পুঁজিবাজারে টানা তিন কার্যদিবস দরপতন

এমএনএ অর্থনীতি ডেস্ক : সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে সপ্তাহের পঞ্চম ও শেষ কার্যদিবস আজ বৃহস্পতিবার পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে। এদিন সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম।
গতকাল বুধবারের মতো আজ বৃহস্পতিবার সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্যে দিনের লেনদেন শুরু হয়। যা অব্যাহত ছিলো সকাল ১০টা ৫৪ মিনিট পর্যন্ত। এরপর শেয়ার বিক্রির চাপে শুরু হয় সূচকের পতন যা অব্যাহত ছিলো দিনের বাকি লেনদেন পর্যন্ত।
দিন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক কমেছে ২০ পয়েন্ট। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক কমেছে ৪৭ পয়েন্ট। এর ফলে উভয় বাজারে টানা তিন কার্যদিবস দরপতন হলো।
তবে তার আগে গত বুধ, বৃহস্পতি, রবি এবং সোমবার টানা চার কার্যদিবস ডিএসইতে সূচক বেড়েছে। অপরদিকে সিএসইতে টানা তিন কার্যদিবস সূচক ও লেনদেন বেড়েছিলো।
ডিএসইর তথ্য মতে, আজ বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ১৫ কোটি ২১ লাখ ৫৮০টি সিকিউরিটিজের হাতবদল হয়েছে। এতে লেনদেন হয়েছে ৫৫৩ কোটি ৪২ লাখ ৫৯ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৫২৯ কোটি ১৮ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৭১০ কোটি ৯৬ লাখ ৮৮ হাজার টাকা।
ডিএসই’র তিন সূচকের মধ্যে ব্রড ইনডেক্স আগের কার্যদিবসের চেয়ে ২০ দশমিক ১২ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৮১৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ৪ দশমিক ০৮ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ১৮৬ পয়েন্টে এবং শরিয়াহ্ সূচক ৪ দশমকি ৪৩ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৪টির, কমেছে ২২৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির।
অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক ৪৭ দশমিক ৬৩ দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৮৩৭ পয়েন্ট। এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪১ কোটি ১৩ লাখ ৮২ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ২৬ কোটি ৮৫ লাখ ২৫ হাজার টাকার। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৪৫ কোটি ২৩ লাখ টাকার।
লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৩টির, কমেছে ১৫৯টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।
x

Check Also

চীনা কনসোর্টিয়ামের কাছে ডিএসইর শেয়ার হস্তান্তর

এমএনএ অর্থনীতি রিপোর্ট : চুক্তি অনুযায়ী আনুষ্ঠানিকভাবে চীনা কনসোর্টিয়ামের কাছে সাড়ে ৯শ’ কোটি টাকায় ঢাকা ...

Scroll Up