সামনের সব নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে: সিইসি

এমএনএ রিপোর্ট : প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে. এম. নুরুল হুদা বলেছেন, সামনের সব নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। বর্তমানে অনুষ্ঠিত নির্বাচনগুলো আন্তর্জাতিক মানের এবং গ্রহণযোগ্য। সব নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু করার চেষ্টা রয়েছে বর্তমান ইসির।
গতকাল শনিবার পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় নবনির্মিত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এ কথা বলেন।
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণের দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, খুলনায় সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামান্য ত্রুটি-বিচ্যুতির অভিযোগ পাওয়ার পর তাৎক্ষণিক কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
সিইসি আরও বলেন, তফসিল ঘোষিত সব নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে। একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্পন্ন করাই কমিশনের প্রধান কাজ। যেটি আমরা করে যাচ্ছি। বর্তমানে অনুষ্ঠিত নির্বাচনগুলো আন্তর্জাতিক মানের এবং গ্রহণযোগ্য হয়েছে। তিনি জানান, পর্যায়ক্রমে কলাপাড়ায় স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।
একই দিন তিনি কলাপাড়ার সার্ভার স্টেশনও পরিদর্শন করেন। পরে সিইসি নির্বাচন কর্মকর্তাদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন। এ সময় তার সফরসঙ্গী নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক, পটুয়াখালী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান খলিফা, কলাপাড়ার উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব তালুকদার, পৌর মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তানভীর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম রাকিবুল আহসান, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের কলাপাড়ার সাবেক কমান্ডার বদিউর রহমান বন্টিন, মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হুদা সালেক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবদুর রশীদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মুক্তিযুদ্ধকালীন এ উপজেলায় সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের স্মৃতির কথা মনে করে সিইসি কেএম নুরুল হুদা এলাকার ব্যাপক উন্নয়নে সবাইকে সহায়তার অনুরোধ জানান। এ সময় তিনি তার মুক্তিযুদ্ধকালীন কয়েকজন সহযোদ্ধার সঙ্গে আবেগপ্রবণ হয়ে কথা বলেন।
x

Check Also

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিতে কোটা না রাখার সুপারিশ

এমএনএ রিপোর্ট : প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির (৯ম থেকে ১৩তম গ্রেড চাকরির ক্ষেত্রে) সরকারি চাকরিতে ...

Scroll Up