নাঈম ঘূর্ণিতে দিন শেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : নাঈম হাসানের ঘূর্ণিতে ৬ উইকেট হারিয়ে ২২৮ রানে প্রথম দিন শেষ করলো সফরকারী জিম্বাবুয়ে। জিম্বাবুয়ের পক্ষে অধিনায়ক ক্রেগ এরভিন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। আর প্রিন্স মাসবুরের ব্যাট থেকে আসে ৬৪ রান। বল হাতে নাঈম হাসান ৪টি ও আবু জায়েদ রাহী নেন ২টি উইকেট।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে সফরকারীরা। দলীয় ৭ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২ রান করেই রাহীর শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ওপেনিংয়ে নামা কেভিন কাসুজা। কাসুজার আউটের পর স্বপ্ন দেখতে থাকা বাংলাদেশের বোলারদের ঘাম ঝরাতে থাকেন মাসবুরে-এরভিন জুটি। বাংলাদেশের সামনে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে সফরকারীরা।

১১১ রানের অনবদ্য জুটির পর নাঈম হাসানের বলে কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরতে হয় উদ্বোধনী জুটিতে নামা প্রিন্স মাসবুরেকে।এরপর অধিনায়ক এরভিন একপ্রান্ত আগলে রাখলেও অন্যপ্রান্তে কাউকেই দাঁড়াতে দেয়নি বাংলাদেশী বোলাররা।

এরপর নাঈম হাসানের দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় ব্রেনড্যান টেইলর, সিকান্দার রাজা ও অধিনায়ক ক্রেগ এরভিনকে। প্রথম দিন শেষে চাকাবা ৯ রানে অপরাজিত থাকলেও রানের খাতায় খুলতে পারেননি তিরিপানো।

নাঈম হাসান ৩৬ ওভারে ৮ মেডেন নিয়ে ৬৮ রান দিয়ে শিকার করেন ৪ উইকেট। আবু জায়েদ রাহী ১৬ ওভারে ৪ মেডেন নিয়ে ৫১ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট। তবে নাঈম ও রাহীর সাফল্যের দিনে মলিন ছিলো বাংলাদেশের অভিজ্ঞ বোলার তাইজুল ইসলাম। ২১ ওভারে ৭৫ রান দিয়ে কোন উইকেট শিকার করতে পারেননি তিনি।

সঙ্গীদের নিয়মিত হারিয়েও খেই হারাননি আরভিন। আপন ছন্দে এগিয়ে পা রাখেন তিন অঙ্কে। বাংলাদেশের বিপক্ষে আগের ৪ টেস্ট খেলে তার সর্বোচ্চ ছিল ৩৫, গড় ছিল ২১। সেই ব্যাটসম্যানই এবার করলেন সেঞ্চুরি। টেস্ট ক্যারিয়ারে বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের এটি তৃতীয় সেঞ্চুরি।

২০১০ সালে অ্যালেস্টার কুকের পর বাংলাদেশে এসে সফরকারী অধিনায়কের এটিই প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি।

আরভিন ছিলেন বলেই দিনটি বলা যাচ্ছিল না বাংলাদেশের। শেষ বেলায় দিনের দুই নায়কের দ্বৈরথে জিতলেন নাঈম। ২২৭ বলে ১০৭ করে বোল্ড হলেন আরভিন। বাংলাদেশ পেয়ে গেল পথরেখা।

সেই পথরেখা ধরে এগিয়ে দ্বিতীয় দিনে জিম্বাবুয়ের ইনিংস দ্রুত শেষ করার আশা করতেই পারে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় নতুন বল এখনও বেশ চকচকে!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস: ৯০ ওভারে ২২৮/৬ (মাসভাউরে ৬৪, কাসুজা ২, আরভিন ১০৭, টেইলর ১০, রাজা ১৮, মারুমা ৭, চাকাভা ৯*, টিরিপানো ০*; ইবাদত ১৭-৮-২৬-০, আবু জায়েদ ১৬-৪-৫১-২, নাঈম ৩৬-৭-৬৮-৪, তাইজুল ২১-১-৭৫-০)।

x

Check Also

নিজামুদ্দিনে যোগ দেয়া ৬৪৭ জন করোনায় আক্রান্ত

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ভারতের দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগ জামাতের সমাবেশে যোগদানকারীদের ৬৫০ জন করোনা ভাইরাসে ...

Scroll Up