সুস্বাদু সফেদা চাষে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার

এমএনএ ফিচার ডেস্ক : সফেদা এক প্রকার মিষ্টি ফল। যেকারণে এ ফলটি বেশিরভাগ লোকই পছন্দ করেন। সুস্বাদু সফেদা চাষে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে এ বিশেষ প্রতিবেদনটি তৈরি করেছেন মোসাম্মৎ সেলিনা হোসেন

সফেদা গাছ বহুবর্ষজীবী, চিরসবুজ। এর আদি নিবাস মেক্সিকোর দক্ষিণাংশ, মধ্য আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় অঞ্চল। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও মেক্সিকোতে এর ব্যাপক উৎপাদন হয়।

সফেদা
সফেদা ফল দেখতে মেটে রঙের ও খসখসে। খেতে খুবই ভালো। এতে রয়েছে শ্বেতসার, খনিজ লবণ ও ক্যালসিয়াম।

জাত
আমাদের দেশে সাধারণত দুই ধরনের জাত রয়েছে। যেমন- গোলাকার ও ডিম্বাকৃতি।

মাটি
ঘন বৃষ্টিপাত হওয়া অঞ্চলে সফেদা ভালো হয়। প্রায় সব রকমের মাটিতে চাষ করা যায়। তবে পানি নিষ্কাশনের সুবিধাযুক্ত গভীর ও ঝুরঝুরে মাটি হলে বেশি ভালো হয়।

বংশ বৃদ্ধি
সফেদার বীজ থেকে চারা উৎপাদন করে গাছ রোপণ করা যায়। এ গাছে ফল ধরতে ৭-৮ বছর লেগে যায়। চারা উৎপাদন করতে ২-১ দিন বীজ পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয়। তারপর বেলে দো-আঁশ মাটি দেখে বীজ রোপণ করতে হয়। এছাড়া কলম চাষের মাধ্যমেও বংশ বৃদ্ধি করা যায়।

চারা রোপণ
চারা রোপণের জন্য একটি নির্দিষ্ট জায়গা নির্বাচন করুন। তারপর চারার সাইজ দেখে পরিমাণমতো গর্ত তৈরি করুন এবং ওই গর্তে গাছ লাগান।

সার প্রয়োগ
গাছ লাগানোর ৮-১০ দিন আগে গর্তটি জৈব সার মিশিয়ে ভরে দিন। জৈব সারের মধ্যে গোবর, খৈল, টিএসপি, ছাই ইত্যাদি পরিমাণমতো দিতে হবে।

পরিচর্যা
গরু, ছাগল যাতে গাছটি না খেতে পারে সেজন্য ঘিরে রাখুন। প্রয়োজন হলে পানি দিন। প্রথম ৩-৪ বছর অপ্রয়োজনীয় ডালপালা কেটে দিন।

ফল সংগ্রহ
সফেদার পরিপক্ক ফল চেনার সহজ উপায় হচ্ছে, এ ফলের ভেতরের বীজ কালো হয়। ফল পরিপুষ্ট হলে গাছ থেকে সংগ্রহ ঘরে পাকানো উচিত।

x

Check Also

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

এমএনএ রিপোর্ট : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ধর্মীয় উস্কানি ও জাতিগত বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগের ...

Scroll Up