স্বপ্নের ফাইনালে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান

40

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির স্বপ্নের ফাইনালে টসে হেরে ভারতের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাটিং করছে পাকিস্তান।

আজ রবিবার ওভালে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও আলোচিত দ্বৈরথে টসে জয়লাভ করেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টসে জিতেছেন বিরাট কোহলি এবং অনুমিতভাবেই ফিল্ডিং বেছে নিয়েছেন কোহলি।

বিশ্বব্যাপী কয়েক শত কোটি দর্শক চোখ রাখছেন হাইভোল্টেজ ম্যাচটি। বহুদিন পর আইসিসির সবোর্চ্চ কোনো টুর্নামেন্টে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হওয়ায় ম্যাচ ঘিরে দুই দেশের সমর্থকদের উত্তেজনা তুঙ্গে।

শিরোপার লড়াইয়ে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নেমেছে ভারত। তার মানে হলো উমেশ যাদবকে বেঞ্চেই সময় কাটাতে হচ্ছে। স্পিন অ্যাটাকে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজা রয়েছেন। পেস অ্যাটাকে ভুবনেশ্বর কুমার ও জসপ্রিত বুমরাহকে সাপোর্ট দেবেন হার্দিক পান্ডিয়া।

ফাইনাল ম্যাচে পাকিস্তানও কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষায় যায়নি। ইনজুরি কাটিয়ে মোহাম্মদ আমির একাদশে ফেরায় বাদ পড়েছেন রুম্মান রইস। স্পিন অ্যাটাকে শাদাব খানের সঙ্গে রয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম। অন্যদিকে পেস আক্রমণে আমির ও জুনায়েদ খানের সঙ্গে রয়েছেন এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহকারী হাসান আলি।

গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দেয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে যায় ভারত। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে জিতেই সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় টিম ইন্ডিয়া। সেমিতে বাংলাদেশকে হারিয়ে ফাইনালে উন্নীত হয় বিরাট কোহলির দল।

অন্যদিকে ভারতের কাছে হারের ধাক্কা সামলে দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে পরাজিত করে পাকিস্তান। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় টিম পাকিস্তান। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে বোলারদের দৃঢ়তায় স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে পরাজিত করে সফরাজ আহমেদের দল।

বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট বলেই পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতকে এগিয়ে রাখতেই হয়। দুই দলের মুখোমুখি সাক্ষাতে পাকিস্তান ৭২-৫২ ব্যবধানে এগিয়ে। কিন্তু আইসিসির ইভেন্টে সর্বশেষ ১০ বারের সাক্ষাতে ভারত ৮-২ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে। অবশ্য হিসাবটা যদি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসরকে নিয়ে করা হয় তবে ২-২ এ সমতা বিরাজ করছে। এটিই ভরসা জোগাতে পারে টিম পাকিস্তানকে।

কিন্তু ভরসা পাচ্ছে কোথায় পাকিস্তান! চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ১২৪ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত করেছিল ভারত। যেটি এখন পর্যন্ত চলতি টু্র্নামেন্টের সবচেয়ে একপেশে ম্যাচ। অবশ্য সেই ম্যাচের পর দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডকে টানা তিন ম্যাচে হারিয়ে ফাইনালে ওঠা পাকিস্তান আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান হয়েই মাঠে নামবে।

হাইভোল্টেজ ম্যাচটিতে দুই দলের খেলোয়াড়দের মানসিক পরীক্ষাও হয়ে যাবে। বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি দর্শকের চাপ থাকবে কোহলি-সরফরাজদের ওপর। সেই চাপকে যারা জয় করতে পারবে তারাই হাসবে বিজয়ীর হাসি।

তবে মুখোমুখি লড়াইয়ে এখন পর্যন্ত এগিয়ে পাকিস্তান। এছাড়া দেশটির তরুণ পেসাররা ভালো পারফর্ম করায় এবং তলানি থেকে ফাইনালে ওঠার আত্মবিশ্বাসকে পুঁজি করে ভালো একটা ফাইট দেবার জন্য যে পাকিস্তান প্রস্তুত তা আর বলতে হয় না।

ভারতীয় একাদশ:
রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটকিপার), কেদার যাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার ও জাসপ্রিত বুমরাহ।

পাকিস্তানের একাদশ:
আজহার আলি, ফখর জামান, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটকিপার), ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আমির, শাদাব খান, হাসান আলি ও জুনায়েদ খান।