Don't Miss
Home / খেলাধূলা / ক্রিকেট / স্মিথের নৈপূণ্যে অ্যাশেজ দখলে রাখল অস্ট্রেলিয়া

স্মিথের নৈপূণ্যে অ্যাশেজ দখলে রাখল অস্ট্রেলিয়া

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : স্টিভ স্মিথের মহাকাব্যিক দ্বিশতকে আগেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। বাকি দায়িত্বটা সঠিকভাবেই সারলেন বোলাররা। এতে করে চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিল অজিরা। ১৮৫ রানের বিশাল ব্যবধানে ম্যানচেস্টার টেস্ট জিতে অ্যাশেজ দখলে রাখল অজিরা। ৫ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে তারা।

গতবার দেশের মাটিতে সিরিজ জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। ফলে এবার পঞ্চম ও শেষ টেস্ট হারলেও শিরোপা হাতছাড়া হচ্ছে না।অ্যাশেজ দখলেই থাকছে।

এ যেন সেই আগের দাপুটে অস্ট্রেলিয়া। কিছুদিন আগেই প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে ভেসেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসবাসী। কিন্তু বিশ্ব ক্রিকেটের ‘নতুন রাজা’দের তাদের ঘরের মাটিতেই মর্যাদার অ্যাশেজে রীতিমত নাকানিচুবানি খাইয়ে নিজেদের পূর্বসূরিদের দাপুটে ক্রিকেটের স্মৃতি মনে করিয়ে দিলেন স্মিথ-হ্যাজেলউডরা। সেই সঙ্গে তাদের ১৮ বছরের অপেক্ষারও অবসান হলো। ২০০১ সালের পর এই প্রথম অ্যাশেজ ধরে রেখে বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করলো টিম পেইনের দল।

চলতি অ্যাশেজের চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডকে ১৮৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সফরকারীরা। স্বাগতিক ইংলিশরা শেষ ম্যাচ জিতলেও সিরিজ ড্র হবে। ফলে আগেরবার ঘরের মাটিতে জেতা অ্যাশেজ শিরোপা এবার আর ইংলিশদের ফেরত দিতে হচ্ছে না অজিদের।

গতকাল রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) ম্যানচেস্টারে অজিদের ছুড়ে দেওয়া ৩৮৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৯৭ রানেই গুটিয়ে গেছে ইংল্যান্ড। স্কোর বোর্ডে কোনো রান তোলার আগেই কামিন্সের তোপে ২ উইকেট হারিয়ে বসে ইংলিশরা। এরপর ৬৬ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দিয়েছিলেন ডেনলি (৫৩) ও জেসন রয় (৩১)। কিন্ত এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের মিছিল ঠেকাতে পারেননি আর কেউই।

স্বাগতিকদের ব্যাটিং লাইনআপের মূল সর্বনাশ করেছেন প্যাট কামিন্স। একাই ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন এই অজি পেসার। এছাড়া জস হ্যাজেলউড ও নাথান লায়ন ঝুলিতে পুরেছেন ২টি করে উইকেট। ১টি করে উইকেট গেছে মিচেল স্টার্ক ও মার্নাস লাবুশানের দখলে।

এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ১৮৬ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। চলতি অ্যাশেজে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা স্টিভেন স্মিথ এই ইনিংসেও ব্যাট হাতে ইংলিশ বোলারদের কপালের ঘাম ছুটিয়ে ছেড়েছেন। তার ৮২ রানের ইনিংসটিই অজিদের বিশাল লিড এনে দিয়েছে। অরথচ একসময় ৪৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল অজিরা। কিন্তু জোফরা আর্চার ও স্টুয়ার্ট ব্রডের গোলা স্মিথকে কাবু করতে পারেনি।

প্রথম ইনিংসে ২১১ রানের অসাধারণ ইনিংস আর দ্বিতীয় ইনিংসে ৮৭ রান করে স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন স্মিথ।

স্কোর :

অস্ট্রেলিয়া : ৪৯৭/৮ (ডি.)- স্মিথ ২১১, পেইন ৫৮, স্টার্ক ৫৪* (ব্রড ৯৭/৩, লিচ ৮৩/২) ও ১৮৬/৬ (ডি.)- স্মিথ ৮২ (আর্চার ৪৫/৩)

ইংল্যান্ড : ৩০১/১০- বার্নস ৮১, রুট ৭১ (হ্যাজেলউড ৫৭/৪, কামিন্স ৬০/৩) ও ১৯৭/১০- ডেনলি ৫৩ (কামিন্স ৪৩/৪)

ফলাফল : অস্ট্রেলিয়া ১৮৫ রানে জয়ী

সিরিজ : অস্ট্রেলিয়া ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে

ম্যাচ সেরা : স্টিভ স্মিথ

x

Check Also

কারাগার থেকে মুক্ত হলেন শিপ্রা দেবনাথ

এমএনএ জাতীয় রিপোর্টঃ কক্সবাজার কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন মেজর অবসরপ্রাপ্ত সিনহা ...

Scroll Up
%d bloggers like this: