যয় ও ভিটে মাটি রক্ষায় ক্রমান্বয়ে ফুঁসে ওঠে ফুলবাড়ী ও এর আশপাশের এলাকার মানুষ। জাতীয় সম্পদ রক্ষা ও এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহার এবং কয়লা উত্তোলনের প্রতিবাদে টানা মিটিং-মিছিল-সমাবেশ চলতে থাকে। এমনই একটি দিন ছিল ২০০৬ সালের ২৬ আগস্ট।

উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি প্রকল্প বাতিল, জাতীয় সম্পদ রক্ষা এবং বিদেশি কোম্পানি এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহারের দাবিতে এ দিন সকাল থেকেই ফুলবাড়ীর ঢাকা মোড়ে ফুলবাড়ী, বিরামপুর, নবাবগঞ্জ ও পার্বতীপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হতে থাকে। দুপুর দুইটার দিকে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ও ফুলবাড়ী রক্ষা কমিটির নেতৃত্বে বিশাল প্রতিবাদ মিছিল নিমতলা মোড়ের দিকে এগুতে থাকলে প্রথমে পুলিশ বাধা প্রদান করে। বাধা পেয়ে বিশাল মিছিলটি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেরিকেড ভেঙে মিছিলটি এগুতে থাকলে আন্দোলনকারীদের ওপর Fulbari-26-Augustটিয়ার শেল, রাবার বুলেট ও নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করা হয়।

গুলিতে নিহত হয় আল আমিন, সালেকীন ও তরিকুল। আহত হয় দুই শতাধিক আন্দোলনকারী জনতা। আহতদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ বাবুল রায়ের শরীরের অধিকাংশই অবশ হয়ে বর্তমানে পঙ্গুত্ব বরণ করে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। দেশের সম্পদ রক্ষার আন্দোলন করতে গিয়ে ঘরের বাইরে বের হতে পারছেন না। তারপরও দেশের সম্পদ রক্ষায় পঙ্গুত্ব বরণ করে তার দুঃখ নেই। কিন্তু তার দুঃখ ফুলবাড়ীবাসীর সাথে তৎকালীন সরকারের সেই চুক্তি আজও বাস্তবায়ন হয়নি।

পরিবেশের ক্ষতি করে এবং জমি নষ্ট করে কয়লা খনি চান না ফুলবাড়ীবাসী। তারা থাকতে চান বর্তমানে যে অবস্থায় আছে, সেই অবস্থায়।

আজকের দিনটিকে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ‘জাতীয় সম্পদ রক্ষা দিবস’ এবং ফুলবাড়ীবাসী ‘ফুলবাড়ী শোক দিবস’ হিসেবে পালন করছে। এ উপলক্ষ্যে গ্রহণ করেছে পৃথক পৃথক কর্মসূচি। কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাচ ধারণ, শোক র‌্যালি, ৩ শহীদের স্মৃতিস্তম্ভে পুস্প অর্পণ, শপথ গ্রহণ ও আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি এবং ফুলবাড়ীবাসী।

Fulbari-26-August 3

ট্যাগসমূহ : এশিয়া এনার্জি, ফুলবাড়ী ট্রাজেডি, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ, জাতীয় রক্ষা কমিটি, উন্মুক্ত পদ্ধতি, কয়লা খনি
x

Check Also

আজ রবিবারের দিনটি আপনার কেমন যাবে?

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আজ ২৯ মার্চ ২০২০, রবিবার। নতুন সূর্যালোকে আজ রবিবারের দিনটি আপনার ...

Scroll Up