নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত বলিউডের কিংবদন্তি দিলীপ কুমার

37
এমএনএ বিনোদন ডেস্ক : আবার অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমার। নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন বর্ষীয়ান এই অভিনেতা। তবে চিকিৎসক তাকে বাসায় বিশ্রাম নিতে বলেছেন। সম্প্রতি এমনটাই প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো।
চিকিৎসকের মতে, হালকা ধরনের নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন দিলীপ কুমার। তবে ভয়ের কিছু নেই। বাসায় থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে তাকে। দিলীপ কুমারের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেও তা-ই বলা হয়েছে।
চিকিৎসকের কথা অনুযায়ী, দিলীপ কুমার এখন বিপদের বাইরে। বিষয়টি নিশ্চিত করে দিলীপ কুমারের পক্ষ থেকে তার টুইটার একাউন্ট থেকে মাউথশাট ডটকম-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও ফয়জল ফারুকি লিখেছেন, ‘নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন দিলীপ সাব। তাকে কিছুদিন বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক। আল্লাহর রহমতে বাকি সবকিছু ঠিক আছে। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’
এবার প্রথম নয়, এর আগে ২০১৬ সালের এপ্রিলে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ৯৪ বছর বয়সী এই অভিনেতা।

এর আগে গেল আগস্ট মাসে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় দিলীপ কুমারকে। তাকে ঘিরে রীতিমতো উদ্বিগ্ন ছিল বলিউড এবং তার অসংখ্য গুণগ্রাহী। পরে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যান প্রবীণ এই অভিনেতা।
দিলীপ কুমারের প্রকৃত নাম মোহাম্মদ ইউসুফ খান। রূপালি পর্দায় ক্যারিয়ার শুরুর সময় নাম পাল্টান তিনি। ছয় দশকের অভিনয় জীবনে ‘মধুমতি’, ‘দেবদাস’, ‘মুঘল-এ-আজম’, ‘গঙ্গা যমুনা’, ‘রাম অউর শ্যাম’, ‘কর্ম’র মতো অসংখ্য ধ্রুপদী চলচ্চিত্রে দেখা গেছে তাকে।
দিলীপ কুমারকে বলা হয় বড়পর্দার ‘ট্র্যাজেডি কিং’। তাকে এই তকমা এনে দিয়েছে ‘আন্দাজ’, ‘বাবুল’, ‘মেলা’, ‘দিদার’, ‘যোগান’ প্রভৃতি চলচ্চিত্র। সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে ‘কিলা’ ছবিতে অভিনয় করেন তিনি।
গত বছর ভারত সরকারের কাছ থেকে পদ্মবিভূষণ খেতাব পান দিলীপ কুমার। ১৯৯১ সালে তাকে দেওয়া হয় পদ্মভূষণ। এর তিন বছর পর তিনি পান দাদাসাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড।