মেয়েদের জন্য ৫টি বিখ্যাত প্রসাধনী

177

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : মেয়েদের রুপচর্চায় প্রসাধনী একটি অত্যবশকীয় সামগ্রী। আর রুপচর্চার জন্য বিখ্যাত প্রসাধনী ব্যবহার করাই শ্রেয়। এবারে কয়েকটি বিশ্ব বিথ্যাত প্রসাধনী সামগ্রী নিয়ে এ বিশেষ প্রতিবেদন তৈরি করেছেন- মোসাম্মৎ সেলিনা হোসেন

নিয়মিত দিনে কতবার নিজেকে আয়নায় দেখেন? একবার? দু’বার? কি তারো বেশি? নিজের সৌন্দর্য্যকে ধরে রাখার প্রচেষ্টা কম-চিকন আমাদের সবার-ই আছে । তাইতো কত ধরণের প্রসাধনী আমরা ব্যববার করি। যুগ যুগ ধরে মানুষ নিজের ত্বকের যত্ন নিয়ে আসছে সৌন্দর্য্য ধরে রাখার জন্য। বিশেষ করে মেয়েরা। বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী সামগ্রী ছাড়া তাদের দিনই কাটে না । প্রসাধনীর ব্যবহার শুধু ত্বক-কে ফ্রেশ রাখতেই নয়, বরং বিভিন্ন মেকআপ ব্যববার করে আমরা সুন্দর হতে চাই। তাই জেনে নিন বিশ্বে এখন কোন প্রসাধনীর ব্র্যান্ড গুলো মানে ও গুণে সেরার পর্যায়ে রয়েছে। এর মধ্যেই আপনার পছন্দের ব্র্যান্ড পেয়ে যেতে পারেন-

ওলে (Olay) : ওলে প্রক্টার অ্যান্ড গ্যাম্বল (Procter & Gamble) নামে অ্যামেরিকার একটি মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানির বিখ্যাত কসমেটিকস ব্র্যান্ড। এই ব্র্যান্ডের প্রসাধনী সামগ্রীর পরিসর অনেক বড়। ক্লিনজার, ময়শ্চারাইজার, লোশন, বডি ওয়াশ, হেয়ার রিমুভিং ক্রিমসহ নানা ধরণের প্রসাধনী সামগ্রী আছে এই ব্র্যান্ডের। বিভিন্ন ধরণের ত্বকের ধরনের উপর ভিত্তি করে ওলে শুরু থেকেই নানা ধরণের প্রসাধনী সামগ্রী বের করেছে। এই ব্র্যান্ডের প্রসাধনী সামগ্রীর দাম পড়বে ২৫০-৩৫০০ টাকা পর্যন্ত।

আর্টিস্ট্রি (Artistry) : ত্বকের সুরক্ষায় নাম করে নেয়া আরেকটি বিখ্যাত সেরা প্রসাধনীর ব্র্যান্ড হল আর্টিস্ট্রি। ত্বকের যত্নের জন্য এই ব্র্যান্ডের আছে নানা ময়শ্চারাইজার, টোনার, ক্লিনজার, আই ক্রিম, লিপ ক্রিম ও বিভিন্ন ধরণের মাস্ক। আর্টিস্ট্রির অ্যান্টি-এজিং প্রোডাক্ট গুলো বেশ কার্যকর। আর্টিস্ট্রির আছে অনেক ধরণের মেকআপ সামগ্রীও যেমন আই পেন্সিল, মাশকারা, ব্রোঞ্জার, ফাউন্ডেশন ইত্যাদি। বর্তমানে সেরা ৫-এ এই ব্র্যান্ডের অবস্থান বলেও সেরা ৩-এ চলে আসতে এই ব্র্যান্ডের বেশি সময় লাগবে না । বর্তমানে বিশ্বের ১০৮ কি দেশে আর্টিস্ট্রির প্রসাধনী সামগ্রী পাওয়া যায়। এই ব্র্যান্ডের প্রসাধনী সামগ্রীর দাম পড়বে ৯০০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত।

ক্লিনিক (Clinique) : ক্লিনিক হল এস্টে লডার কম্পানিজ এর একটি বিখ্যাত প্রসাধনীর ব্র্যান্ড। ক্লিনিকের ত্বক ও চুলের জন্য যেমন প্রোডাক্ট আছে তেমনি মেকআপ সামগ্রী ও সুগন্ধীও আছে। ছেলে মেয়ে উভয়ের জন্য ক্লিনিকের আছে নানা প্রসাধনী সামগ্রী। মেকআপ বিশেষ করে ত্বকের যত্নের জন্য ক্লিনিকের প্রসাধনী সামগ্রী গুলোর কোন জুরি নেই। কেননা এই ব্র্যান্ডের প্রতিটি প্রোডাক্ট প্রতিদেশের জলবায়ুর উপর ভিত্তি করে বানানো হয়। এছাড়া কঠোর পরীক্ষার মাধ্যমে কার্যকারিতা ও মান যাচাই করার পরই এই প্রোডাক্ট গুলো বাজারে ছাড়া হয়। এই ব্র্যান্ডের প্রসাধনী সামগ্রীর দাম পড়বে ১০৪০-৪৮০০ টাকা পর্যন্ত।

নিউট্রোজিনা (Neutrogena) : ১৯৩০ সালে শুরু হয়েছিল নিউট্রোজিনা’র যাত্রা। ত্বক ও চুলের যত্নের জন্য নিউট্রোজিনা’র তৈরী প্রসাধনী সামগ্রী শুধু বিউকি ব্যাক্সপার্টরা-ই নয়, ডার্মাটোলজিস্টরা-ও ব্যববার করার পরামর্শ দেয়। নিউট্রোজিনা’র কসমেটিকস প্রায় ৭০ টির’ও বেশি দেশে পাওয়া যায়। নিউট্রোজিনা’র আছে বিশেষ কিছু পণ্য যা ব্রণের ট্রিটমেন্টের জন্য অধিকতর উপকারী। এই ব্র্যান্ডের ময়শ্চারাইজার, ফেস ওয়াস, টোনার, ক্লিনজার বা ফাউন্ডেশন, কনসিলার, লিপস্টিক বা প্রাইমার যা-ই কিনুন কেন একবার ব্যবহার করা শুরু করলে ছাড়তে চাইবেন না । ছেলেদের জন্য’ও নিউট্রোজিনা বেশ কিছু পণ্য বানিয়ে থাকে। নিউট্রোজিনা’র প্রসাধনী সামগ্রীর দাম পড়বে ১৪০-২০৮০ টাকা পর্যন্ত।

লানকম (Lancome) : ১৯৩৫ সালে আর্মাল্ড পেটিজিনের হাতে শুরু হওয়া ব্র্যান্ড লানকম ল’রিয়াল লাক্সারি প্রোডাক্ট-এর একটি বিভাগ যা ত্বকের যত্নের পণ্য, সুগন্ধী ও মেকআপ সামগ্রী তৈরী করে থাকে। লানকম বিশেষ করে তাদের মেকআপ সামগ্রী ও সুগন্ধীর জন্য পরিচিত। এর সবচেয়ে বিখ্যাত পণ্য হল মাশকারা যার নাম হিপসোজ (Hypnôse)। বর্তমানে লানকমের ব্র্যান্ড ভ্যালু ৬.২ বিলিয়ন ডলার। এর প্রসাধনী সামগ্রীর দাম পড়বে ১২০০-৪০০০ টাকা পর্যন্ত।