রোনালদোর ৪ গোলে পর্তুগালের দাপুটে জয়

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : ইউরো বাছাই পর্বে লিথুনিয়ার বিপক্ষে একাই চার গোল করে পর্তুগালকে দাপুটে জয় এনে দিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। দলকে জেতালেন ৫-১ গোলের ব্যবধানে।

এই চার গোল দিয়ে পর্তুগিজ তারকা সিআর সেভেন এমন এক উচ্চতায় পৌঁছালেন, যেখানে এখনও পর্যন্ত যেতে পারেনি আর কোনো ইউরোপিয়ান কিংবা লাতিন আমেরিকান ফুটবলার।

লিথুয়ানিয়ার মাঠে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচটি ৫-১ গোলে জিতে পর্তুগাল। চার ম্যাচে দুই ড্রয়ের পর টানা দুই জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ইউরোর শিরোপাধারীরা। পাঁচ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ইউক্রেন।

সপ্তম মিনিটে স্পট কিকে পর্তুগালকে এগিয়ে নেন রোনালদো। ডি-বক্সে ডিফেন্ডার পালিওনিসের হাতে বল লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

একটু পর রোনালদোর শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়নি। ২৮তম মিনিটে সমতায় ফেরে গ্রুপের তলানির দল লিথুয়ানিয়া। কর্নারে ভিতোতাসের হেড পোস্টের ভেতরের কানায় লেগে জাল খুঁজে নেয়।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে একের পর এক আক্রমণ করেও গোলের দেখা পায়নি পর্তুগাল। রোনালদো ও ব্রুনো ফের্নান্দেসের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ার পর উইলিয়াম কারভালহোর হেডও খুঁজে পায়নি ঠিকানা।

৫৭তম মিনিটে বের্নার্দো সিলভা গোলরক্ষক বরাবর শট নেওয়ার পাঁচ মিনিট পর ফের এগিয়ে যায় পর্তুগাল। রোনালদোর শট আটকাতে ঝাঁপিয়ে পড়া গোলরক্ষকের গ্লাভসে লেগে বল জালে জড়ায়।

বের্নার্দোর ক্রসে গোলমুখ থেকে পা ছুঁইয়ে ৬৫তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন রোনালদো। জাতীয় দলের হয়ে ইউভেন্তুস তারকার এটি অষ্টম হ্যাটট্রিক। আর ইউরোর বাছাই ও মূল পর্ব মিলিয়ে রেকর্ড ৩৪ গোল হলো পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের।

৭৬তম মিনিটে ডান দিক থেকে বাড়ানো বের্নার্দোর ক্রস থেকেই কোনাকুনি শটে চতুর্থ গোলটি করেন রোনালদো।

পর্তুগালের হয়ে রোনালদোর গোল হলো ৯৩টি। জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করার তালিকায় ৩৪ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের সামনে আছেন কেবল ইরানের আলি দাই (১০৯টি)।

এরপরই রোনালদোকে তুলে গেদেসকে নামান কোচ ফের্নান্দো সান্তোস। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে কারভালহোর শট দূরের পোস্ট দিয়ে জালে জড়ালে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পর্তুগাল।

গ্রুপের অন্য ম্যাচে লুক্সেমবার্গের মাঠ থেকে ৩-১ গোলের জয় নিয়ে ফেরা সার্বিয়া ৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। ৪ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে লুক্সেমবার্গ।

ফুটবলের ইতিহাসে অনেক রথি-মহারথির আগমণ ঘটেছে। পেলে-ম্যারাডোনা-প্লাতিনি-পুসকাস-মালদিনি কিংবা ইয়োহান ক্রুয়েফ। কেউ এই উচ্চতায় পৌঁছাতে পারেননি, যেটা করে ফেলেছেন রোনালদো। প্রথম ইউরোপীয় হিসেবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে রোনালদো করলেন ৯০ প্লাস গোল। লিথুনিয়ার জালে চার গোল দিয়ে এখন তার নামের পাশে শোভা পাচ্ছে ৯৩টি আন্তর্জাতিক গোল।

তবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে গোল করার ক্ষেত্রে রোনালদোর চেয়েও কিন্তু একজন এগিয়ে রয়েছেন। তিনি ইউরোপিয়ান কিংবা লাতিন আমেরিকান নন, একজন এশীয়। ইরানিয়ান কিংবদন্তি আলি দাই। আন্তর্জাতিক ফুটবলে যার গোল সংখ্যা ১০৯টি। অর্থ্যাৎ ইরানিয়ান এই ফুটবলারের চেয়ে এখনও ১৬ গোল পিছিয়ে রয়েছেন সিআর সেভেন।

ইউরোপে ৮৪ গোল নিয়ে দীর্ঘদিন শীর্ষ গোলদাতা ছিলেন হাঙ্গেরি এবং স্পেনের হয়ে খেলা সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ফেরেঞ্চ পুসকাস। তাকে তো আগেই পেছনে ফেলেছেন রোনালদো। এখন তার চোখ কেবলই আলি দাই’র রেকর্ডের দিকে।

বয়স হয়ে গেছে ৩৪। লিথুনিয়ার বিপক্ষে খেলেছেন ক্যারিয়ারের ১৬১তম ম্যাচ। এই বয়সেও রোনালদো মনে হয় যেন ২৫ বছরের তাগড়া যুবক। তার গোল স্কোরিং দক্ষতা দেখলে সেটাই মনে হবে যে কারো। এ নিয়ে দেশের হয়ে আট নম্বর হ্যাটট্রিক করলেন তিনি। সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারে এটা তার ৫৪ নম্বর হ্যাটট্রিক।

ইউরোর বাছাই ও মূলপর্ব মিলিয়ে রেকর্ড মোট ৩৪টি গোলের মালিক হলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। ইউরো বাছাই পর্বেই করেছেন ২৪ গোল। পেছনে ফেলেছেন মিশেল প্লাতিনি এবং রবি কেইনকে। রবি কেইনের গোল সংখ্যা ছিল ২৩টি।

অবিশ্বাস্য বিষয় হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত রোনালদো ভিন্ন ভিন্ন ৪০টি দেশের বিপক্ষে গোল করেছেন। তার ক্যারিয়ারে যে ৯৩টি গোল এসেছে তার মধ্যে ৭৫টিই হচ্ছে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে। বাকি কেবল ১৮টি গোল এসেছে কেবল প্রীতি ম্যাচ থেকে।

x

Check Also

হালকা শীতের পোশাকে হয়ে উঠুন ফ্যাশনেবল

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : এ বছর নভেম্বরের মাঝামাঝিতে হালকা শীতের আমেজ চলে এসেছে। ঢাকায় হালকা ...

Scroll Up