পদার্থবিদ্যায় নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : মহাবিশ্বের বিবর্তন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা ও নতুন গ্রহ আবিষ্কারের জন্য এবার পদার্থবিদ্যায় নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন জেমস পিবলস (৭৭), মিশেল মেয়র  (৮৪) ও দিদিয়ের ক্যুয়েলজ (৫৩)। পিবলসের গবেষণা মহাবিশ্বের বিবর্তন ও বিগ ব্যাং তত্ত্বের ওপর। আর মেয়র ও ক্যুয়েলজ পৃথিবীর সৌরজগতের বাইরে গ্রহের সন্ধান দিয়েছেন।

গতকাল সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে এক অনুষ্ঠানে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেলজয়ী হিসেবে এ তিন বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করে দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্স।

ঘোষণা অনুযায়ী, পুরস্কার মূল্যের (৯০ লাখ ক্রোনার বা ৭ লাখ ৩৮ হাজার পাউন্ড) অর্ধেক পাচ্ছেন জেমস পিবলস ও বাকি অর্ধেক মেয়র ও ক্যুয়েলজের মধ্যে সমান ভাগ করে দেয়া হবে। খবর বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জেমস পিবলস ফিজিক্যাল কসমোলজির (সৃষ্টিতত্ত্ব) ওপর তার তাত্ত্বিক গবেষণার স্বীকৃতি পেলেন। প্রায় দুই দশক ধরে তার গবেষণা মহাবিশ্বকে আধুনিক দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে বুঝতে সাহায্য করেছে। তার তত্ত্ব মহাবিশ্বের গঠন, বিবর্তন ও ইতিহাস, এমনকি বিগ ব্যাংয়ের বিষয়ে আরো নির্ভুলভাবে বুঝতে কাজে লেগেছে।

জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মিশেল মেয়র ও ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক দিদিয়ের ক্যুয়েলজ যৌথভাবে সৌরজগতের বাইরে গ্রহের অনুসন্ধানে নেমেছিলেন। এ গবেষণায় শেষ পর্যন্ত তারা এমন একটি গ্রহ খুঁজে পান, যা সূর্যের মতো একটি নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করছে। জ্যোতির্বিদ্যার ইতিহাসে এটিই প্রথম এমন আবিষ্কার।

মিশেল মেয়র ও দিদিয়ের ক্যুয়েলজ দক্ষিণ ফ্রান্সের হাউট প্রদেশের অবজারভেটরি থেকে এ অনুসন্ধান চালান। ১৯৯৫ সালে তারা সৌরজগতের বাইরে পৃথিবী থেকে ৫০ আলোকবর্ষ দূরে একটি গ্রহ আবিষ্কার করেন। ওই গ্রহটির নাম দেয়া হয় ‘৫১ পেগাসি বি’। গ্রহটি আমাদের সৌরজগতের বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতির সমান। আমাদের মিল্কিওয়েতে ছায়াপথে সেটিও সূর্যের মতো একটি নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করছিল।

এ যুগান্তকারী আবিষ্কারের পর থেকে মিল্কিওয়ে ছায়াপথে এখন পর্যন্ত প্রায় চার হাজার গ্রহ খুঁজে পেয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।

পুরস্কার ঘোষণা উপলক্ষে নোবেল কমিটি বিবৃতিতে বলেছে, এ বছর জেমস পিবলস, মিশেল মেয়র ও দিদিয়ের ক্যুয়েলজের গবেষণার ফল, মহাবিশ্ব সম্পর্কে আমাদের প্রচলিত ধারণাই পাল্টে দিয়েছে। পিবলসের গবেষণা আমাদের বুঝতে সাহায্য করেছে, বিগ ব্যাংয়ের পর মহাবিশ্ব কীভাবে বিবর্তিত হয়েছে। আর মেয়র ও ক্যুয়েলজের গবেষণা মহাবিশ্বের সৌরজগতের বাইরের গ্রহগুলো সম্পর্কে জানতে সাহায্য করেছে।

x

Check Also

আজ বুধবারের দিনটি আপনার কেমন যাবে?

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আজ ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার। নতুন সূর্যালোকে আজ মঙ্গলবারের দিনটি আপনার ...

Scroll Up