বিপিএলের শেষ চারে মাশরাফির রংপুর রাইডার্স 

35
এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : সব জল্পনা-কল্পনা আর হিসেব-নিকেশ পাল্টে দিয়ে বিপিএলের শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে মাশরাফি বিন মর্তুজার রংপুর রাইডার্স। শেষ পর্যন্ত শেষ হাসিটা নাসির নয় মাশরাফিই হাসল।
গ্যালারি নয়, আজ রবিবার রাতে খুলনা টাইটান্সের সবচেয়ে বড় সমর্থক ছিল নাসির হোসেনের সিলেট সিক্সার্স। কিন্তু তাদেরকে নিরাশ করেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ১৯ রানে হেরে সিলেটকেই বিপিএল থেকে বিদায় করেছে তারা। অন্যদিকে, সমীকরণের জটিল অংকের পাতাকে ছিঁড়ে ফেলে, চতুর্থ দল হিসেবে বিপিএলের পঞ্চম আসরের প্লে অফ রাউণ্ডে জায়গা করেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।
আজ রবিবার বিকেল পর্যন্তও জটিল সব হিসেবে ভরে ছিল বিপিএলের পয়েন্ট টেবিল। জায়গাটা মূলত চতুর্থ অবস্থানে থাকা রংপুর রাইডার্স ও সিলেটকে নিয়ে। দিনের প্রথম ম্যাচে চিটাগংয়ের বিপক্ষে জয় পেয়ে শেষ চারের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিল নাসির হোসেনের দল। সেক্ষেত্রে তারা তাকিয়ে ছিল খুলনার দিকে। রংপুরকে গতবারের সেমিফাইনালিস্টরা হারালেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, ঢাকা ডায়নামাইটস ও খুলনা টাইটান্সের পাশে নাম লেখানর সুযোগ ছিল তাদের। কিন্তু এজন্য খুলনার বিপক্ষে তো বটেই, পরের ম্যাচেও হারতে হত ম্যাককালাম-গেইলদের দলকে।
শেষ পর্যন্ত পরের ম্যাচ পর্যন্তও অপেক্ষা করতে দিল না টম মুডির ছাত্ররা। খুলনাকে ১৯ রানে হারিয়ে শেষ দল হিসেবে শেষ চারে জায়গা করে নিল তারা। তাতে করে সিলেটের পাশাপাশি বিপিএল থেকে বিদায় নিল রাজশাহী কিংস ও চিটাগং ভাইকিংস।
আজ রবিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খুলনা-রংপুরের ম্যাচে খুলনাকে ছয় উইকেটে ১৪৭ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় খুলনা। জবাবে রংপুরের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ১২৮ রানেই থামতে হয়েছে জফরা আর্চার-আফিফ হোসে ধ্রুবদের। ব্যাট হাতে ওপেনার অস্ট্রেলিয়ান মাইকেল ক্লিঞ্জার সর্বোচ্চ ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন। যদিও এই রান করতে তিনি মোকাবেলা করেছেন ৪৫ বল। আরেক ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত খেলেছেন ২০ রানের ইনিংস। উইন্ডিজ ক্রিকেটার জফরা আর্চার ১১ বলে ১৯ রান তুলে খুলনাকে খানিকটা আশা দিচ্ছিলেন। কিন্তু নাটকীয় রান আউটে সেটাও ভেস্তে যায়। বল হাতে রংপুরের ইংলিশ অলরাউন্ডার রবি বোপারা দুই ওভার বল করে মাত্র চার রান খরচ করেছেন। উইকেট নিয়েছেন দুইটি। এছাড়া সোহাগ গাজী, ইসুরু উদানা, নাহিদুল ইসলাম ও নাজমুল ইসলাম প্রত্যেকে একটি করে উইকেট নিয়েছেন।
টসে হেরে আগে ব্যাট করা রংপুর শুরু থেকেই ওপেনার ক্রিস গেইলের ব্যাটে এগিয়ে গেছে। ক্যারিবিয়ান এই ব্যাটিং দৈত্য ২৭ বল খরচ করে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেছেন। এরপর ৩৮ বলে মোহাম্মদ মিঠুনের অপরাজিত ইনিংস শক্ত অবস্থানে নিয়ে যায় মাশরাফিদের। ম্যাচ সেরা মিঠুন তার ইনিংসে দুইটি বাউন্ডারির সঙ্গে হাঁকিয়েছেন চারটি ছক্কা। খুলনার জফরা আর্চার বল হাতে দুজন রাইডার্স ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন। এছাড়া আবু জায়েদ রাহী, সাইফুল ইসলাম, মোহাম্মদ ইরফান ও কার্লোস ব্রাথওয়েট প্রত্যেকে একটি করে উইকেট নিয়ছেন।
শেষ চারের মারপ্যাঁচ শেষ হয়েছে। যেখানে ১০ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে আছে তামিম ইকবালের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ১১ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটস। তৃতীয় স্থানে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের খুলনা টাইটান্স। ১১ ম্যাচে তাদের মোট পয়েন্ট ১৩। মাশরাফির রংপুর খেলেছে ১১ ম্যাচ। তাদের পয়েন্ট ১২।