মাছ খেলে শিশুদের বুদ্ধি বাড়ে

এমএনএ রিপোর্ট : সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, মাছ খেলে বুদ্ধি বাড়ে। অথচ খাওয়ার ক্ষেত্রে নানান বাহানা করে শিশুরা। এটা খাব না, ওটা খাব না বলে বলে বাবা-মায়ের মাথা নষ্ট করার উপক্রম করে শিশুরা। শিশুরা মাংস খেতে পছন্দ করলেও অনেক সময় মাছ খেতে চায় না।
মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্টিফিক রিপোর্টের এক জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যেসব শিশু সপ্তাহে অন্তত একদিন মাছ খায় তাদের ঘুম ভালো হয়, আইকিউ টেস্টেও ভালো করে।
গবেষকরা বলেন, মাছে শিশুদের বুদ্ধি বিকাশের অতি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাটি এসিড ওমেগা থ্রি এস থাকে। স্যামন, সার্ডিন, টুনা জাতীয় মাছে এই ধরনের ফ্যাটি এসিড থাকে। এ কারণে যেসব শিশু নিয়মিত মাছ খায় তাদের বুদ্ধির বিকাশ ভালো হয়, ঘুমও ভালো হয়।
আমেরিকার পেনসিলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সমীক্ষা রিপোর্টে বলা হয়েছে শিশুদের নিয়মিত মাছ খাওয়ালে স্বাভাবিকের তুলনায় বুদ্ধি বাড়ে। রোজ নয়, শিশুদের সপ্তাহের মাত্র একদিন মাছ খাওয়ালেই যারা মাছ খায় না তাদের তুলনায় আইকিউ চার পয়েন্ট বেশি হয়। এমনকি যারা মাঝে মধ্যে মাছ খায় তাদের আই কিউ-ও স্বাভাবিকের তুলনায় ৩.৩ পয়েন্ট বেশি হয়।
পেনসিলভেনিয়ার একটি গবেষণা দল চীনের ৫৪১ শিশুর ওপর এ সংক্রান্ত একটি গবেষণা পরিচালনা করে। গবেষণায় অংশ নেওয়া শিশুদের বয়স ছিল ৯ থেকে এগারো বছর। ৫৪ শতাংশ ছেলে এবং ৪৬ শতাংশ মেয়ে। তাদের প্রত্যেককে প্রশ্ন করা হয়েছিল তারা মাছ খায় কিনা, খেলেও কতদিন পর পর খায়। এরপর তাদের আইকিউ টেস্ট নেওয়া হয়।
ফলাফলে দেখা যায়, যেসব শিশু নিয়মিত মাছ খায় (সপ্তাহে অন্তত একবার) তারা আইকিউ টেস্টে অন্যদের থেকে গড়ে ৪.৮ পয়েন্ট বেশি পেয়েছে। তবে তারা ঠিক কী ধরনের মাছ খায় সে বিষয়ে কোনো প্রশ্ন করা হয়নি। পাশাপাশি ঐসব শিশুর বাবা-মায়ের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল—তাদের সন্তানদের ঘুম কেমন হয়? তাদের উত্তর থেকে গবেষকরা দেখতে পান, যেসব শিশু নিয়মিত মাছ খায় তাদের ঘুমও ভালো হয়।-সিএনএন
x

Check Also

জেনে নিন কোন খাবারে কত ক্যালরি?

এমএনএ ডেস্ক রিপোর্ট : প্রতিদিন খাবার খাচ্ছেন। কিন্তু কোন খাবারে কতটুকু ক্যালোরি আছে জানেন? আর ...

Scroll Up