২৭৩০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

এমএনএ রিপোর্ট : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২ হাজার ৭৩০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা দিয়ে এর নীতিমালা যথাযথভাবে মেনে চলতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আপনারা নীতিমালা অনুযায়ী সব নির্দেশনা পূর্ণ করতে পেরেছেন বলে এমপিওভুক্ত হয়েছেন। কাজেই এটা ধরে রাখতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ যদি এটা ধরে রাখতে ব্যর্থ হয়, তার এমপিওভুক্তি বাতিল হবে। কারণ এমপিওভুক্ত হয়ে গেছে- বেতন তো পাবই, ক্লাস করানোর দরকার কী, পড়ানোর দরকার কী, এ চিন্তা করলে কিন্তু চলবে না।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার বিকেলে তার গণভবনে নতুন করে এমপিওর তালিকাভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা উপলক্ষ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি আজ নতুন করে ২ হাজার ৭ শ ৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করলাম। একটি নীতিমালা করে নিয়ে যাচাই-বাছাই করে তারপর এ তালিকাটি তৈরি হয়েছে।’

তিনি বলেন, আমাদের কথা হচ্ছে আমাদের নীতিমালার যে নির্দেশনাগুলো রয়েছে, যারা সে নির্দেশনা পূরণ করতে পারবেন এবং সে স্কুলগুলো, যেগুলোর আসলে প্রয়োজন আছে সেটা বিবেচনা করেই আমরা এমপিওভুক্ত করব। কাজেই যারাই এমপিওভুক্তি চান তাদের এ নির্দেশনা মানতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সবাইকে মনে রাখতে হবে আমরা করে দিচ্ছি ঠিকই কিন্তু নীতিমালাগুলো পূর্ণ করতে হবে এবং সেটা অব্যাহত রাখতে হবে। যদি এমপিওভুক্তির এ সুযোগটা অব্যাহত রাখতে চান।’

২ হাজার ৭৩০ এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪৩৯টি নিন্ম-মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৯৯৫টি মাধ্যামিক বিদ্যালয়, ৯৩টি কলেজ, ৫৬টি ডিগ্রি কলেজ, ৫৫৭টি মাদ্রাসা এবং ৫২২টি কারিগরি শিক্ষা ইনস্টিটিউশন রয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন এবং শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসেইন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

x

Check Also

বৃহত্তর আন্দোলনের পথে পরিবহন শ্রমিকরা

এমএনএ রিপোর্ট : সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ কার্যকর হয়েছে ১ নভেম্বর থেকে। প্রথম দুই সপ্তাহ ...

Scroll Up