প্রস্তুতি ম্যাচে তামিমের সেঞ্চুরি, মুমিনুলের দৃঢ়তা

43

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : শ্রীলঙ্কা সফরে দুই ম্যাচ টেস্টের আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে তামিমের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কা বোর্ড সভাপতি একাদশের বিপক্ষে নিজেদের ব্যাটিংয়ে বেশ ভালোই কাটলো বাংলাদেশ দলের। প্রথমে ব্যাট করা টাইগাররা দিন শেষে ৯০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৯১ রান তুলেছে।

প্রথম দিনের ব্যাটিং শেষে উইকেটে অপরাজিত থাকেন লিটন দাস ও তাইজুল ইসলাম। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট চালিয়ে ৬৪ বলে ১০টি চারের সাহায্যে ৫৭ রানে অপরাজিত লিটন। আর তাইজুল অপরাজিত ৪ রানে।

মোরাতুয়ার ডি জয়সা স্টেডিয়ামে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। শুরুটা করেন তামিম ইকবাল আর সৌম্য সরকার। ভারতের বিপক্ষে টেস্টে ব্যাট কথা বলেনি তামিমের। পিএসএল খেলে লঙ্কা মিশনে এসেই নিজেকে মেলে ধরে দারুণ এক সেঞ্চুরি উদযাপন করে স্বেচ্ছা অবসর নেন তামিম। তামিমের সঙ্গে মুমিনুল হকও খেলেছেন দারুণ গতিতে। লম্বা ইনিংস খেলে তিনিও স্বেচ্ছা অবসরে যান।

ব্যক্তিগত ৯ রানে লাহিরু সামাকোনের বলে রন চন্দ্রাগুপ্তাকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সৌম্য। অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম টেস্ট মেজাজেই নিজের ইনিংস বড় করেছেন। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে এসে মুমিনুল হক স্ট্রাইক রেট বাড়িয়ে রান তোলেন। দু’জনে মিলে তোলেন ১৪৩ রান। পরে ১০৩ বলে ১০টি চারের সাহায্যে মুমিনুল ৭৩ রানে স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

সেঞ্চুরি তুলতে তামিম ১৪৬ বলে সাতটি চার ও পাঁচ ছক্কায় তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছান। তামিমের সেঞ্চুরির পর কিছুটা আক্রমণাত্মক খেলা অধিনায়ক মুশফিক ব্যক্তিগত ২১ রানে ফেরেন। ৩৭ বলে দুটি চারের সাহায্যে ২১ রান করে চামিকা করুনারত্নের বলে বোল্ড হন।

দিনের শুরু থেকেই অসাধারণ ব্যাটিং করা তামিম সেঞ্চুরির পরও সাবলীলভাবে খেলেন। তবে ১৩৬ রান করে অবসর নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ১৮২ বলে নয়টি চার ও সাতটি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান ড্যাশিং এ ওপেনার। এলবির ফাঁদে পড়ে বিদায় নেওয়ার আগে পিএসএলে খেলে আসা সাকিব করেন ৩০ রান। তার ইনিংটি ৪৬ বলে তিনটি বাউন্ডারিতে সাজানো ছিল। পিএসএল খেলে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও সাবলীল ব্যাটিং করেছেন। শেষ দিকে এসে সাজঘরে ফেরার আগে রিয়াদ তিনটি চার আর দুটি ছক্কায় ৭৩ বলে করেন ৪৩ রান। উইকেটে এসে দ্রুতই ফেরেন মেহেদি হাসান মিরাজ (১)।

দিনেশ চান্দিমালের নেতৃত্বে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট প্রেসিডেন্ট একাদশ দলে অন্যদের টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা নেই। দুই দিনের এ ম্যাচের দু’দলেরই রয়েছে ১২ জন করে ক্রিকেটার। যেখানে ব্যাটিং ও বোলিং করতে পারবেন ১১ জন করে।

বাংলাদেশ দল: মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাশ, সাকিব আল হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, তাইজুল ইসলাম, সুভাষীশ রায়, তাসকিন আহমেদ।

শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট দল: দিনেশ চান্দিমাল, রন চন্দ্রাগুপ্তা, লিও ফ্র্যান্সিসকো, ওয়ানিদু ডি সিলভা, চামিকা করুনারত্নে, লাসিথ আম্বুলদেনিয়া, অভিষেক ফার্নান্দো, রোসেন সিলভা, আইরোশ সামারাসুরাইয়া, রুমেশ বুদ্দিকা, লাহিরু সামারাকোন, প্রবিন জয়াউইকরামা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৯০ ওভারে ৩৯১/৭ (তামিম ১৩৬, সৌম্য ৯, মুমিনুল ৭৩, মুশফিক ২১, সাকিব ৩০, মাহমুদউল্লাহ ৪৩, লিটন ৫৭*, মিরাজ ১, তাইজুল ৪*; করুনারত্নে ৩/৬১, সামারাকুন ১/৭০, বুদ্দিকা ০/৬৮, জয়াবিক্রম ০/৫১, সামারাসুরিয়া ০/২২, আম্বুলডেনিয়া ১/৫৭, হাসারাঙ্গা ০/৫১)