ফেসবুক বন্ধে সরকার কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি

60

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ জানিয়েছে, সরকার ফেসবুক বন্ধের বিষয়ে কোনো চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। এ বিষয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানিয়েছে তারা।

আজ সোমবার গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশের পর ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. এনায়েত হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে একথা জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, ‘মধ্যরাতে ছয় ঘণ্টা বন্ধ থাকবে ফেসবুক’ বিষয়ে বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদের প্রতি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, ‘ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ দৃঢ়ভাবে বলতে চায় এ সংবাদটি সঠিক নয়। সরকার ফেসবুক বন্ধের বিষয়ে এখনও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। এ বিষয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানানো যাচ্ছে।’

এর আগে জানা যায়, মধ্যরাতে ছয় ঘণ্টা ফেসবুক বন্ধ রাখার বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগকে চিঠি দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন শাখা। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) মতামত চায়।

ডাক টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার আজ সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছিলেন, ‘মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ বিষয়ে চিঠি এসেছে। আমরা বিটিআরসির মতামত নিয়ে এ বিষয়ে চূড়ান্ত মতামত দেব।’

এদিকে টেলিযোগাযোগ বিভাগ থেকে বিটিআরসির মতামত চেয়ে চিঠি পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন সংস্থাটির সচিব সারওয়ার আলম।

তিনি জানিয়েছিলেন, রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত ফেসবুক বন্ধ রাখা যায় কি না, এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ বিভাগের মতামত জানতে চেয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

সারওয়ার আলম তখন বলেন, এই সময়ে তরুণ সমাজকে ফেসবুক আসক্তি থেকে মুক্ত করার জন্য এ ধরনের সম্ভাব্য পদক্ষেপের বিষয়ে ভাবছে সরকার।

চিঠিতে ফেসবুক ‘শিক্ষার্থীদের প্রভাবিত করছে’ এবং ‘তরুণদের কাজ করার ক্ষমতা কমিয়ে দিচ্ছে’ বলা উল্লেখ করা হয়েছে।

পরে এ বিষয়ে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাজাহান মাহমুদ আজ সোমবার সাংবাদিকদেরকে বলেছিলেন, ‘আমরা চিঠি পেয়েছি। এখন এটা নিয়ে বসব। এর কারিগরি দিকসহ নানা বিষয়ে কথা বলে আমাদের মতামত দেব।’

তিনি তখন আরও বলেন, এটা যেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তাই এ বিষয় ইতিবাচক নেতিবাচক দেখার সুযোগ নেই। আমরা শুধু কারিগরি দিকটাই পর্যালোচনা করব।’

জানা গেছে, গত বছর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনে ফেসবুকের বিষয়টি আলোচনায় আসে। সেখানে আলোচনা হয়, রাত জেগে সামাজিক যোগাযোগের এ মাধ্যমটি ব্যবহারের কারণে শিক্ষার্থী ও তরুণদের কর্মক্ষমতা কমে যাচ্ছে। নেশার মতোই তারা মাধ্যমটি ব্যবহার করছে। সে কারণে রাতে ফেসবুক বন্ধ রাখার সুপারিশ আসে।

ওই সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ টেলিযোগাযোগ বিভাগকে চিঠি দেয়। ওই চিঠিতে রাত বারটা থেকে ছয় ঘণ্টা ফেসবুক বন্ধ রাখার বিষয়টি উঠে এসেছে।