ইফতারে খেতে পারেন হালকা খাবার

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : আসছে রমজান মাস। ইফতারের সময় খাবারের টেবিলে থাকবে ছোলা, মুড়ি, পেঁয়াজু, হালিম ইত্যাদি। এসব ইফতারির সঙ্গে হালকা কিছু খাবারও খেতে পারেন। তেমন কয়েকটি পদের রেসিপি দিয়েছেন -রন্ধনশিল্পী মোসাম্মৎ সেলিনা হোসেন
ম্যাঙ্গো আইস টি
উপকরণ: টি ব্যাগ ২টি, বরফ কুচি ২ চা-চামচ, পাকা আম ১টি, চিনি স্বাদমতো ও পানি পরিমাণমতো।
প্রণালি: পাকা আম কুচি করে কেটে কিছুটা রস করে নিন। এবার পানিতে টি ব্যাগ দিয়ে এতে চিনি, আমের রস ও কুচি দিন। সবশেষে ওপরে বরফ কুচি দিয়ে ঠান্ডা পরিবেশন করুন।
সানসেট
উপকরণ: আনারস ১টি ছোট, কমলা ২টি, রুহ আফজা বা এ রকম পানীয় ১ টেবিল চামচ, বিট লবণ এক চিমটি, পানি ও চিনি স্বাদমতো, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, বরফ কুচি পরিমাণমতো এবং পরিবেশনের জন্য লেবু ও পুদিনাপাতা।
প্রণালি: প্রথমে আনারস কেটে এর সঙ্গে প্রয়োজনমতো পানি মিশিয়ে ব্লেন্ড করে ছেঁকে নিন। কমলার খোসা ছাড়িয়ে আলাদাভাবে রস করে নিতে হবে। এবার বরফ ও পরিবেশনের উপকরণ বাদে বাকি সব একসঙ্গে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে পানি মিশিয়ে নিন। গ্লাসে ঢেলে ওপরে বরফ কুচি ও পুদিনাপাতা দিয়ে পরিবেশন।
আনারকলি হালুয়া
উপকরণ: ছানা ১ কাপ, ডিম ৩টি, গুঁড়ো দুধ আধা কাপ, গুঁড়ো চিনি দেড় কাপ, এলাচি গুঁড়ো ১ চা-চামচ, ঘি ৪ টেবিল চামচ, কাজুবাটা ২ টেবিল চামচ, পাইনাপেল এসেন্স আধা চা-চামচ ও পেস্তা কুচি ১ টেবিল চামচ।
প্রণালি: পেস্তা, গুঁড়ো দুধ, ঘি বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। প্যানে ঘি গরম করে ছানা দিয়ে মাঝারি আঁচে নাড়াচাড়া করতে হবে। সাত-আট মিনিট পর দুধ দিতে হবে যখন হালুয়া প্যানের তলা ছেড়ে আসবে। চুলা থেকে নামিয়ে পছন্দমতো আকারে কেটে নিন।
লেবুর শরবত
উপকরণ: ঘন চিনির সিরা ৪ টেবিল চামচ বা স্বাদ অনুযায়ী, লেবুর রস ৩ টেবিল চামচ, পুদিনা পাতা কুচি ১০টি, পানি ২৫০ মিলিমিটার, বরফকুচি পরিমাণমতো।
প্রণালি: লেবুর রস ছেঁকে নিয়ে সমস্ত উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। পরিবেশনের আগে নিজের মনের মতো করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ঠান্ডা ঠান্ডা লেবুর শরবত।
তরমুজের শরবত
উপকরণ: মাঝারি আকারের তরমুজ ১টি, পুদিনা পাতা ১৬টি, লবণ ১ চা-চামচ, ভাজা জিরার গুঁড়া ২ চা-চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ ও চিনি স্বাদমতো।
প্রণালি: তরমুজ টুকরো (কিউব) করে কেটে বিচি ছাড়িয়ে নিন। পুদিনা পাতা আলাদা করে ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এবার সব উপকরণ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে তারের চালনি বা স্ট্রেইনার দিয়ে ছেঁকে বরফকুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।
কাঁচা আমের শরবত
উপকরণ : কাঁচা আম – বড় ১ টি, চিনি – ৫-৬ টেবিল চামচ, গোল মরিচের গুড়া – ১/২ চা চামচ, বীট লবন -১/২ চা চামচ, কাঁচা মরিচ – ২ টি, লবন -১/২ চা চামচ, পানি – আনুমানিক ২ ও ১/২ কাপ
প্রণালি : আমের খোসা ছিলে ধুয়ে ৬-৮ টুকরা করে কেটে আমের আটি ফেলে দিন। প্যান এ পানি গরম করে আম সিদ্ধ করে ব্লেন্ডার এ দিয়ে সব উপকরণ মিশিয়ে একসাথে ব্লেন্ড করুন। বরফ দিয়ে পরিবেশন করুন।
যে কোনো ফলের শরবত তৈরী করার ৩০ মিনিটের মধ্যেই গ্রহণ করার চেষ্টা করবেন। তাহলে ফলের সম্পুর্ণ ভিটামিন সহ অন্যান্য উপকারী উপাদানগুলি আপনার কাজে লাগবে। যদি ৩০ মিনিটে গ্রহণ না করেন, তাহলে অবশ্যই এয়ার টাইট কন্টেইনারে সংগ্রহ করে রাখবেন এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রহণ করবেন। ২৪ ঘন্টা পরে ফলের শরবত গ্রহণ না করাই শ্রেয়।
টক-ঝাল-মিষ্টি আনারসের জুস
উপকরণ: আনারসের রস ২ কাপ, ঠান্ডা পানি ২ কাপ, চিনি সিকি কাপ অথবা স্বাদমতো, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ২ চা-চামচ অথবা স্বাদমতো ও বরফ কুচি পরিমাণমতো।
প্রণালি: আনারসের খোসা ফেলে লম্বালম্বিভাবে দুই টুকরা করে ফেলুন। মাঝখানের শক্ত অংশ ফেলে দিন। এবার চামচ দিয়ে কুড়িয়ে নিয়ে ২ টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে ১ থেকে ২ ঘণ্টা রেখে দিন। মরিচ লম্বালম্বি চিকন করে ৪ ফালি করুন। বিচি ফেলে দিয়ে মিহি কুচি করুন। এবারে তারের চালুনি দিয়ে আনারস ও চিনির মিশ্রণ ছেঁকে নিন। সমস্ত উপকরণ একত্রে মিশিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।
কোকোনাট কুলফি
উপকরণ: কোরানো নারিকেল ১টি (মাঝারি)। দুধ আধা লিটার। কনডেন্সড মিল্ক ২,৩ টেবিল-চামচ (ইচ্ছা)। চিনি স্বাদ অনুযায়ী। লবণ ১ চিমটি।
প্রনালি: দুধ ফুটে উঠলে নামিয়ে নিন, ঘন করার দরকার নেই। দুধ কুসুম গরম থাকতে বা ঠাণ্ডা করে সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। এবার অর্ধেক ব্লেন্ড করা নারিকেলে খুব ভালো করে চিপে তুলে ফেলুন। বাকি অর্ধেক রেখে দিন। অল্প অল্প নারিকেল থাকলে টেস্টি হয়। আবার এক, ‍দুই মিনিট ব্লেন্ড করে আইসক্রিমের বক্সে ঢালুন। চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে দিন।
পরিবেশন: ফ্রিজ থেকে বের করে কিউব করে কেটে আবারও কিছু সময়ের জন্য ফ্রিজে রাখুন। এক, দুই ঘণ্টা পরে পরিবেশন করুন দারুন স্বাদের কোকোনাট কুলফি ।
কুইন অফ পুডিং
উপকরণ: মাখন ১ টেবিল চামচ, তরল দুধ ২৫০ মিলিলিটার, চিনি স্বাদমতো, লেবু ১টি, ডিম ২টি, ব্রেড ক্রাম্ব ১ কাপ, যেকোনো জ্যাম ৩ টেবিল চামচ, ভ্যানিলা ফ্লেভার ২ ফোঁটা।
প্রণালি: প্রথমে দুধের সঙ্গে মাখন ও স্বাদমতো চিনি মিশিয়ে জ্বাল দিন। দুধ ফুটে উঠলে হালকা ঠান্ডা না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এবার এতে দুটি ডিম থেকে আলাদা করা কুসুম ফেটিয়ে দিয়ে দিন। এরপর এতে মিশিয়ে দিন ব্রেড ক্রাম্ব। ১০ মিনিট রাখুন। এরপর লেবুর রস ও ভ্যানিলা দিয়ে দিন। একটি বেকিং ডিশে ঢেলে ওভেনে ১৬০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে বেক করুন ৩০ মিনিট।
অন্যদিকে ডিমের সাদা অংশ ও এর সঙ্গে পৌনে ১কাপ চিনি দিয়ে বিট করুন ১০ মিনিট। এতে এটি পুরো ফোম হয়ে মেরাং তৈরি হবে। পুডিংটি একটু ঠান্ডা হলে এর ওপর জ্যামের লেয়ার দিয়ে ওপরে ডিমের মেরাং দিয়ে সাজিয়ে আবারও ওভেনে ১৫ মিনিট ১৮০ সেন্টিগ্রেডে বেক করুন। মেরাং বাদামি হলে নামিয়ে ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন।
বাদাম-দই
উপকরণ: টক দই আধা কেজি, সাবু দানা পৌনে ১ কাপ, চিনি স্বাদমতো, বাদাম (নানা রকম) ২ টেবিল চামচ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, বেদানার দানা ২ টেবিল চামচ, শুকনো ফল ১ টেবিল চামচ (ইচ্ছা)।
প্রণালি: সাবু দানা পানিতে ডুবিয়ে সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন। টক দই চিনি দিয়ে ভালোমতো ফেটিয়ে নিতে হবে। এবার এতে সাবু দানা দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে এর ওপরে বাদাম, কিশমিশ ও বাকি সব উপকরণ দিয়ে ঠান্ডা পরিবেশন করুন।
x

Check Also

চিকেন ভেজিটেবল স্যুপ ঘরেই তৈরি করুন

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : যে কোনও শরীর খারাপ বা ঠাণ্ডা লাগা তাড়াতাড়া সারাতে চিকেন ভেজিটেবল ...

Scroll Up