ওয়াশিংটন ডিসির কালোরামায় ৩৩ কোটি ৭৭ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৫ টাকা ব্যয় করে এই বাড়ি ইজারা নিয়েছেন বারাক ওবামা। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

বারাক ওবামার নতুন বাড়ি!

এমএনএ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে বারাক ওবামার মেয়াদ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ বছর শেষে বিশ্বের

ওয়াশিংটন ডিসির কালোরামায় ৩৩ কোটি ৭৭ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৫ টাকা ব্যয় করে এই বাড়ি ইজারা নিয়েছেন বারাক ওবামা। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

ওয়াশিংটন ডিসির কালোরামায় ৩৩ কোটি ৭৭ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৫ টাকা ব্যয় করে এই বাড়ি ইজারা নিয়েছেন বারাক ওবামা। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

ক্ষমতাধর এই প্রেসিডেন্টকে ছেড়ে দিতে হবে হোয়াইট হাউস। কিন্তু এই সাদা বাড়ি ছেড়ে যাবেন কোথায় প্রেসিডেন্ট? সঙ্গে ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা ও কন্যা সাশা-মালিয়া? এই পরিবার নিয়ে কি তাহলে বাপের বাড়ি যাবেন ওবামা! না, বাপের বাড়ি নয়। পুরো পরিবারকে নিয়ে থাকবেন ওয়াশিংটন ডিসিতেই। ছোট মেয়ের পড়ালেখার কথা ভেবে ওবামা দম্পতি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আর এ কারণেই কালোরামায় ৩৩ কোটি ৭৭ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৫ টাকা (৪৩ লাখ ডলার) ব্যয় করে ইজারা নিয়েছেন একটি নতুন বাড়ি।

হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর এই ঘরে ঘুমাতে হবে ওবামাকে। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

               হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর এই ঘরে ঘুমাতে হবে ওবামাকে। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

পলিটিকো ডট কমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৮ হাজার ২০০ বর্গফুটের ওই বাড়িতে আছে নয়টি শোয়ার ঘর, আলাদা প্রসাধন কক্ষ, আটটি গোসলখানা, বিনোদনের জায়গা ও বাগান। ১৯২৮ সালে নির্মাণ করা এই বাড়িটির রান্নাঘরও ঝকমারি। ছয়টি বার্নার স্টোভ আছে এতে। আছে গৃহপরিচারকদের জন্য আলাদা ঘর।

মেয়ে মালিয়া ও সাশার আনন্দময় সময় কাটানোর ঘর। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

                   মেয়ে মালিয়া ও সাশার আনন্দময় সময় কাটানোর ঘর। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট ওবামা সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের প্রেস সেক্রেটারি জো লকহার্টের কাছ থেকে ওই বাড়িটি ইজারা নিয়েছেন। বাড়িটির ওপরের তলায় রয়েছে একটি অফিস ঘর।

মালিয়া-সাশার কোনো বন্ধু বেড়াতে এলে এই ঘরেই তাদের থাকতে দেওয়া হবে। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

মালিয়া-সাশার কোনো বন্ধু বেড়াতে এলে এই ঘরেই তাদের থাকতে দেওয়া হবে। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

অবসর সময়ে যেখানে বসে আত্মজীবনী লিখবেন ওবামা। শরীরচর্চার ঘর ছাড়াও বাড়িটিতে কাঠের মেঝেসহ একটি খাবার ঘর রয়েছে, যেটি বিনোদনস্থল হিসেবে ব্যবহারও করা যেতে পারে। তবে ওবামা তা করবেন কি না, পরিবারের ব্যয় বিবেচনা করেই সে সিদ্ধান্ত নেবেন। কারণ, তখন ওবামা প্রেসিডেন্ট হিসেবে সরকারি বেতন আর পাবেন না। তবে তিনি সিক্রেট সার্ভিস প্রোটেকশন নেবেন। বাড়িটিতে একটি বার ও ওয়াইন রাখার আলাদা ঘর রয়েছে। দুটি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থাও আছে বাড়ির সামনে।

এখানে বসেই সকালের নাশতা করবে ওবামা পরিবার। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

                  এখানে বসেই সকালের নাশতা করবে ওবামা পরিবার। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

জমকালো এই বাড়ির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে এর অবস্থান। এখান থেকে মাত্র কয়েক মিনিটের দূরত্বে রয়েছে ওয়াশিংটন ডিসি। ছায়াসুনিবিড় এই এলাকায় একসময় সাবেক প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট থাকতেন।

অভ্যর্থনা কক্ষ। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

                                                       অভ্যর্থনা কক্ষ। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

ডোনাল্ড রামসফেল্ডও পেন্টাগনে কাজ করার সময় এই কালোরামার বাসিন্দা ছিলেন। আর ওবামার এই বাড়ির ঠিক উল্টো দিকেই রয়েছে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতের বাসভবন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে গেলে হিলারি ক্লিনটনও হবে বারাক ওবামার প্রতিবেশী।

ওবামার নতুন বাড়ির নতুন একটি প্রসাধন কক্ষ। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

                         ওবামার নতুন বাড়ির একটি প্রসাধন কক্ষ। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

ছোট মেয়ে সাশার স্কুলের পড়াশোনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই বাড়িতেই থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। ১৪ বছর বয়সী সাশা স্থানীয় সিডওয়েল ফ্রেন্ডস স্কুলে পড়ালেখা করে। সেখানে তার বার্ষিক খরচ ৩০ লাখ ৯১ হাজার ৮২৪ টাকা (৩৯ হাজার ৩৬০ ডলার)। আর হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর বড় মেয়ে মালিয়া হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাবেন।

ওবামার নতুন বাড়ির নতুন খাবার ঘর। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

                                  ওবামার নতুন বাড়ির নতুন খাবার ঘর। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

x

Check Also

বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নন, আ’লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল

এমএনএ রিপোর্ট : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকাণ্ডে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর ...

Scroll Up