সুবীর নন্দীর মরদেহ আসবে আগামীকাল

এমএনএ রিপোর্ট : সিঙ্গাপুর থেকে সদ্য প্রয়াত জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দীর মরদেহ আনা হচ্ছে আগামীকাল বুধবার। পরিবারে পক্ষ থেকে জানানো হয় আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে তার মরদেহ দেশে আনা হবে।

আজ সুবীর নন্দীর পরিবারের পক্ষে জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের জাতীয় সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন জানান, রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজে আগামীকাল সকালে সুবীর নন্দীর মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছাবে।

বিমানবন্দর থেকে তার মরদেহ ২৫সি গ্রিন রোডের গ্রিন ভিউ অ্যাপার্টমেন্টে আনা হবে। সেখান থেকে বেলা ১১টায় তার মরদেহ সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হবে।

এরপর মরদেহ নেয়া হবে রামকৃষ্ণ মিশনে। পরে দুপুরে সবুজবাগে বরদেশ্বরী কালীমন্দির ও শ্মশানে সুবীর নন্দীর শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

একুশে পদক পাওয়া জনপ্রিয় এ শিল্পী সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে চারটার দিকে না ফেরার দেশে চলে যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।

এর আগে, গত রবিবার সুবীর নন্দীর শারীরিক অবস্থা বেশ সংকটাপন্ন হয়ে ওঠে। গত শনিবার ও রবিবার পরপর দুইদিন হার্ট অ্যাটাক হয় তার। হার্টে চারটা ব্লক ছিল। গত রবিবার সকালে চারটা রিং পরানো হয়েছে।

ঢাকা ও সিঙ্গাপুরে টানা ১৮ দিন হাসপাতালের বিছানায় নিথর হয়ে পড়েছিলেন নন্দিত এ গায়ক। অবশেষে গত ৩ মে চোখ মেলেন ও মেয়ে ফাল্গুনীকে দেখে কাঁদেন। চিকিৎসকরা আশার আলো দেখতে পেয়েছিলেন। প্রিয় শিল্পীর সুস্থ হয়ে ওঠার সংবাদে খুশি হয়েছিলেন ভক্তরাও। এমন স্বস্তির খবরের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ৪ মে ও ৫ মে দুই দফা হার্ট অ্যাটাক হয় সুবীর নন্দীর।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৩০ এপ্রিল ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ)চিকিৎসাধীন অবস্থায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় একুশে পদকপ্রাপ্ত এই সঙ্গীতশিল্পীকে। এর আগে ১৬ দিন রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি।

১৪ এপ্রিল শ্রীমঙ্গলে একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সিলেট থেকে ট্রেনে ঢাকায় ফেরার পথে উত্তরায় কাছাকাছি আসতেই হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে সুবীর নন্দীর। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী ও কন্যা। রাত ১১টার দিকে তাকে সেখান থেকে সরাসরি রাজধানীর সিএমএইচে নেয়া হয়। হাসপাতালটির জরুরি বিভাগে হার্ট অ্যাটাক করেন এই নন্দিত শিল্পী। এরপর তাকে দ্রুত লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়। দীর্ঘদিন ধরে ফুসফুস, কিডনি ও হৃদরোগে ভুগছিলেন সুবীর নন্দী।

নন্দিত কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী ৪০ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে গেয়েছেন আড়াই হাজারেরও বেশি গান। বেতার থেকে টেলিভিশন, তারপর চলচ্চিত্রেও উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান। ১৯৮১ সালে তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘সুবীর নন্দীর গান’ ডিসকো রেকর্ডিংয়ের ব্যানারে বাজারে আসে। তবে চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম গান করেন ১৯৭৬ সালে আব্দুস সামাদ পরিচালিত ‘সূর্যগ্রহণ’ চলচ্চিত্রে।

চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করে চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন তিনি। আর চলতি বছরে সঙ্গীতে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার সুবীর নন্দীকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত করেছে।

x

Check Also

আজ মঙ্গলবারের দিনটি আপনার কেমন যাবে?

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আজ ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার। নতুন সূর্যালোকে আজ মঙ্গলবারের দিনটি আপনার ...

Scroll Up