গুগল ম্যাপে ভূত, ছড়াচ্ছে ভয়ানক আতঙ্ক!

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : গুগল ম্যাপে ভূত, ছড়াচ্ছে ভয়ানক আতঙ্ক। কিছুটা অবিশ্বাস্য মনে হলেও এই বিজ্ঞান প্রযুক্তির যুগেও ভূতের আতঙ্ক গুগলের বদৌলতে ছড়িয়ে পড়ছে চারিদিকে।
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে মানুষ যত এগিয়েছে, দৈব বিষয় ও ভূতে বিশ্বাসও ততই কমেছে। কিন্তু প্রযুক্তির আলোয় যেখানে সব অন্ধকারও দূর হয়েছে, সেখানে আধুনিকতম প্রযুক্তির প্রয়োগ ঘটিয়েও ভূত দেখা যাচ্ছে!
বিষয়টি অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে, সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টার তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গুগল ম্যাপে অনেকেই ভূত দেখতে পাচ্ছে।
মূলত ম্যাপ এবং নেভিগেশন ব্যবস্থা হাল নাগাদ রাখতেই গুগল বিশ্বের প্রায় সব স্থানেই ঢুঁ মারে এবং ওই সব এলাকার ছবি তুলে ব্যবহারকারীদের উদ্দেশ্য আপডেট করে।
ডেইলি স্টারের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাজ্যের জেমি সি নামের এক টুইটারেত্তি গুগল ম্যাপে ব্রাউজিংয়ের সময় একটি বাড়ির জানালা থেকে এক ভয়ঙ্কর মুখকে উঁকি মারতে দেখেন। সে খবরটি তিনি টুইট করতেই শুরু হয় হইচই।
টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘আমি ঠাকুরদার বাড়ি সার্চ করছিলাম। হঠাৎ ওই বাড়ির জানালায় একটি ভয়ঙ্কর মুখ দেখতে পাই। ওই বাড়িটি দীর্ঘকাল পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে।’
শুধু জেমি যে একা গুগল ম্যাপে এমন অদ্ভুদ কিছু দেখেছেন তাই নয়, এমন আরও কয়েকটি ঘটনার বর্ণনা দেওয়া হয় ডেইলি স্টারের ওই প্রতিবেদনে।
লিভারপুলের একটি হোটেলের জানালায় একটি গোলমেলে মুখ দেখতে পেয়েছিলেন অনেকেই। স্টুয়ার্ট হোটেল নামের ওই হোটেলটি ভূতুরে কর্মকাণ্ডের শিকার বলেই কুখ্যাত।
মার্কিন সোশ্যাল মিডিয়া রেডিট একটি পোস্টে ফ্রান্সের একটি বাড়িতে অদ্ভুত অবয়ব দেখা গিয়েছিল বলে গুগল ম্যাপে ওই ছবিটি ব্লার করে দেওয়া হয়।
মেক্সিকোর চিহুয়াহুয়া থেকে তোলা একটি ছবিতে এক শিশুর স্পষ্ট ছায়ামূর্তি দেখা যায়। যে মেয়েটি সরাসরি ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে ছিল।
গুগল ম্যাপ খুবই জনপ্রিয় একটি অ্যাপস। অনেকেই ম্যাপে ভূত দেখার বিষয়টি বিশ্বাস করছেন না। তাদের দাবি, স্যোশাল মিডিয়াতে ঝড় তুলতেই এমন গল্প ছড়ানো হচ্ছে।
x

Check Also

জাকারবার্গের দৈনিক আয় ৬০ লাখ ডলার

এমএনএ সাইটেক ডেস্ক : জাকারবার্গের দৈনিক আয় ৬০ লাখ ডলার! কি বিশ্বাস হচ্ছে না? কিন্তু এটাই ...

Scroll Up