মিস ওয়ার্ল্ড হলেন ভারতের সুন্দরী মানসি চিল্লার

39
এমএনএ বিনোদন ডেস্ক : পৃথিবীর সব সুন্দরীদের টেক্কা দিয়ে এবারের ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ ২০১৭ এর মুকুট ছিনিয়ে নিলেন মিস ইন্ডিয়া মানসি চিল্লার।
চীনের সাংহাই শহরে স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতা মিস ওয়ার্ল্ডের ৬৭ তম আসরের গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়। নতুন মিস ওয়ার্ল্ডকে মুকুট পরিয়ে দেন বর্তমান বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি দেল ভালে। ইংল্যান্ডের স্টেফানি হিল ও মেক্সিকোর আন্দ্রেয়া মিজাকে হারান ভারতীয় সুন্দরী।
প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন মেক্সিকোর আন্দ্রেয়া মিজা আর ইংল্যান্ডের স্টেফানি হিল হয়েছেন প্রথম রানার আপ।
জমকালো এই অনুষ্ঠান শুরু হয় চীনের নৃত্যশিল্পীদের নাচ দিয়ে। এ ছাড়া ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ডের প্রতিযোগীদের বিভিন্ন পরিবেশনা মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ড চূড়ান্ত অনুষ্ঠানের মঞ্চকে ঘিরে ছিল কঠোর নিরাপত্তা।
মানসি চিল্লার ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের মেয়ে। তার বয়স ২০ বছর। মানসির মা-বাবা দুজনই চিকিৎসক। মানসি পড়াশোনা করেছেন দিল্লির সেন্ট থমাস স্কুলে। মানসি নিজেও একজন চিকিৎসক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে চান। তাই এখন তিনি সোনেপতের ভগত ফুল সিং গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ ফর ওমেনে এমবিবিএস দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। পাশাপাশি কাজ করছেন মেয়েদের স্বাস্থ্যসচেতনতা বিষয় নিয়ে।
মানসি চিল্লার ছোটবেলা থেকেই নাচের সঙ্গে আছেন। কুচিপুড়ি নাচের শিল্পী মানসি শাস্ত্রীয় নৃত্যে তালিম নিয়েছেন কৌশল্যা রেড্ডির কাছে। মানসির বাবা ডা. মিত্র বসু চিল্লর ডিআরডিওতে গবেষণা করছেন আর মা নীলম চিল্লর বায়োকেমিস্ট্রি বিষয়ে অধ্যাপনা করছেন। মানসির বোন পেশায় আইনজীবী আর ছোট ভাই স্কুলে পড়ছে। আজ মঞ্চের সামনে তাঁরা সবাই এসেছিলেন।
মানসি এর আগে মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় শিরোপা জিতেছিলেন। আর এবার হলেন বিশ্বসুন্দরী।
ভারতীয় এ সুন্দরী মিস ওয়ার্ল্ডের ৬৭তম আসরের ৪০তম স্থান থেকে প্রথমেই উঠে আসেন পঞ্চম স্থানে। তখনই আশা জাগে, মিস ওয়ার্ল্ডের মুকুট উঠতে পারে তার মাথায়।
মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার ইতিহাসে মানসি ছয় নম্বর ভারতীয় হিসেবে সেরার মুকুট জিতলেন। সর্বশেষ ২০০০ সালে ভারতের হয়ে বিশ্বসুন্দরীর খেতাব অর্জন করেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।
মিস ওয়ার্ল্ড হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মানসি জানান, ‘আমি সবসময় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমার জীবনে এতবড় সাফল্য আসবে ভাবিনি। মনে হচ্ছে আমার জন্ম স্বার্থক হয়েছে।’
এবারের মিস ওয়ার্ল্ড চূড়ান্ত তালিকায় এসে পৌঁছে ছিলেন বিশ্বের প্রায় ১২১টি দেশের সুন্দরী। সেখান থেকে এক এক করে বাছাই করা হয় সেরা ৪০। সেরা ৪০-এ ছিলেন মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলাম। কিন্তু সেমিফাইনালে বাদ পড়েন বাংলাদেশের এই সুন্দরী। সেরা ৪০ এরপর সেরা পাঁচ হয়ে মিস ওয়ার্ল্ড হলেন মানসি।
সেমিফাইনাল পর্বে ওঠেন অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ড, ব্রাজিল, কুক আইল্যান্ড, ইংল্যান্ড, ফিজি, ফ্রান্স, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মঙ্গোলিয়া, নেপাল, নিউজিল্যান্ড, ফিলিপাইন, রাশিয়া, স্লোভাকিয়া ও সাউথ আফ্রিকার প্রতিযোগী।
‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’র অন্যতম আয়োজক প্রতিষ্ঠান ‘অন্তর শোবিজের’ চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সারা বিশ্বের ১২১টি দেশের প্রতিযোগিদের মধ্যে জেসিয়া ইসলাম সেরা চল্লিশে ছিলেন। প্রথমবারের মতো এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে এই অবস্থানে থাকাটা আশাব্যঞ্জক।’