বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে গড়ে উঠা নতুন সব হাইটেক শহর

74
এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ক্রমঃবর্ধমান হারে জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে শহরগুলোতে চাপ কমাতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নতুন নতুন হাইটেক শহর গড়ে তোলা হচ্ছে৷ খুবই স্বাভাবিক যে, এসব শহরে বর্তমান বিশ্বের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকবে৷ এমন কয়েকটি শহরের কথা তুলে ধরা হল।
নিওম : মরুভূমির ভবিষ্যৎ
সৌদি আরবের যুবরাজের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে প্রস্তাবিত শহর ‘নিওম’ বিশ্বের সবচেয়ে সুরক্ষিত, সবচেয়ে আধুনিক এবং প্রভাবশালী শহর হবে৷ তার ইচ্ছে- এখানে এমন একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন শহর স্থাপন হবে, যেখানে অনেক তরুণ চাকরি পাবে৷
মাসদার সিটি : সবুজ কিন্তু খালি
মাসদার সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি ইকোলজিক্যাল হাইটেক শহর৷ এটির কাজ ২০১৬ সালে শেষ হওয়ার কথা ছিল৷ এখন বলা হচ্ছে, কাজ শেষ হতে ২০৩০ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে৷
মঙ্গোলিয়ার মেয়দার সিটি
যানজট ও ধোঁয়াশার কারণে মঙ্গোলিয়ার রাজধানী উলানবাটোরের অবস্থা খুবই খারাপ৷ এ জন্য শহরের দক্ষিণ দিকে মেয়দার নামে একটি শহর স্থাপন করার কাজ হচ্ছে৷ শহরের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হবে বৃহৎ বৌদ্ধমূর্তি৷
লিনগাং শহর
চীনের সাংহাইয়ের কাছে লিনগাং নামে একটি নতুন অর্থনৈতিক এলাকা নির্মিত হচ্ছে৷ ২০০৩ সালে এই শহর নির্মাণের কাজ শুরু হয়৷ ২০২০ সাল নাগাদ এর কাজ শেষ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷
সাংদো : দক্ষিণ কোরিয়ার চমক
সাংদো দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন একটি বাণিজ্যিক শহর৷ সমুদ্রের মধ্যে ছয় বর্গকিলোমিটার এলাকায় প্লট তৈরি করা হয়েছে৷ পরিকল্পনা সাংদোকে বিশ্বের সর্বাধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলা৷
নাইজেরিয়ার ম্যানহাটন
লাগোস থেকে কিছুটা বাইরের দিকে নাইজেরিয়ার ‘লাক্সারি অর্থনৈতিক কেন্দ্র’ বানানো হচ্ছে৷ এখানে নির্মিত শহরে কমপক্ষে আড়াই লাখ মানুষ বাস করতে পারবে৷
বেলমন্ট : বিল গেটসের শহর
যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা রাজ্যে নির্মিত হচ্ছে বেলমন্ট সিটি৷ এই শহর নির্মাণের পেছনে রয়েছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস৷ রাজ্যের রাজধানী ফিনিক্স থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে শহরটি নির্মিত হচ্ছে৷ সেখানে অন্তত দুই লাখ মানুষ বাস করতে পারবে৷
কানাডার গুগল শহর
গুগলের মূল কোম্পানি অ্যালফাবেট ইঙ্ক কানাডায় একটি নতুন শহর নির্মাণ করছে৷ এই শহরে বাস করবে ১০ হাজার মানুষ৷ প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সমর্থন রয়েছে এ শহর নির্মাণে৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে।