টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

এমএনএ স্পোর্টস ডেস্ক : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলেছিল সেই ২০০৬ সালে। এরপর দল দুটি নিয়মিতই ঢাকার এই মাঠে খেলতে নেমেছে। মিরপুর মাসাকাদজা-টেলরদের কাছেও ঘরের মাঠের মতো। তবে ২০১০ সালের পর জিম্বাবুয়ে এই মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে জিততে পারেনি। বাংলাদেশ চাইবে সেই জয়ের ধারা ধরে রাখতে। আর মিরপুর জুজু কাটাতে চাইবে জিম্বাবুয়ে। তবে তাদের শুরুর ধাক্কা হলো টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। মিরপুরে শুরুতে ব্যাট করা দলের যে জয়ের সুযোগ থাকে বেশি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অবশ্য বাংলাদেশের কিছু ব্যাটসম্যান খুব ভালো ব্যাট করে থাকেন। তিনজন ব্যাটসম্যানের তাদের বিপক্ষে এক হাজারের বেশি রান আছে। মুশফিক তাদের মধ্যে একজন। তবে দুই দলের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রান ব্রেন্ডন টেলারের। তিনি বাংলাদেশের জন্য ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেন। জিম্বাবুয়ের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটনসম্যান টাইগারদের বিপক্ষে ১২২২ রান করেছে। এছাড়া মাসাকাদজা এবং চিগুমবুরার এক হাজারের ওপরে রান আছে বাংলাদেশের বিপক্ষে।

বাংলাদেশে খেলা মানে উইকেট বিদেশি দলগুলোর জন্য সবসময় চিন্তার বিষয়। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া টাইগারদের ডেরায় এসে টেস্ট হেরে গেছে। দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারত এবং পাকিস্তান ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশে এসে। জিম্বাবুয়ের জন্যও তাই মিরপুরের উইকেট চিন্তার বিষয়। তবে বাংলাদেশের জন্যও উইকেট কম চিন্তার না। বিশেষ করে মাশরাফির কথা ধরলে, মিরপুরের উইকেট মাঝে মধ্যে রহস্য হয়ে ওঠে। আচরণ করে অচেনা উইকেটের মতো। তবে ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলেনে তিনি জানান, প্রথমে ব্যাট করলে জয়ের সুযোগ থাকে বেশি।

বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়কের মতে, ‘মিরপুরের উইকেট সম্পর্কে ভবিষ্যতবাণী করা খুবই কঠিন। মিরপুরের উইকেট ভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন আচরণ শুরু করে। কি হবে আগে থেকে বলা খুবই কঠিন। তবে ভালো কিছুর প্রত্যাশা তো অবশ্যই করছি। সাধারণত এখানে ২৫০-৬০ রান হলে ভালো ম্যাচ হয়। আগে ব্যাট করা দলের জেতার সুযোগ বেশি থাকে। শুরুতেই উইকেট স্লো বা বেশি টার্ন হবে, এমন আশা অবশ্যই করছি না। ভাল উইকেটে খেলতে চেয়েছি, এখন ভাল উইকেট হলেই হয়।’

বাংলাদেশ একাদশ : লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, ফজলে রাব্বি, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদুল্লাহ, সাইফউদ্দিন, মেহেদি মিরাজ, মাশরাফি মর্তুজা (অধি.), মুস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল ইসলাম অপু।

জিম্বাবুয়ে একাদশ : হ্যামিলটন মাসাকাদজা (অধি.), ক্যাপহাস জহুয়া, ক্রেগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেলর, শেন উইলিয়ামস, সিকান্ডার রাজা, পিটার মুর, কাইল জারভিস, ব্রেন্ডন মাভুত, ডোনাল্ড ট্রিপানো, টেন্ডি সাতারা।

x

Check Also

আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

এমএনএ রিপোর্ট : আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)। নবী দিবস। এটি মানবজাতির শিরোমণি। মহানবী ...

Scroll Up