নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন আনছে হুয়াওয়ে

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন উন্মোচনের তারিখ ঘোষণা করেছে হুয়াওয়ে। ১৯ সেপ্টেম্বর জার্মানির মিউনিখে মেইট ৩০ সিরিজ উন্মোচন করবে প্রযুক্তি জায়ান্ট চীনা প্রতিষ্ঠানটি।

ছোট টিজার ভিডিওতে ডিভাইসটি উন্মোচনের তারিখ জানিয়েছে হুয়াওয়ে। এই অনুষ্ঠানের ট্যাগলাইন দেওয়া হয়েছে “রিথিংক পসিবিলিটিস”– খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।

মোবাইলের পেছনে এক ক্যামেরার দিন শেষ। পাঁচটি ক্যামেরা লেন্সের ‘মেইট ৩০ প্রো’ স্মার্টফোন বাজারে আনতে পারে হুয়াওয়ে। আগের বছর তিন ক্যামেরার স্মার্টফোন পি-২০ বাজারে এনে কার্যত মোবাইলপ্রেমীদের চমকে দিয়েছিল চিনের এই সংস্থা। পি-২০ ছিল বিশ্বের প্রথম স্মার্টফোন যাতে তিনটি ক্যামেরা ছিল। তিন ক্যামেরার সেই স্মার্টফোন মোবাইলপ্রেমীদের কাছে বেশ জনপ্রিয়ও হয়ে উঠেছিল। তাই এবার আরো এক ধাপ এগিয়ে পাঁচ ক্যামেরার অসাধারণ একটি স্মার্টফোন আনতে চলেছে হুয়াওয়ে।

পেছনে পাঁচ ক্যামেরা লেন্স ব্যবস্থার জন্য সিআইএনপিএ (চায়না ন্যাশনাল ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন)-এর কাছে ইতিমধ্যে পেটেন্ট অনুমোদন নিয়েছে এই সংস্থা। এর আগে এলজি তাদের ভি৪০ থিনকিউ ফোনে মোট ৫টি ক্যামেরা আনে যেটির পেছনে তিনটি ও সামনে দুই ক্যামেরা ছিল। তবে সংস্থার এই ফোনের ক্ষেত্রে কেবল পেছনেই পাঁচ ক্যামেরার পেটেন্ট অনুমোদন করে নিয়েছে।

মেইট ৩০ স্মার্টফোনটির সম্ভাবনা নিয়ে আসলেই নতুন করে চিন্তা করতে হবে হুয়াওয়েকে। গুগলের পক্ষ থেকে ভার্জকে বলা হয়, হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করতে মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর এখনও নিষেধাজ্ঞা থাকায় আগে থেকেই ডিভাইসটিতে ইনস্টল করা থাকবে না গুগলের অ্যাপগুলো।

ইতোমধ্যেই প্লে স্টোরের বিকল্প এবং ম্যাপিং সেবার এপিআই নিয়ে কাজ করছে হুয়াওয়ে। সম্প্রতি নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম হারমনিওএস উন্মোচন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। স্মার্টফোনে অ্যান্ড্রয়েডের বিকল্প হতে পারে এই অপারেটিং সিস্টেম। যদিও মেইট ৩০ সিরিজ স্মার্টফোনটি আসছে ওপেন-সোর্স অ্যান্ড্রয়েড নিয়েই।

সফটওয়্যারের পাশাপাশি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনে দারুন হার্ডওয়্যারও ব্যবহার করে থাকে হুয়াওয়ে। ধারণা করা হচ্ছে, নতুন মেইট ৩০তেও এই প্রথা বজায় রাখবে প্রতিষ্ঠানটি। ডিভাইসটিতে কিরিন ৯৯০ প্রসেসর রাখা হতে পারে। আর ডিভাইসটির পেছনে থাকতে পারে গোলাকার কোণওয়ালা কোয়াড-ক্যামেরা মডিউল।

মনে করা হচ্ছে—নতুন মেইট ৩০ প্রোর পেছনে ত্রিভুজাকার পাঁচ ক্যামেরা লেন্স ব্যবস্থার সঙ্গে এলইডি ফ্ল্যাশ রাখা হবে। সংস্থার বর্তমান ফ্ল্যাগশিপ মেট ২০ প্রোতে রয়েছে তিন ক্যামেরা এবং ৭ ন্যানোমিটার কিরিন ৯৮০ প্রসেসরের মতো উচ্চমানের মাদার বোর্ড। পি২০, মেট ২০ এবং নোভা সিরিজের সাফল্যে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর নাগাদ সংস্থার স্মার্টফোন সরবরাহ ২০ কোটি ছাড়ায়। এতে চীনা সংস্থাগুলির মধ্যে রেকর্ড গড়ে হুয়াওয়ে।

উল্লেখ্য, গত ২০১৮ সালে অ্যাপলকে টপকে দ্বিতীয় বৃহত্ স্মার্টফোন বিক্রেতা সংস্থার তকমা পায় হুয়াওয়ে। যদিও আবার অ্যাপল নিজের জায়গা ফিরে পায় বিশ্বের বাজারে। যদিও নতুন করে অ্যাপলকে পিছনে ফেলে এক নম্বর হওয়ার প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রয়েছে চীনের অন্যতম বৃহত্তম এই মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা।

x

Check Also

ওসি মোয়াজ্জেমের মামলার রায় ২৮ নভেম্বর

এমএনএ রিপোর্ট : ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা ...

Scroll Up