জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম সমাবেশ সিলেটে

এমএনএ রিপোর্ট : অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ নিজেদের সাত দফা দাবি আদায়ে দেশব্যাপী জনমত গড়ে তুলতে সিলেটে প্রথম সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরায় নিজ বাসায় আড়াই ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে ৩টার দিকে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, পেশাজীবী নেতা ও গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, সহ-সভাপতি তানিয়া রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, গণফোরামের সুব্রত চৌধুরী, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন স্বপন, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ক শহিদুল্লাহ কায়সার, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মমিনুল ইসলাম, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মইনুল হোসেন, ড. জায়েদ প্রমুখ।

বৈঠক শেষে আ স ম রব বলেন, আগামী ২৩ অক্টোবর হজরত শাহজালাল ও হজরত শাহ পরাণের মাজার জিয়ারতের পর সেখানে সিলেটে সমাবেশ করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

তিনি বলেন, বৈঠকে দুটি সিদ্ধান্ত হয়েছে। একটি শরিকদের নিয়ে লিয়াজোঁ কমিটি গঠন। অপরটি হচ্ছে সমাবেশ, মহাসমাবেশ অনুষ্ঠান।

আ স ম আব্দুর রব বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ভিত্তিতে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, জনগণের অধিকার, কর্তৃত্ব, জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্য জনগণ ও ফ্রন্টের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আমরা প্রথম কর্মসূচি দিচ্ছি আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে প্রোগ্রাম হবে। এরপর দেশের সব বিভাগ ও মহানগরীতে কর্মসূচি পালন করা হবে। এর আগে অবশ্যই আমরা হজরত শাহজালালের মাজার জিয়ারত করব।

তিনি বলেন, সিলেটের পর পর্যায়ক্রমে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, রংপুরসহ বিভাগীয় শহর ও মহানগরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সমাবেশের কর্মসূচি পালন করা হবে।

এসব কর্মসূচি পালনে সরকার ও প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চেয়ে জেএসডি সভাপতি বলেন, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা যাতে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি করতে পারি সে জন্য সরকার ও প্রশাসনের কাছে আমরা সহযোগিতা চাই।

এ ছাড়া ঐক্যফ্রন্টের লিয়াজোঁ কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ২৩ অক্টোবর মঙ্গলবার সিলেট বিভাগে সফরের মধ্য দিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কর্মসূচি শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ স ম আব্দুর রব।

রব বলেন, ‘সিলেটের পর চট্টগ্রাম, রাজশাহীসহ সকল বিভাগ ও মহানগর পর্যায়ে ধারাবাহিকভাবে কর্মসূচি দেওয়া হবে। এছাড়া জেলা পর্যায়েও কর্মসূচি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট।

তিনি বলেন, আজকে আমাদের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে লিয়াজোঁ কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামীকাল আবারও বৈঠক শেষে কমিটির নাম ঘোষণা করা হবে।

আ স ম রব বলেন, আমাদের কর্মসূচিতে সরকার ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশা করি কোনো ধরনের বাধা দেয়া হবে না। আমরা সরকারের নিকট থেকে সেই ধরনের সহযোগিতা চাই।

সিলেটে কি ধরনের কর্মসূচি দেয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রথমে মাজার জিয়ারত করবো আমরা। এরপর জনসভা হবে। এছাড়া অন্যান্য কর্মসূচির বিষয়ে বুধবার জানানো হবে।

বিএনপি, যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সমন্বিত সরকার বিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এ বৈঠক সোয়া ১২টায় শুরু হয়ে চলে সোয়া ৩টা পর্যন্ত।

আগামীকাল বুধবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে জোটের লিয়াজোঁ কমিটির নেতাদের নাম গণমাধ্যমকে জানানো হবে বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ৭ দফা ও ১১ দফা লক্ষ্য নিয়ে গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপি, জেএসডি, নাগরিক ঐক্য, গণফোরামকে নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আত্মপ্রকাশ হয়।

x

Check Also

আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

এমএনএ রিপোর্ট : আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)। নবী দিবস। এটি মানবজাতির শিরোমণি। মহানবী ...

Scroll Up