‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা পুনরায় নেয়ার সিদ্ধান্ত

এমএনএ ক্যাম্পাস রিপোর্ট : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা পুনরায় নেয়া হবে। প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠার পর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিলো। তবে ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছেন শুধুমাত্র তারাই এ পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

ঢাবির আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে আজ মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) ডিনস কমিটির একটি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। এ মিটিংয়েই পুনরায় পরীক্ষা নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছেন শুধুমাত্র তারাই এ পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৮ হাজার ৪৬৩ জন। আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ৯৫ হাজার ৩৪১ জন।

প্রশ্নফাঁসের প্রতিবাদে দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড়, ক্যাম্পাসে তীব্র আন্দোলন এবং হাইকোর্টে রিটের পর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফল বাতিলের সিদ্ধান্ত নিল।

গত ১২ অক্টোবর বেলা ১০টায় অনুষ্ঠিত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরুর আগেই প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে। এরপর পরীক্ষাটি বাতিল চেয়ে পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার দাবি করেন শিক্ষার্থীরা। টানা তৃতীয়বারের মতো সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভূক্ত ‘ঘ’ ইউনিটে সম্মান ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠে।

শুক্রবার বেলা ১০টায় পরীক্ষা শুরুর পূর্বে বেলা ৯টা ১৭ মিনিটে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পাওয়া যায়। বেলা ১১টায় পরীক্ষা শেষ হলে হাতে লেখা ওই উত্তরপত্র যাচাই করে দেখা গেছে, সেখানে বাংলা অংশে ১৯টি, ইংরেজি অংশে ১৭টি, সাধারণ জ্ঞান অংশে ৩৬টিসহ ৭২টি প্রশ্নের হুবহু মিল রয়েছে।

ঘ-ইউনিটে বাংলা, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান এ তিনটি বিষয়ে ১০০ প্রশ্ন থাকে। এ অবস্থায় পরীক্ষা বাতিল না করে ফল প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

প্রকাশিত ফলে দেখা যায় অসংখ্য অসঙ্গতি। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সব মহলে নিন্দার ঝড় উঠে। দাবি উঠে পরীক্ষা বাতিল করে নতুন করে পরীক্ষা নেয়ার।

প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় গত ১৩ অক্টোবর উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি ভর্তি পরীক্ষার আগে প্রশ্নফাঁস হয়েছিল বলে প্রতিবেদন জমা দেয়। এরপর অধিকতর তদন্তের স্বার্থে নতুন করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট আরও একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

x

Check Also

আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

এমএনএ রিপোর্ট : আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)। নবী দিবস। এটি মানবজাতির শিরোমণি। মহানবী ...

Scroll Up