নতুন ওষুধে ভালো কাজ হচ্ছে : সাঈদ খোকন

এমএনএ রিপোর্ট : ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, নতুন ওষুধে মশক নিধনে ভালো ফল পাওয়া যাচ্ছে। ফলে এডিস মশার প্রাদুর্ভাব ও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে।

আজ মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল প্রাঙ্গণ পরিচ্ছন্ন এবং ডেঙ্গুর লার্ভা ধ্বংসের লক্ষ্যে আয়োজিত অভিযানের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মেয়র এ দাবি করেন।

নগর উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরাম বাংলাদেশ ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন যৌথভাবে এই পরিছন্নতা কর্মসূচির আয়োজন করে।

সাঈদ খোকন বলেন, ‘মশার উৎস স্থল ধ্বংসে বিশেষ গুরুত্ব দেয়ায় এডিস মশার প্রাদুর্ভাব ও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। আমরা আশা করছি সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই ডেঙ্গু পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারব।’

তিনি বলেন, ‘নগরবাসীকে নিরাপদ ও বাসযোগ্য পরিবেশ উপহার দিতে সিটি কর্পোরেশন সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। সিটি কর্পোরেশনের এ উদ্যোগের সাথে নগরবাসী সম্পৃক্ত হয়েছে। সে কারণেই খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই ব্যবহারযোগ্য নগর নিশ্চিত করা সম্ভব হবে বলে মনে করছি।’

মেয়র বলেন, ইতোমধ্যে ডিএসসিসির পক্ষ থেকে ৫৮ হাজার ৭৪৮ বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা নিধনে অভিযান চালানো হয়েছে। এগুলোর মধ্যে সহস্রাধিক বাড়িতে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় তা ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি বাড়ির মালিকদের এ বিষয়ে সচেতন করা হয়েছে। এ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ স্কাউটস সদস্যরা ১ লাখ ১১ হাজার বাসাবাড়িতে জরিপ চালিয়ে যেসব বাড়িতে লার্ভা পাওয়া গেছে তা ধ্বংস করাসহ সচেতনমূলক লিফলেট বিতরণ করেছে।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় সাংবাদিক ও কলামিস্ট লেখক আবুল মকসুদ বলেন, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের আজকের এই পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি একটি প্রতীকী কর্মসূচি। আমি মনে করি এই প্রতীকী কর্মসূচির মাধ্যমে নগরবাসী পরিচ্ছন্নতা কাজে সম্পৃক্ত হবেন।

সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ঢাকা মেডিক্যালের নার্সিং ইনস্টিটিউট, ফজলে রাব্বী হল এলাকাতেও পরিচ্ছন্নতা এবং এডিস মশার লার্ভা নিধনে লার্ভিসাইডিং কার্যক্রম চালানো হয়।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় সাংবাদিক ও কলাম লেখক আবুল মকসুদ বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেল কলেজের আজকের এই পরিছন্নতা কর্মসূচি একটি প্রতীকী কর্মসূচি। আমি মনে করি এই প্রতীকী কর্মসূচির মাধ্যমে সকল নগরবাসী পরিছন্নতা কাজে সম্পৃক্ত হবেন।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেল কলেজে প্রতিদিন সাড়ে ৪ হাজার রোগী ভর্তি থাকে। এ অবস্থায় এখানে নানান ধরনের আবর্জনার সৃষ্টি হয়। আমরা সকলে মিলে কাজ করলে মেডিকেল কলেজ প্রাঙ্গন পরিচ্ছন্ন রাখা সম্ভব হবে।’

পরিছন্নতা কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে লেখক কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, স্কাউটস ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্যগণ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মোঃ শরীফ আহমেদ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার এয়ার কমডোর জাহিদ হোসেন, নগর উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি অমিতোষ পাল, সাধারণ সম্পাদক মতিন আব্দুল্লাহ প্রমুখ।

পরিছন্নতা কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মো. শরীফ আহমেদ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর জাহিদ হোসেন, নগর উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি অমিতোষ পাল, সাধারণ সম্পাদক মতিন আবদুল্লাহ প্রমুখ।

x

Check Also

ক্যাসিনো খালেদের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

এমএনএ রিপোর্ট : রাজধানীর ফকিরাপুলের ইয়ংমেন্স ক্লাব ক্যাসিনোর মালিক ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ...

Scroll Up