হবিগঞ্জের মেয়র গউছ আবারও বরখাস্ত

79

সিলেট ব্যুরো প্রতিনিধি : নিজ দায়িত্ব গ্রহণের ১০ দিনের মাথায় হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জিকে গউছকে আবারও বরখাস্ত করা হয়েছে।

আজ রবিবার স্থানীয় সরকারের এক আদেশে তাকে বরখাস্ত করা হয় হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম জানান।

সিলেট সিটি সরপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও রাজশাহী সিটির করপোরেশনের মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকেও আজ রবিবার ফের বরখাস্ত করা হয়েছে, কয়েকঘণ্টা আগে যারা দায়িত্বে ফেরেন।

সাবিনা আলম বলেন, সুনামগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় বোমা হামলার মামলায় অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি হওয়ায় তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে আদেশে জানানো হয়েছে।

আজ রবিবার দুপুরে এ সংক্রান্ত একটি আদেশ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

নির্বাচিত হওয়ার পর গত ২৩ মার্চ দায়িত্ব গ্রহণ করেন কারাগার থেকে নির্বাচিত জিকে গউছ।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে গ্রেনেড হামলায় সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়াসহ পাঁচজন নিহতের মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি গউছ। ওই অভিযোগপত্র আদালতে গৃহীত হওয়ার পর ২০১৪ সালের ২৮ ডিসেম্বর গউছ হবিগঞ্জের আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এরপর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

কারাগারে থেকেই ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিজয়ী হন তিনি। ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি প্যারোলে মুক্ত হয়ে শপথ গ্রহণ করেন। ওই বছরের ২০ মার্চ তাকে আবার সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

৭৩৯ দিন কারাভোগের পর গত ৪ জানুয়ারি জামিনে মুক্তি পান মেয়র গউছ। এরপর শুরু হয় আইনি প্রক্রিয়া।

গত ২৩ জানুয়ারি গউছকে সাময়িক বরখাস্ত আদেশ স্থগিত করে হাই কোর্ট। ৩০ জানুয়ারি শুনানি শেষে চেম্বার আদালতও হাই কোর্টের আদেশ বহাল রাখে। এরপর ২০ মার্চ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় উচ্চ আদালতের আদেশ প্রতিপালনের জন্য চিঠি পাঠায়।

এদিকে, সুনামগঞ্জে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় বোমা হামলায় মামলায় দেওয়া সম্পূরক অভিযোগপত্র গত ২২ মার্চ গ্রহণ করেছে আদালত। ওই অভিযোগপত্রে তাকে আসামি করা হয়েছে।

জি কে গউছ বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক।