বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ

এমএনএ রিপোর্ট : আজ ১০ ডিসেম্বর, বিশ্ব মানবাধিকার দিবস। ১৯৪৮ সালের এই দিনে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে মানবাধিকারের সর্বজনীন ঘোষণাপত্র গৃহীত হয়। ১৯৫০ সালে এ দিনটিকে জাতিসংঘ বিশ্ব মানবাধিকার দিবস হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়। তখন থেকেই বিশ্বজুড়ে এ দিনটি পালন করা হচ্ছে।

‘মানবাধিকার সুরক্ষায় তারুণ্যের অভিযাত্রা’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উদ্যোগে এবং হিউম্যান রাইটস প্রোগ্রাম- ইউএনডিপি’র সহায়তায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হবে।

মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে এক বাণীতে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তিনিও গুতেরেস বলেন, “প্রতিটি স্বতন্ত্র ব্যক্তি তাদের নাগরিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সব অধিকার পাওয়ার যোগ্য। এটি তাদের বসবাসের স্থান, বর্ণ, গোষ্ঠী, ধর্ম, সামাজিক উৎপত্তি, লিঙ্গ, যৌন পরিচিতি, রাজনৈতিক অথবা অন্য মতামত, প্রতিবন্ধিতা বা উপার্জন অথবা অন্য যেকোনো অবস্থান নির্বিশেষে প্রযোজ্য।”

এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে আজ সকাল ১০টায় মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক ও মিয়া সেপ্পো। এতে সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম। স্বাগত বক্তব্য রাখবেন কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানবাধিকার কর্মীরা একটি মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। বৃহত্তর ঢাকা মহানগর এবং ঢাকা জেলার দুই সহস্রাাধিক মানবাধিকার কর্মী এ কর্মসূচিতে যোগ দেবেন বলে কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে সারা দেশে এবং বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ৪১টি মিশনে একযোগে দিবসটি পালন করা হবে। দেশের বিভাগীয় শহর চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, সিলেট, রংপুর, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা ও বরিশালসহ দেশের প্রায় সবক’টি জেলা, উপজেলা, থানা, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ও পৌরসভা কমিটিগুলো নিজ নিজ এলাকায় নানা কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালন করবে। মানবাধিকার কমিশনের উদ্যোগে এবং স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় র‌্যালি এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা, মানববন্ধন, বিশেষ স্মরণিকা প্রকাশ, পোস্টার প্রদর্শনী, কবিতা পাঠ, নাট্যানুষ্ঠান, রক্তদান কর্মসূচি ও রচনা প্রতিযোগিতাসহ নানা অনুষ্ঠান।

x

Check Also

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আইসিইউতে 

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে হাসপাতালে ভর্তি করার ...

Scroll Up