বিশ্বের শীর্ষ ধনী দেশ কাতার, ১৪৩ নম্বরে বাংলাদেশ

36
এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : সম্প্রতি বিশ্বের ধনী দেশগুলোর তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা (পিপিপি) অনুযায়ী এই তালিকা তৈরি করা হয়। আন্তর্জাতিক অর্থ সংস্থা আইএমএফ অক্টোবর মাসের তথ্য-উপাত্তের ওপর ভিত্তি করে এই তালিকা করেছে।
তালিকার একেবারে শীর্ষে রয়েছে মধ্য প্রাচ্যের দেশ কাতার। সে দেশে মাথাপিছু বার্ষিক ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ১ লাখ ২৪ হাজার ৯৩০ মার্কিন ডলার। শীর্ষ স্থান ধরে রাখতে পারলেও জ্বালানি তেলের দাম কমায় গত এক বছরে কাতারের মাথাপিছু আয় ১৫ হাজার ডলার মতো কমেছে।
লুক্সেমবার্গের স্থান কাতারের ঠিক পরেই। এই দেশের জনসংখ্যা মাত্র ৬ লাখ। তবে মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা চমকে দেওয়ার মতো। এ দেশে মাথাপিছু বার্ষিক ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ১ লাখ ৯ হাজার ১১৯ মার্কিন ডলার।
এর পরে আছে সিঙ্গাপুর। ৫৬ লাখ মানুষের দেশ সিঙ্গাপুরের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৯০,৫৩০ ডলার।
ব্রুনাই আছে চতুর্থ স্থানে। ২০১৬ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ব্রুনাইয়ে জিডিপির হার অনেকটাই কমে গিয়েছিল। তবে তেলের বাজার ফের ঘুরে দাঁড়ানোয় তার হার বেড়েছে অনেকটা। এ দেশে মাত্র ৪ লাখ মানুষের বাস। এ দেশে মাথাপিছু বার্ষিক ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৭৬ হাজার ৭৪০ মার্কিন ডলার।
তার পরে আছে আয়ারল্যান্ড। আয়ারল্যান্ডের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা কিছুটা বেড়ে ৭২ হাজার ৬৩০ ডলার হয়েছে।
ষষ্ঠ ধনী দেশ নরওয়ে। আইএমএফ-এর হিসেব অনুযায়ী নরওয়ের মাথাপিছু বার্ষিক ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৭০ হাজার ৫৯০ মার্কিন ডলার।
৭ম ধনী দেশ কুয়েত। ৪০ লাখ মানুষের দেশ কুয়েতের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৬৯ হাজার ৬৭০ মার্কিন ডলার।
সংযুক্ত আরব আমিরাত আছে অষ্টম স্থানে। ১ কোটি জনসংখ্যার এই দেশটির মানুষদের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৬৮ হাজার ২৫০ ডলার।
৮০ লাখ মানুষের দেশ সুইজারল্যান্ড আছে নবম স্থানে। দেশটির মানুষদের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৬১ হাজার ৩৬০ ডলার।
হংকং আছে ১০ম স্থানে। ৭০ লাখ জনসংখ্যার এই দেশটির মানুষদের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৬১ হাজার ২০ ডলার। ১১ তম ধনী দেশ স্যান ম্যারিনো।
এ ছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে ১২-তে। সৌদি আরব ১৩ তম ধনী দেশ। নেদারল্যান্ড ১৪তম। আইসল্যান্ড ১৫ তম। যুক্তরাজ্য আছে ২৭তম স্থানে। যুক্তরাজ্যের আশেপাশেই আছে ফ্রান্স।
এ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এ তালিকায় ভারতের স্থান ১২৬ নম্বরে। মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৭,১৭০ডলার। পাকিস্তানের স্থান ১৩৭ নম্বরে। দেশটির মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৫,৩৫০ ডলার। আর বাংলাদেশ রয়েছে ১৪৩-এ। আমাদের মাথাপিছু ক্রয়শক্তির ক্ষমতা ৪,২১০ডলার।