পহেলা বৈশাখে রাজধানীতে যত আয়োজন

45

এমএনএ রিপোর্ট : চৈত্রসংক্রান্তি ও বর্ষবরণ করতে উৎসুক দেশবাসী। নানা আয়োজনের মধ্যে পুরো দেশ বিদায় জানাবে ১৪২৩ বাংলা সন এবং বরণ করবে ১৪২৪ বাংলা সনকে। এ উপলক্ষে রাজধানীতে বর্ষবরণের যত আয়োজন করা হয়েছে তার খোঁজ-খবর নিয়ে এ বিশেষ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

পাকিস্তান শাসনামলে বাঙালি জাতীয়তাবাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয় বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের। আর ষাটের দশকের শেষে তা বিশেষ মাত্রা পায় রমনা বটমূলে ছায়ানটের আয়োজনের মাধ্যমে। দেশ স্বাধীনের পর বাঙালির অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রতীকে পরিণত হয় বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। ১৯৮৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে বের হয় প্রথম মঙ্গল শোভাযাত্রা। ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর ইউনেস্কো এ শোভাযাত্রাকে বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের মর্যাদা দিয়েছে। বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে নববর্ষ উদযাপন পরিণত হয়েছে বাংলাদেশের সার্বজনীন উৎসবে। বর্ষবরণে আজ সরকারি অনুষ্ঠান ছাড়াও রাজধানী জুড়ে বিভিন্ন সংগঠনের নানা আয়োজন রয়েছে।

ছায়ানট : প্রথম প্রভাতেই রমনার বটমূলের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছায়ানট ভোরের সূর্যের আলো দেখার সঙ্গে সঙ্গেই অর্থাৎ ভোর ছটা দশ মিনিটে সরোদবাদন দিয়ে শুরু করবে বর্ষবরণের মূল অনুষ্ঠান। রমনায় ছায়ানটের অনুষ্ঠানের অর্ধ শতাব্দী পূরণ উপলক্ষে এবারের আয়োজন হবে বড় ও তিন পর্বে বিভক্ত। বেলা দশটা নাগাদ অনুষ্ঠান শেষ হবে দেওয়ানা মদিনা লোকপালা দিয়ে। এবারের আয়োজনের মূল প্রতিপাদ্য- ‘আনন্দ, বাঙালির আত্মপরিচয়ের সন্ধান ও অসাম্প্রদায়িকতা’।

মঙ্গল শোভাযাত্রা : চারুকলার শিক্ষার্থীরা সকাল ৯টায় বের করবে মঙ্গল শোভাযাত্রা। এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রার মূল প্রতিপাদ্য করা হয়েছে-‘আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে বিরাজ সত্য সুন্দর… ’। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের নেতৃত্বে মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ হাজারো বাঙালি। ইউনেস্কো বর্ষবরণের এ শোভাযাত্রাকে বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দেয়ায় চারুকলা অনুষদ বিগত ২৮ বছরের উল্লেখযোগ্য মোটিফগুলো এবারের শোভাযাত্রায় রাখার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

ঋষিজ : শিশু পার্কের প্রবেশদ্বারে নারকেলবিথী চত্বরে গত ৩৪ বছরের ঐতিহ্য নিয়ে পহেলা বৈশাখে অনুষ্ঠান আয়োজন করে আসছে ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠী। এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় শুরু হবে ঋষিজের বৈশাখী আয়োজন। এতে ঢাকা ও ভারতের শিল্পীরা ছাড়াও সঙ্গীত পরিবেশন করবেন গণসঙ্গীত শিল্পী ফকির আলমগীর।

শিশু একাডেমী : শিশু একাডেমীর শহীদ মতিউর মুক্তমঞ্চে সকাল ৯টা থেকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। একাডেমীর চেয়ারম্যান কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সভাপতিত্বে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় ‘বৈশাখে রং লাগাও প্রাণে’ এই শিরোনামে ক্যানভাসে ছবি এঁকে অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করবেন। এই আয়োজনটি বাংলাদেশ শিশু একাডেমী কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ ৬৪টি জেলা ও ৬টি উপজেলায় একই সঙ্গে অনুষ্ঠিত হবে।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট : পয়লা বৈশাখের দিন বিকাল ৪টায় রাজধানীর মিরপুর, দনিয়া রায়েরবাজারসহ বিভিন্ন স্থানে একক ও দলীয় লোকসঙ্গীত, নৃত্য ও আবৃত্তিসহ নানা আয়োজন পরিবেশন করবে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।

বাংলা একাডেমিতে বৈশাখী মেলা : বাংলা একাডেমি সকাল সাড়ে ৭টায় একাডেমির রবীন্দ্র-চত্বরে বর্ষবরণ উপলক্ষে একক বক্তৃতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। দিবসটি উপলক্ষে একাডেমি ‘বইয়ের আড়ং’ শিরোনামে পহেলা বৈশাখ থেকে ১০ বৈশাখ পর্যন্ত বইমেলার আয়োজন রেখেছে। এছাড়া ১০ দিনব্যাপি বৈশাখী মেলার আয়োজনও আছে একাডেমি চত্বরে। শুক্রবার বিকেল ৪টায় শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মেলার উদ্বোধন করবেন।

চ্যানেল আই ও সুরের ধারা : বর্ষবরণ উপলক্ষে চ্যানেল আই ও সুরের ধারা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র প্রাঙ্গণে ৬ষ্ঠবারের মত আয়োজন করেছে ‘সানসিল্ক হাজারো কণ্ঠে’ বর্ষবরণের অনুষ্ঠান। এখানে মেলার আয়োজনও থাকবে। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে চ্যানেল আই।