দেশের ৬৪ জেলায় রবির ফোরজি সেবা চালু

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : দেশের ৬৪ জেলা সদরে একযোগে ফোরজিসেবা চালু করেছে মোবাইল অপারেটর রবি। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এ সেবার উদ্বোধন করা হয়।
মোবাইল ইন্টারনেট যোগাযোগের চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) লাইসেন্স পাওয়ার পরই এ সেবা চালু করল রবি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদসহ আরও অনেকে।
মোস্তফা জব্বার বলেন, কোনও কোনও মোবাইল অপারেটর সিম রিপ্লেসমেন্টের জন্য টাকা নিচ্ছে যা অযৌক্তিক। এটা হতে পারে না।
আমি অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে একটি সুন্দর সমাধানে পৌঁছতে পারবো। তিনি বলেন, দেশেই মোবাইল ফোন তৈরি হচ্ছে। ২০১৮ সালের মধ্যে দেশে ফোরজি ডিভাইসের কোনও সংকট থাকবে না।
মন্ত্রী বলেন, ফোরজি সেবা দিলেই হবে না, সেবার মান ভালো হতে হবে। কল যেন কেটে না যায়, নেটওয়ার্ক যেন থাকে, ইন্টারনেট ব্যবহার করতে গিয়ে যেন গতি পাই তাহলেই না ফোরজির চালুর সার্থকতা পাওয়া যাবে।
আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ফোরজির মাধ্যমে আমরা নতুন যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছি। ফোরজি ব্যবহার করে এ দেশের ১৬ কোটি মানুষ আপন শক্তিতে জ্বলে উঠবে।
রবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ জানান, লাইসেন্স পাওয়ার পর পরই তারা ১৭৯টি বিটিএস দিয়ে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বড় শহরগুলোতে ফোরজিসেবা দেয়া শুরু করেছেন। সার্বিক প্রস্তুতি বাকি থাকলেও তার আশা দ্রুততম সময়ের মধ্যে সবার কাছে পৌঁছে যাবে ফোরজি নেটওয়ার্ক। আজকের মধ্যেই দেশের বেশিরভাগ জেলা শহরে রবির গ্রাহকরা ফোরজি ব্যবহার করতে পারবেন বলে জানান তিনি।
রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে ফোরজিসেবা চালু করেছে গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক। তবে সরকারি মোবাইল অপারেটর টেলিটক কিছু দিন বাদে তাদের গ্রাহকদের জন্য ফোরজিসেবা চালু করবে।
টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবে মোবাইল অপারেটরদের আনুষ্ঠানিকভাবে ফোরজি লাইসেন্স তুলে দেন। এর পর পরই বড় তিনটি অপারেটরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা দেশের বড় শহরগুলোতে প্রায় চারশ বেস ট্রান্সসিভার স্টেশন (বিটিএস) থেকে ফোরজিসেবা শুরু করেছে।