বিশ্বের সবচেয়ে দামি ১০টি গাড়ির তথ্যাদি জেনে নিন

এমএনএ ডেস্ক রিপোর্ট : সারা বিশ্বে বিত্তশালীরা এখন দামি গাড়ি ব্যবহারের প্রতিযোগিতায় উঠে পড়ে নেমেছেন যেনো। আর নামিদামি গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলোও তৈরি করছে অবিশ্বাস্য দামের গাড়ি। এবার জেনে নিন বিশ্বের সবচেয়ে দামি ১০টি গাড়ির তথ্যাদি।

পাগানি জোন্ডা সিঙ্ক রোডস্টার

পাগানি জোন্ডা সিঙ্ক রোডস্টার : এখন আমরা জানাবো বিশ্বের সবচেয়ে দামী গাড়ি কোনটি, সেই বিষয়ে। এই তালিকায় ১ নম্বরে আছে এই গাড়িটি বাজারে আসতেই দাম ধার্য হয় ১২২ কোটি টাকা। গাড়িটি তৈরি করেছে বিখ্যাত কোম্পানী Pagani Automobile। এই সুপার কার টির ওজন মাত্র ১৩৫০ কেজি। যা এই গাড়িটিকে অবিশ্বাস্য গতিতে উঠতে সাহায্য করে। গাড়িটির সর্বোচ্চ গতি ঘন্টায় প্রায় ৩৮৩ কিমি। এটি ০-১০০ কিমি গতি তুলতে মাত্র ২.৮ সেকেন্ড সময় নেয়। গাড়িটিতে রয়েছে 6 ltr V12 ইঞ্জিন। বিশ্বের অনন্যসাধারণ ও আকর্ষণীয় এই গাড়িটির ইঞ্জিনের ক্ষমতা ৫৯৮৭ সিসি। ইঞ্জিনঃ ভি ১২, ৬.০ লিটার(6.0-liter V-12), হর্স পাওয়ারঃ ৭৫৩ এইচ পি।

রোলস রয়েস সোয়েপটেলস

রোলস রয়েস সোয়েপটেলস : গাড়িটির দাম প্রায় ১০৭ কোটি ৯০ লাখ টাকা। ইঞ্জিনঃ ভি-১২ ৬.৭৫ লিটার(6.75 liter V12), হর্স পাওয়ারঃ ৪৫৩ এইচ পি। ৬০ মাইল প্রতি ঘন্টায় গতি উঠাতে সময় লাগে মাত্র ৫.৭ সেকেন্ড। ইউনিক লাক্সারি গাড়িটি কিন্তু ২ সিটের! মাত্র একটি গাড়িই তৈরি করা হয়েছিল প্রথমে।

ল্যাম্বারঘিনি ভেনেনো

ল্যাম্বারঘিনি ভেনেনো : বিশ্বের সবচেয়ে দামী গাড়ি র তালিকায় ৪ নম্বর স্থানে আছে Lamborghini Veneno। গাড়িটি তৈরি করেছে ইতালির বিখ্যাত Lamborghini কোম্পানী। এই কার টির নাম রাখা হয়েছে ভেনেনো, যার বাংলা অর্থ বিষ। আসলে গাড়িটি দেখতে খুবই সুন্দর, যাকে বলা যায় ভয়ংকর সুন্দর। যার ফলে এর নাম দেয়া হয়েছে ভেনেনো। এই সুপার কার টির ওজন প্রায় ১৪৯০ কেজি।

গাড়িটির সর্বোচ্চ গতি ঘন্টায় প্রায় ৩৫৪ কিমি। এটি ০-১০০ কিমি গতি তুলতে মাত্র ২.৭ সেকেন্ড সময় নেয়। ইঞ্জিনঃ ভি ১২ ৬.৫ লিটার(6.5 liter V-12) , হর্স পাওয়ারঃ ৭৫০ এইচ পি। অবাক করার বিষয়, পৃথিবীতে মাত্র ৫ টি ল্যাম্বোরগিনি ভেনেনো গাড়ি বানানো হয়েছে। যার মধ্যে ২ টি থাকবে কোম্পানীর কাছেই, আর শুধু মাত্র তিনটি গাড়ি বিক্রির জন্যে বানানো হয়েছে। দাম প্রায় ৬৭ কোটি টাকা। দুবাই পুলিশ এই গাড়ি কিনেছিল শুধুমাত্র গতিবেগের জন্য।  বুঝতেই পারছেন কেন এই গাড়িটি সবচেয়ে দামী গাড়ির তালিকায় স্থান পেয়েছে। তবে সবগুলো গাড়িই বাজারে আসার আগেই বিক্রি হয়ে গেছে।

মার্সেডিজ বেঞ্চ মেব্যাক

মার্সেডিজ বেঞ্চ মেব্যাক : গাড়ির মূল্য প্রায় ৫৬ কোটি টাকা। সাধারণত এই পর্যায়ের স্পোর্টস কারের দাম ৪০ কোটির আশপাশেই ঘোরাফেরা করে। এই গাড়িটিও বছরে দু’তিনটির বেশি ছাড়া হয় না। এটি পৃথিবীর এযাবৎকালের অন্যতম অভিজাত গাড়ি। গাড়ির ছাদটি সম্পূর্ণ গোটানো যায়, যা যাত্রীর দুই পাশকে সম্পূর্ণ খুলে দিতে পারে। মেব্যাক ল্যান্ডুলেট তৈরি করা হয় বিশ্বের বাঘা বাঘা সিইওদের কথা মাথায় রেখে। তাঁদের লাইফস্টাইলের সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই এই গাড়ি।

কোনিগসেগ সিসিএক্সআর ট্রেভিটা

কোনিগসেগ সিসিএক্সআর ট্রেভিটা : বিশ্বের সবচেয়ে দামী গাড়ির তালিকায় ৫ নম্বরে আছে Koenigsegg CCXR Trevita। এই গাড়িটি ২০১৫ সালে সুইডেন এ বানানো হয়। এই সুপারকার টিতে রয়েছে ৪.৭ লিটার এর V8 ইঞ্জিন। ইঞ্জিনঃ ভি এইট ৪.৭ লিটার( 4.7 liter v-8), হর্স পাওয়ারঃ ১০১৮ এইচ পি। দাম প্রায় ৩৯ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।  এই কার টির ওজন প্রায় ১৪৫৬ কেজি।

এই গাড়িটি মাত্র ২.৯ সেকেন্ডে ০-১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতি তুলতে সক্ষম। Koenigsegg কোম্পানির এই সুপার কার টির সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় প্রায় ৪১০ কিলোমিটার। এই গাড়িটি ডিজাইন করা হয়েছে আগের আরেকটি Koenigsegg গাড়ি থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে। তবে এতে রাখা হয়েছে কার্বন ফাইবার এর সাথে অন্য পদার্থের সূক্ষ কাজ। যার ফলে গাড়িটি তৈরি করতে খুবই কষ্ট করতে হয়েছে।

প্রথমে Koenigsegg ভেবেছিল ৩ টি গাড়ি বানাবে। কিন্তু এত কঠিন কাজের কথা মাথায় রেখে তারা মাত্র ২ গাড়ি তৈরি করে। আর ২ টি কারই বিক্রি হয়ে গেছে। একটি কিনেছেন জেনেভার একজন ব্যক্তি ও আরেকটি কিনেছেন বিখ্যাত বক্সার ফ্লয়েড মেওয়েদার।

ফেরারি পিনিনফারিনা সের্জিও

ফেরারি পিনিনফারিনা সের্জিও : ৩০ কোটি টাকা দামের এই গাড়িটি তৈরিই করা হয়েছিল মাত্র ছয়টি। ফেরারি ৪৫৮ স্পাইডারের আদলে গড়ে তোলা এর ইঞ্জিনটি। ইঞ্জিনঃ ভি এইট.৪.৫ লিটার(4.5-liter V8), হর্স পাওয়ারঃ ৫৯৬ এইচ পি।

Bugatti Veron

বুগাত্তি ভেরন

বুগাত্তি ভেরন : পৃথিবীর সবচেয়ে দামী গাড়ির তালিকায় ৮ নম্বরে আছে Bugatti Veyron এর লিমিটেড Mansory Vivere এডিশন টি। ২০১৬ সালে বানানো হয়। বাজারে যখন প্রথম আসে, এটি ছিল দ্রুতগামী বৈধ গাড়ি। এই গাড়িটির দাম প্রায় ৩০ কোটি টাকা। এই গাড়িটি মাত্র ২.৪৫ সেকেন্ডে ১০০ কিমি গতি তুলতে সক্ষম। বুগাত্তির এই সুপার কার টির সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় প্রায় ৪১৬ কিমি। পৃথিবীতে মাত্র ২ টি এই ধরনের গাড়ি রয়েছে। যার ফলেই এর দাম এত বেশি। এই সুপারকার টিতে রয়েছে ৮ লিটার V12 ইঞ্জিন। এই কার টির ওজন প্রায় ১৫২৫ কেজি। ৩২.৬ সেকেন্ডে প্রতি ঘণ্টায় ৪০০ কিমি গতি তুলতে সক্ষম। ইঞ্জিনঃ ডব্লিউ সিক্সটিন ৮.০ লিটার(8.0-liter W16), হর্স পাওয়ারঃ ১৫০০ এইচ পি।

Auston Mertin Valkaire

অ্যাস্টন মার্টিন ভালকাইরে

অ্যাস্টন মার্টিন ভালকাইরে : প্রায় ২৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকা দাম এই গাড়িটির। ইঞ্জিনঃ ভি 12 ৬.৫ লিটার(6.5-liter V-12), হর্স পাওয়ারঃ ১১৩০ এইচ পি। এই গাড়ি যদি বিক্রি করে দেন মালিক, তা হলে ভবিষ্যতে আর নিজের নামে অন্য গাড়ি কিনতে পারবেন না তিনি, বলা হয়েছিল সংস্থার টুইটারে।

Likan Hipersports

লাইকান হাইপারস্পোর্টস

লাইকান হাইপারস্পোর্টস : পৃথিবীর সবচেয়ে দামী গাড়ি র তালিকায় ৯ নম্বরে রয়েছে বহুল আলোচিত Lykan HyperSport। ‘ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস’ সিনেমায় এই গাড়িটি ব্যবহার করা হয়েছে একটা দুর্দান্ত অ্যাকশন সিক্যুয়েন্সের সময়। এই গাড়িটি তৈরি করেছে দুবাইয়ের বিখ্যাত কোম্পানী W Motors তাদের মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক কারখানায়। সারা পৃথিবীতে মাত্র ৭ টি কারই রয়েছে। এর ওজন প্রায় ১৩৮০ কেজি। এই গাড়িটিতে রয়েছে ৩.৭ লিটার টুইন টার্বোচার্জড ইঞ্জিন। হর্স পাওয়ারঃ ৭৮০ এইচ পি। গাড়িটির দাম ২৮ কোটি ২২ লাখ টাকা। এই গতিদানব ঘন্টায় প্রায় সর্বোচ্চ ৩৯০ কিমি গতি তুলতে পারে এবং মাত্র ২.৭ সেকেন্ডেই ১০০ কিমি গতিতে চলে যায়।

La Ferari FXXK

লা ফেরারি এফএক্সএক্সকে

লা ফেরারি এফএক্সএক্সকে : এর দাম প্রায় ১৬ কোটি টাকা। ফেরারি অ্যাপের্টা প্রতি ঘণ্টায় ৩২২ কিমি গতিবেগ তুলতে সময় নেয় আড়াই সেকেন্ড মতো! বাজারে রয়েছে মোট ৪০টি গাড়ি।

x

Check Also

আজ বুধবারের দিনটি আপনার কেমন যাবে?

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আজ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার। নতুন সূর্যালোকে আজ বুধবারের দিনটি আপনার ...

Scroll Up