পরাজয় বরণ করে মোদিকে রাহুলের অভিনন্দন বার্তা

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে বিজয় অর্জন করায় নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। নির্বাচনী ফলাফল পরবর্তী দলীয় অবস্থান জানাতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার এক প্রেসব্রিফিংয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘দেশের মানুষের রায়কে স্বাগত৷ নরেন্দ্র মোদিকে শুভেচ্ছা৷ পরাজিতদের বলছি ভয় পাবেন না৷ এটা দুই দলের মতাদর্শের লড়াই৷ আমরা ঘুরে দাঁড়াব৷’

এর আগে ভারতের হিন্দুত্ববাদী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লোকসভা নির্বাচনে নিজের বিজয় ঘোষণা করেছেন। বৃহস্পতিবার ফল ঘোষণা করা হলে গান্ধী পরিবারের ফিরে আসার আশাকে গুঁড়িয়ে দিয়ে ভূমিধস বিজয়ের দিকে এগোচ্ছেন মোদি। খবর এএফপি

ক্ষমতাসীন দলটির মূল প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস পেয়েছে ৪৯টি আসন। প্রাথমিক গণনায় দেখা গেছে, নিম্নকক্ষে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া দলটির মিত্ররা আরও অর্ধশত আসন দখল করতে যাচ্ছেন।বিজয় ঘোষণার পর একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক ভবিষ্যৎ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। প্রায় ষাট কোটি ভোট গণনা হওয়ার পর ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের তথ্য বলছে, দেশটির নিম্নকক্ষ লোকসভার ৫৪৩টি আসনের মধ্যে ৩০০টিতে বিজয়ী হয়েছেন বিজেপি।

বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলছেন, আজকের ম্যান্ডেট বলছে-ভারতে পুরোপুরি বর্ণপ্রথা, স্বজনপ্রীতির মূলোৎপাটন ও উন্নয়নকে বেছে নিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

নিজের বিপুল বিজয় নিশ্চিত করার পর দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ভারত আবার জিতে গেল।

বিভিন্ন বিষয়ে টুইটের জন্য বেশ সুনাম থাকলেও আজ বৃহ্স্পতিবার লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনার শুরুর পর থেকে মোদির কোনো পোস্ট ছিল না।

তবে সরকার গঠন করতে যতটা আসন লাগে, তার চেয়ে বেশি নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি এ কথা বলেন।

টুইটে তিনি বলেন, আমরা একসঙ্গে বড় হই। সমৃদ্ধও হই একসঙ্গে। কাজেই একইসঙ্গে শক্তিশালী ও সম্মিলিতভাবে ভারত গড়ে তুলব। ভারত আবারও জিতে গেল।

নিজেকে চাওয়ালা পরিচয় দিয়ে বছর পাঁচেক আগে ভোটের লড়াইয়ে জিতে ভারতের মসনদে বসেছিলেন মোদি।

আর এবার ভোটের আগে শাসক পরিচয়ের বদলে নিজেকে চৌকিদার হিসেবে তুলে ধরেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার ভোট গণনায় দেখা যায়, কংগ্রেস পরিবারের প্রতিনিধি রাহুল গান্ধীর পরিবর্তে চৌকিদার মোদিতেই ভরসা খুঁজেছেন ভারতের প্রায় ৯০ কোটি ভোটার।

ভোটের পুরোটা সময় কংগ্রেস এবং আঞ্চলিক দলগুলো মোদিবিরোধী জোয়ার তৈরির চেষ্টা করেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাতে কাজ হয়নি বলে দেখা যাচ্ছে ভোটের ফলাফলে।

লোকসভায় ৫৪৩টি আসনের মধ্যে তামিলনাড়ুর একটি বাদে সবকটি আসনে এবার ভোট হয়েছে। এর মধ্যে সরকার গঠন করতে কোনো দল বা জোটকে পেতে হবে ২৭২টি আসন।

দুপুর নাগাদ প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, মোদির দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন জোট এনডিএ যে ক্ষমতায় টিকে যাচ্ছে, তা নিয়ে আর কোনো সন্দেহ থাকে না।

তিনশর বেশি আসনে জিতে যাচ্ছে এনডিএ জোট। ২০১৪ সালের চেয়ে বেশি আসন পেতে যাচ্ছে তারা।

গতবার শুধু বিজেপির আসন ছিল ২৮২টি, এবার তাদের পদ্মফুল তিনশতাধিক আসনে জয়ী হচ্ছে। আর জোটের আসন ছাড়িয়ে যাচ্ছে সাড়ে তিনশ।

এবার কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউপিএ ৯০টি আসনে এবং ১১৪টি আসনে অন্যান্য দল জয় পেতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে।

২০১৪ সালের চেয়ে কংগ্রেসের আসন বাড়লেও তা মোদিকে হটানোর মতো নয় কোনোভাবেই।

x

Check Also

টাকার অবমূল্যায়ন শুরু করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

এমএনএ রিপোর্ট : দীর্ঘদিন বিনিময়মূল্য ধরে রাখার পর মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়ন শুরু করেছে ...

Scroll Up