৩৫তম বিসিএসের আরও ১৬০ জনকে নিয়োগের সুপারিশ

এমএনএ রিপোর্ট : ৩৫তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্য থেকে আরও ১৬০ জনকে প্রথম শ্রেণির নন ক্যাডারের বিভিন্ন পদে নিয়োগের সুপারিশ করেছে পিএসসি। আজ রোববার বিকেলে এ সুপারিশ করা হয় ব‌লে গণমাধ্যমকে জানান পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সা‌দিক।

গত ১৭ এপ্রিল প্রথম দফায় আরও ৩৯৮ জনকে প্রথম শ্রেণির নন ক্যাডার প‌দে নি‌য়ো‌গের সুপা‌রিশ করা হয়। এ নি‌য়ে মোট ৫৫৮ জন‌কে প্রথম শ্রেণির নন ক্যাডার প‌দে নি‌য়োগের সুপা‌রিশ করা হ‌লো।

আজ সুপা‌রিশ করা প্রার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সাব–রেজিস্ট্রার পদে নিয়োগ পেয়েছেন। এই সংখ্যা ৪২ জন। এ ছাড়া সমাজসেবা অফিসার পদে ২১জন, সহকারী পরিচালক (ভূ-তত্ত্ব) ১৯জন, উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসার পদে ১৬জন, ইন্সট্রাক্টর (টেক) ইলেকট্রনিক্স পদে ৬জন, ইন্সট্রাক্টর (টেক) কম্পিউটার ৪জন, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের গবেষণা কর্মকর্তা পদে ৫জনসহ সবমিলিয়ে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের ৩৬টি পদে ১৬০জন নিয়োগের সুপারিশ করা হয়।

গত বছরের ১৭ আগস্ট ৩৫তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়। এতে ৫ হাজার ৫৩৩ জন উত্তীর্ণ হন। এর মধ্যে ২ হাজার ১৫৮ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করা হলেও পদস্বল্পতার কারণে ৩ হাজার ৩৫৯ জনকে নন ক্যাডারের জন্য রাখা হয়। গত বছরের নভেম্বরে তাদের নন ক্যাডারে নিয়োগের জন্য প্রথমবারের মতো অনলাইনে আবেদনপত্র নেওয়া হয়। ২ হাজার ৬২৬ জন এতে আবেদন করেন।

২০১৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল পিএসসি। সর্বোচ্চ দুই লাখ ৪৪ হাজার ১০৭ জন প্রার্থী নিয়ে ২০১৫ সালের ৬ মার্চ ৩৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বিসিএস বিধিমালা সংশোধনের পর নতুন নিয়ম ও সিলেবাসে ২০০ নম্বরে দুই ঘণ্টার প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেয়া হয়। প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য ছিল এক নম্বর। আর ভুল উত্তরের জন্য শূন্য দশমিক ৫০ নম্বর কাটা হয়। আগে ১০০ নম্বরে এক ঘণ্টা প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো। ওই বছরের ৮ এপ্রিল প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে পিএসসি, যাতে উত্তীর্ণ হয় ২০ হাজার ৩৯১ জন। ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়, শেষ হয় ১০ অক্টোবর। ২০১৬ সালের ১৩ জানুয়ারি ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হলে তাতে উত্তীর্ণ হন ৬ হাজার ৮৮ জন। আর ২০১৬ সালের ১৭ আগস্ট চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়। চূড়ান্ত ফলাফলে ২ হাজার ১৭৪ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছিল পিএসসি। এর মধ্যে গত ২রা এপ্রিল সরকার ২ হাজার ৭৩জনকে নিয়োগ দিয়েছে।

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, ৩৫তম বিসিএসের নন ক্যাডারে নিয়োগের জন্য ৩০ আগস্ট সব মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় পিএসসি। এ ছাড়া বেশিসংখ্যক প্রার্থী যেন নিয়োগ পায় সে জন্য কোটার প্রার্থী না পাওয়া গেলে সেখানে মেধাবীদের নিয়োগ দেওয়ার প্রস্তাব পাঠানো হয় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে। পরে সেটি মন্ত্রিপরিষদে গেলে কোটা শিথিলের সুপারিশ করা হয়।

২০১০ সাল থেকে বিসিএসের মাধ্যমে নন ক্যাডার পদে নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ জন্য ওই বছরের ১০ মে নন ক্যাডার বিধিমালা, ২০১০ জারি করা হয়। এতে বলা হয়েছে, শূন্য পদের ৫০ শতাংশ বিসিএসে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হবে।

গত ২০১৪ সালের ১৬ জুন জারিকৃত সংশোধিত বিধি অনুসরণ করে প্রথম শ্রেণির নন ক্যাডার পদের পাশাপাশি দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা পদেও নিয়োগের ব্যবস্থা রাখা হয়। তবে পরবর্তী বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত আগের বিসিএস থেকে নন ক্যাডারে নিয়োগ চলে। এই নিয়মে ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত ৩৫তম বিসিএসে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের নিয়োগ চলবে।

পিএসসি কর্তৃক নির্ধারিত তারিখের মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত ১ম শ্রেণির শূন্য পদের তালিকার ভিত্তিতে সুপারিশ চলমান রয়েছে। প্রথম শ্রেণির পদের সুপারিশ সম্পন্ন হলে দ্বিতীয় শ্রেণির পদে সুপারিশ প্রদান করা হবে। ফলাফল পিএসসির ওয়েবসাইট www.bpsc.gov.bd তে পাওয়া যাচ্ছে।

এ বিষ‌য়ে পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক গণমাধ্যমকে বলেন, ১৭ আগস্ট ৩৫তম বিসিএসের ফল প্রকাশের পর ৩০ আগস্টই আমরা সব মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়ে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির শূন্য পদের তালিকা চেয়েছি। ‌বি‌সিএস উত্তীর্ণদের ম‌ধ্য থে‌কে বে‌শি ক‌রে যেন চাকরি পায় সে জন্য আমরা মন্ত্রণালয়গু‌লো‌কে বারবার তাগাদা দিয়েছি। এখন পর্যন্ত মোট ৫৫৮ জন‌কে প্রথম শ্রেণির বি‌ভিন্ন প‌দে নি‌য়ো‌গের সুপা‌রিশ করা হ‌লো।

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৩১ মে’র মধ্যে তৃতীয় দফায় আরও ১১২ জনের মতো প্রথম শ্রেণির পদে সুপারিশের পরিকল্পনা আছে কমিশনের। সেই লক্ষে পিএসসির সংশ্লিষ্টরা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারপর দ্বিতীয় শ্রেণির নন-ক্যাডার পদের ফলাফল প্রকাশ করা হবে। জুনের মধ্যে দ্বিতীয় শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করে ৩৫তম বিসিএসের কার্যক্রম শেষ করতে চায় পিএসসি। কমিশনের ইতিহাসে এই বিসিএস থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক পরীক্ষার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করা হচ্ছে।

x

Check Also

সাড়ে ৩ লাখ অভিবাসীর জন্য দুয়ার খুলল কানাডা

এমএনএ রিপোর্ট : উন্নত জীবনযাপনের জন্য অনেক মানুষ নিজ দেশে ছেড়ে পরদেশে পাড়ি জমায়। যারা ...

Scroll Up