রূপচর্চায় গোলাপের ব্যবহার এবং উপকারিতা

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং রূপচর্চায় গোলাপের কোনো জুড়ি মেলা ভার। মুখের ত্বক, ঠোঁট, চোখ সব কিছুর জন্যই গোলাপের আছে নানা ব্যবহার। আসুন আজ আমরা জেনে নিই এক তোড়া গোলাপ উপহার পেলে, সেটা কি কি কাজে লাগানো যায়। আর সেটা আপনি কীভাবে করবেন সে ব্যাপারে পরামর্শ দিচ্ছেন রূপ বিশেষজ্ঞ মোসাম্মৎ সেলিনা হোসেন।

এক তোড়া গোলাপ শুধু কাউকে উপহার দেয়ার জন্য না। গোলাপ নিয়ে চিন্তা করতে পারেন আরো নানাভাবে। এটা তো জানা কথা, গোলাপকে ফুলের রানী বলা হয়। আর রানী উপাধি তো আর এমনে এমনে দেয়া হয় না। তার আসলেই আছে নানা গুণ।

ঠোঁটের রঙ কালো বলে অনেকেরই চিন্তা থাকে। গোলাপের পাপড়ি পিষে এর সাথে মেশান দুধের সর এবং মধু। মিশ্রণটি ঠোঁটে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ঠোঁট হয়ে উঠবে গোলাপি এবং তুলতুলে।

ত্বকে মসৃণ ভাব আনতে গোলাপ জলের জুড়ি নেই। গোলাপে থাকা তেল ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। যাদের ত্বক খুব স্পর্শকাতর, তাদের জন্য গোলাপজল বেশি উপকারী

গোলাপের আছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য। ফলে ব্রণের যন্ত্রণা দূর করতে গোলাপ জল ব্যবহার করতে পারেন। মেথি পেস্ট এবং গোলাপ জল মিশিয়ে তৈরি করতে পারেন ফেস প্যাক যা দারুণ কাজ করবে। ত্বকে জ্বালাপোড়া, লালচে ভাব, একজিমা এবং সোরিয়াসিসের সমস্যা কমাতেও কাজে লাগে এটি।

গোলাপ জল প্রাকৃতিক টোনার হিসেবে কাজ করে। দিন শেষে বাড়ি ফিরে গোলাপ জলে ভিজিয়ে নিন এক টুকরো তুলো এবং ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। এতে মেকআপ তোলা এবং মুখ পরিষ্কারের কাজটাও হয়ে যাবে।

অ্যাসট্রিনজেন্ট ব্যবহারের কথা ভাবছেন? দামী কোম্পানির এই পণ্য কিনতে হবে না। নিয়ম করে প্রতিদিন গোলাপ জলের ঝাপ্টা দিন মুখে। ত্বকের লাবণ্য ঠিক ফেরত আসবে।

চোখের নিচের ডার্ক সার্কেল কমাতে গোলাপ জলে তুলো ভিজিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

মাথার ত্বক চুলকাতে চুলকাতে অতিষ্ঠ আপনি। সেই সাথে বাড়ছে খুশকির যন্ত্রণা? গোলাপ জল মালিশ করতে পারেন। চুলকানি কমে আসবে। শুধু তাই নয়, চুলের বৃদ্ধিও হবে দ্রুত।

রোজ ওয়াটার ও গ্লিসারিন সমপরিমাণ মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ তুলোর সাহায্যে মাথার তালুতে লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট মাসাজ করুন। ৩০ মিনিট পর শ্যাম্পু করুন।

শ্যাম্পু করার পর এক কাপ রোজ ওয়াটার দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। ন্যাচরাল কন্ডিশনার হিসেবে খুব ভালো কাজ করে গোলাপ জল।

যেকোনো ধরনের ত্বকের জন্যই রোজ ওয়াটার ভালো ক্লিনজার। হালকা ফেস ওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এবার এক টেবিল চামচ রোজ ওয়াটারের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা গ্লিসারিন মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে নিন।

চোখ যদি ক্লান্ত, ফোলা ফোলা দেখতে লাগে তবে বরফ ঠাণ্ডা গোলাপ জলে তুলো ভিজিয়ে চোখের ওপর লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। চোখের ফোলা ভাব, লাল ভাব কমে যাবে।

গোলাপ জলের মধ্যে কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ তুলোয় নিয়ে আলতো করে মেক আপ তুলতে পারেন। মেক আপ তোলার পাশাপাশি ত্বকে পুষ্টিও জোগাবে এই মিশ্রণ।

ত্বকের ট্যান দূর করতে দুই টেবিল চামচ ময়দার সঙ্গে লেবুর রস ও গোলাপ জল মিশিয়ে মিহি পেস্ট তৈরি করে নিন। ১৫ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

আমন্ড তেল বা ক্রিমের সঙ্গে রোজ ওয়াটার মিশিয়ে নিয়ে গোটা শরীর ময়শ্চারাইজ করুন। ত্বক যেমন ভালো থাকবে, তেমনই ক্লান্তিও দূর হবে।

x

Check Also

আবরার হত্যার দায়ে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধ করার দাবি

এমএনএ রিপোর্ট : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার দায়ে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধ ...

Scroll Up