মাউন্ড কার্সটেঞ্জ থেকে মুসা ইব্রাহীমকে নিরাপদে উদ্ধার

67

এমএনএ রিপোর্ট : অস্ট্রেলিয়া-ওশেনিয়া অঞ্চলের সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ড কার্সটেঞ্জ পিরামিডের বেস ক্যাম্প থেকে এভারেস্টজয়ী পর্বতারোহী মুসা ইব্রাহীম এবং তাঁর সঙ্গী দুই ভারতীয় পর্বতারোহীকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

মুসা এবং আরও কয়েকজন অভিযাত্রীর একটি দল ইন্দোনেশিয়ার পাপুয়া প্রদেশে মাউন্ট কার্স্টেনজ পিরামিড শৃঙ্গ আরোহণ করতে গিয়ে পথেই আটকা পড়েন। বেইস ক্যাম্পে দলটি ছয় দিন ধরে আটকে ছিল।

গত দুই দিনে দুই দফা উদ্ধার চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া কিছুটা ভালো হলে বাংলাদেশ সময় আজ সোমবার ভোর ৫টা ২৩ মিনিটে হেলিকপ্টার সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৪ হাজার ২৫৭ মিটার উচ্চতায় মাউন্ট কারস্টেনজের ওই বেইস ক্যাম্পে পৌঁছায়।

এরপর সাড়ে ৫টার দিকে হেলিকপ্টারে করে রওনা হয়ে আধা ঘণ্টার মাথায় তারা পাপুয়া প্রদেশের তিমিকা বিমানবন্দরে পৌঁছান বাংলাদেশের প্রথম এভারেস্টজয়ী মুসা ইব্রাহীম।

তিমিকা বিমানবন্দরে নেমে মুসা তাঁর ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দেন। তিনি লিখেছেন, এই মাত্র তিমিকা বিমানবন্দরে পৌঁছালাম। আল্লাহ মহান। আমরা নিরাপদে ফিরে এসেছি। দেখা হবে ইনশাল্লাহ।

দেশবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন মুসা।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আজ সকালে তাঁর ফেসবুক পেজে মুসা ও তাঁর সঙ্গীদের উদ্ধারের তথ্য নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, এই বার আমি ঘুমাতে গেলাম। তাঁদের আর মিনিট দশেক লাগবে সমতলে পৌঁছাতে। সবাই ভালো থাকুন।

এদিকে মুসা ইব্রাহিমকে উদ্ধারের তথ্য জানিয়ে আজ সোমবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তার স্ত্রী উম্মে সরাবন তহুরা। বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায় দেওয়া স্ট্যাটাসে তিনি জানান মুসা এবং তার দলের সদস্যদের নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

কার্সটেঞ্জ পিরামিড (পুনাক জায়া) জয় করে ফিরে আসার পথে বেস ক্যাম্পে আটকা পড়েছিলেন মুসা ও তাঁর সঙ্গী দুই ভারতীয় পর্বতারোহী সত্যরূপ সিদ্ধান্ত ও নন্দিতা চন্দ্রশেখর। ১৩ জুন এই পর্বতশৃঙ্গ জয় করে নেমে আসার পথে বেস ক্যাম্পে আসার পর তাঁরা খারাপ আবহাওয়ার কবলে পড়েন।

গতকাল রবিবার সকালে অভিযাত্রীদের উদ্ধার করে আনার জন্য হেলিকপ্টার রওনা হয়। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার কারণে হেলিকপ্টার বেস ক্যাম্পে পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়।

দেশের অন্যতম ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান নীলসাগর গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় এ অভিযানের জন্য মুসা ইব্রাহীম গত ২৯ মে ঢাকা থেকে ইন্দোনেশিয়ায় যান। ৭ জুন নাবির থেকে তিন অভিযাত্রীর কার্সটেঞ্জ পর্বতাভিযান শুরু হয়।